Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ২১ জুলাই ২০১৯, ০৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৭ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

কবি নজরুল বিশ^বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভিসি‘র উপর হামলা

বিশেষ সংবাদদাতা, ময়মনসিংহ ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৭ নভেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ময়মনসিংহের ত্রিশালে অবস্থিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ^বিদ্যায়ের ভারপ্রাপ্ত ভিসি এ এম এম শামসুর রহমানের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার সকালে তিনি বিশ^বিদ্যালয়ের নিজ কার্যালয়ে যেতে চাইলে তার প্রবেশ ঠেকাতে শিক্ষার্থীরা এ হামলা চালায়। এ সময় তার ব্যবহৃত বিশ^বিদ্যালয়ের গাড়ি ভাঙচুর করা হয়।
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর ড. মোহিত উল আলমের বিরুদ্ধে আদালতে দুর্নীতির অভিযোগে মামলা দায়ের হবার পর ভারপ্রাপ্ত ভিসি এ এম এম শামসুর রহমানের বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ উঠে। এনিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে সকল দুর্নীতির তদন্ত ও বিচার দাবীতে আন্দোলন শুরু হলে বিশ^বিদ্যালয়ের দুই জন শিক্ষককের নেতৃত্বে একটি বলয় ভারপ্রাপ্ত ভিসি‘র পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন শুরু করে। এতে শিক্ষার্থীদের একটা অংশ যোগদান করলে গত এক মাসে তারা কয়েক দফা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে ভারপ্রাপ্ত ভিসিকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়। এরপর থেকে ভারপ্রাপ্ত ভিসি ক্যাম্পাসে যাচ্ছিলেন না। কিন্তু আগামী ১৯ নভেম্বর থেকে বিশ^বিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে গতকাল সোমবার জরুরী সভা থাকায় তিনি নিজের কার্যালয়ে যেতে চাইলে তার উপর হামলা চালায় শিক্ষার্থীদের একটি অংশ।
ভারপ্রাপ্ত ভিসি এ এম এম শামসুর রহমান গতকাল বলেন, চোখে অস্ত্রোপচার হওয়ায় আমি অনেক দিন বিশ্ববিদ্যারয়ে যাইনি। বাড়িতে বসে জরুরী কাজগুলো করেছি। ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে গতকাল সভা থাকায় আমি বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে চাইলে আমাকে বাধা দেওয়া হয়। এসময় শিক্ষার্থীরা আমার ব্যবহৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়িটি ভাঙচুর করে। তিনি বলেন, নাট্যকলা ও পরিবেশনাবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক রুহুল আমিনের নির্দেশে তার অনুগত ছাত্ররা আমার উপর হামলা করে। এ সময় শিক্ষার্থীদের ছুড়া একাধিক ইট আমার কাধে এসে পড়লে আমি আহত হই।
বিশ^বিদ্যালয়ের প্রত্যক্ষদর্শী, শিক্ষার্থী ও প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, ভারপ্রাপ্ত ভিসি বিশ^বিদ্যালয়ের নিজের কার্যালয়ে যেতে চাইলে বিশ^বিদ্যালয়ের প্রবেশ পথে শিক্ষার্থীদের একটা অংশ তার পথ রোধ করে। এ সময় শিক্ষার্থীরা তার উপর হামলা করতে গাড়িতে লাঠিসোঠা দিয়ে আঘাত ও ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ত্রিশাল থানার ওসি জাকিউর রহমান বলেন, বর্তমানে ক্যাম্পাসের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন