Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

যার চলে যায় সেই বোঝে বিচ্ছেদে কী যন্ত্রণা-আদালত

মোবাইল অপারেটরগুলোর বিশেষ প্যাকেজ বন্ধের নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর রাত্রিকালিন বিশেষ ইন্টারনেট অফার ছয় মাসের জন্য বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। প্যাকেজ বন্ধ করার বিষয়ে বিটিআরসি এবং পুলিশের আইজিসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে পদক্ষেপ নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।
বøু হোয়েল গেম বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে করা একটি রিট আবেদনের শুনানিতে গতকাল সোমবার এ নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ। এসময় আদালত বলেন-যার চলে যায় সেই বোঝে হায় বিচ্ছেদে কী যন্ত্রণা! আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেছেন আইনজীবী হুমায়ুন কবীর পল্লব। রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হাসেন সাজু। শুনানিতে আইনজীবীরা বলেন, চীন, ভারত-পাকিস্তানসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আলোচিত গেম বøু হোয়েল স¤প্রতি আলোচনায় এসেছে বাংলাদেশেও। এছাড়া ইন্টারনেট আসক্তি, ফেসবুক আসক্তি এবং বিভিন্ন গেমস নিয়ে তরুণ-তরুণীরা সময় পার করে থাকে। সোস্যাল মেডিয়া ব্যবহারের এই সুযোগ-সুবিধা নিয়ে থাকে দেশের মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো। তারা বিভিন্ন রকম প্যাকেজ দেয় রাত ১২ টা থেকে ভোর ৬ টা পর্যন্ত। এ সময় অনেক ছাত্রছাত্রী লেখাপড়ার নামে ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকে। আপনারা এই সময়ের মধ্যে ফেকবুক বন্ধ করে দেন।
আদালত বলেন, আমরা আপাতত প্যাকেজ বন্ধ করার নির্দেশনা দিতে পারি। ফেসবুক বন্ধের বিষয়টি পরে দেখা যাবে। এ সময় আদালত অভিভাবকদের উদ্দেশ করে বলেন, শুধু সোস্যাল মিডিয়ার দোষ দিলে হবে না, অভিভাবকদেরও দ্বায়িত্ব আছে। এ সময় খোঁজখবর রাখতে হবে ছেলে মেয়েরা কী করছে। রিটকারার আইনজীবী বলেন, বিশেষ প্যাকেজ বন্ধ ছাড়াও ছয়মাসের জন্য গেম লিঙ্ক বন্ধ রাখা, যারা এসব গেমসে আসক্ত তাদের বিষয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন তৈরি করা এবং আসক্তদের কাউন্সিলিং করতে একটি বিশেষজ্ঞ টিম গঠন করতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এর আগে ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কায়সার, অ্যাডভোকেট নুর আলম সিদ্দিকী ও সুবৃত বর্ধনের পক্ষে রিটটি দায়ের করেছিলেন হুমায়ুন কবীর পল্লব। রুলে ডেথ গেম হিসেবে পরিচিত বøু হোয়েল গেমসহ আত্মহত্যায় প্ররোচণাকারী এ জাতীয় সব গেমের গেটওয়ের লিঙ্ক ও অ্যাপলিকেশন বন্ধে পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না, বিপদজনক এসব গেম এবং সাইবারক্রাইম থেকে জনগণকে রক্ষায় কেন গাইডলাইন করার নির্দেশনা দেয়া হবে না তা জানতে চাওয়া হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ