Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ০৮ ফাল্গুন, ১৪২৩, ২২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী।
শিরোনাম

রোলবল বিশ্বকাপের বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

| প্রকাশের সময় : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

জাহেদ খোকন : কিছুটা অগোছালো হলেও বর্ণাঢ্য আয়োজনেই উদ্বোধন হলো রোলবল বিশ্বকাপের চতুর্থ আসরের। গতকাল সকালে পল্টন ময়দান সংলগ্ন নব-নির্মিত শেখ রাসেল রোলার স্কেটিং কমপ্লেক্সে প্রধান অতিথি থেকে বিশ্বকাপের উদ্বোধন করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার এমপি, উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় এমপি, যুব ও ক্রীড়া সচিব কাজী আখতার উদ্দিন আহমেদ, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ সচিব আশোক কুমার বিশ্বাস, বাংলাদেশ রোলার স্কেটিং ফেডারেশনের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ ও সাধারণ সম্পদাক আহমেদ আসিফুল হাসান।
চল্লিশ দেশের ছয়শ’ প্রতিযোগীর অংশগ্রহণে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম কমপ্লেক্স এবং মিরপুর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়াম এখন মুখরিত হলেও গতকাল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য সব ক্রীড়াবিদের কেন্দ্রস্থলই ছিল শেখ রাসেল রোলার স্কেটিং কমপ্লেক্স। বিশ্বকাপে অংশ নেয়া সব দেশের ক্রীড়াবিদরাই এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। ‘জাগো বাঙ্গালি জাগো’ গানের তালে তালে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আগত খেলোয়াড়রা উল্লাসে মেতে ওঠেন। তারা গ্যালারিতে নেচে-গেয়ে উচ্ছাস প্রকাশ করেন। বাংলাদেশে এর আগে আইসিসি বিশ্বকাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ কিংবা এশিয়া কাপ ক্রিকেটের মতো বড় আয়োজন হলেও অংশ নেয়া দলগুলোর সংখ্যায় সব টুর্নামেন্টকে ছাড়িয়ে গেছে রোলবল বিশ্বকাপ। ৪০ দেশের অংশগ্রহণে এমন আয়োজন লাল-সবুজদের জন্য ইতিহাস হয়েই থাকছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে উপলক্ষ করে শেখ রাসেল রোলার স্কেটিং কমপ্লেক্সের দু’পাশের গ্যালারি ছিল দর্শকপূর্ণ। আনন্দের রঙে রঙিন ছিল পুরো কমপ্লেক্স। চোখ চেয়ে দেখার মতই এ অভূতপূর্ব দৃশ্য। ‘জাগো বাঙ্গালি জাগো; গানের তালে তালে বিডি কোস্পানির শিল্পীদের নৃত্য পরিবেশন ছিল দারুণ। ছোট্ট পরিসরে হলেও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এই প্রথমবার দেশীয় সংস্কৃতি বিদেশিদের সামনে তুলে ধরার প্রয়াস চালায় আয়োজকরা। এরপর অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর নাম লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে বিডি কোম্পানির তরুণীরা লাল-সবুজ পোশাকে একে একে মঞ্চে উঠে আসেন। বেজে ওঠে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি’। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতেই সবাইকে এমন ক্রীড়াযজ্ঞে অংশ নেয়ার জন্য স্বাগতক জানান ফেডারেশনের সভাপতি আবুল কামাল আজাদ। তিনি বলেন, ‘স্বাগতিক দেশ হিসেবে আগের চেয়ে ভালো করার চেষ্টা করব আমরা। তিন মাস অনুশীলনের মধ্যে ছিল ছেলে মেয়েরা। এর মধ্যে ভারত ও নেপালের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে জয়ও পেয়েছে তারা। তাই বলা যায় বিশ্বকাপে ভালো করার জন্য পূর্ণ প্রস্তুত আমরা।’ অনুষ্ঠানের শেষ দিকে প্রধান অতিথি রোলবল বিশ্বকাপের শুভকামনা জানিয়ে উদ্বোধন ঘোষণার পর মিনি আতশবাজির আলোকচ্ছ¡টায় আলোকিত হয়ে ওঠে পুরো কমপ্লেক্সে। এরপর মঞ্চের দু’পাশে বিশাল সাইটস্ক্রিনে ভেসে উঠে জাতীয় জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পুরো পরিবারের সদস্যদের পরিচিতি এবং বিগত দিন গুলোতে ক্রীড়াক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের দৃশ্য। এর পর আয়োজন হয় মনমাতানো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। এতে শহীদদের উদ্দেশে ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো একুশে ফেব্রæয়ারী’ গানটি পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী সামিনা চৌধুরী। সামিনার পর সংগীত পরিবেশন করেন এসআই টুটুল। তার গান পরিবেশনের পর ওয়েস্টইন্ডিজের ডিজে ডোয়াইন ব্র্যাভোর ‘চ্যাম্পিয়ন, চ্যাম্পিয়ন’, ডিজে সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শেষ হয় চতুর্থ রোলবল বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।
আসরে অংশগ্রহণকারী দেশগুলো হলো- ভারত, আইভরিকোস্ট, সিয়েরালিওন, ওমান, ইংল্যান্ড, উগান্ডা, মিশর, ইরান, আর্জেন্টিনা, তানজানিয়া, লাটভিয়া, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, রুয়ান্ডা, গিনি, মিয়ানমার, ভুটান, ফিজি, হংকং, ফ্রান্স, চীন, বেনিন, নেপাল, থাইল্যান্ড, কেনিয়া, শ্রীলঙ্কা, ডেনমার্ক, সেনেগাল, বেলারুশ, তুরস্ক, সৌদি আরব, উরুগুয়ে, নেদারল্যান্ডস, ভিয়েতনাম, চাইনিজ তাইপে, জাম্বিয়া, স্লোভেনিয়া, ফিলিপাইন ও স্বাগতিক বাংলাদেশ।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ