Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
শিরোনাম

ইসলামী কর্মতৎপরতা

| প্রকাশের সময় : ১০ নভেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইসলামী ছাত্রসমাজ
যুগের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ছাত্রসমাজকে নেতৃত্ব দিতে হবে। আকাবিরে দেওবন্দ তথা হক্কানী ওলামা-মশায়েখের হাতে উপমহাদেশের ঐতিহ্যবাহী ইসলামী ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজের ভিত্তি রচিত হয়েছিল। এটি লোকবল ও অনুষ্ঠান সর্বস্ব তৎপরতা প্রদর্শনীর গতানুগতিক ধারার কোন সংগঠন নয়। শান্তিময় সমাজবিনির্মাণে একদল যোগ্য, নিবেদিতপ্রাণ, খোদাভীরু আদর্শ মানুষ গড়ার লক্ষ্যেই এ সংগঠনের অভিযাত্রা। এ সংগঠনের রয়েছে গৌরবময় সোনালী অতীত, ঈমানী চেতনা ও আদর্শিক কর্মসূচী। অনেক বাধার পাহাড় ডিঙ্গিয়ে দ্বীনের মশালবাহী তরুণদের প্রাণের এ সংগঠন ১৯৬৯ সাল থেকে তার দীপ্ত বিচরণ অব্যাহত রেখেছে। ইসলামী ছাত্রসমাজ নেতা-কর্মীদের নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে সেই লক্ষ্যপানে এগিয়ে যেতে হবে। তাই ছাত্রদের লেখাপড়ার পাশাপাশি সংগঠনের কাজেও মনোযোগী হতে হবে।
১৮ অক্টোবর’১৭ বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজের উদ্যোগে ফটো জার্নালিস্ট মিলনায়তনে কর্মী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ দৈনিক ইনকিলাবের সহকারী সম্পাদক মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভী এসব কথা বলেন।
সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আবদুল আজিজ এর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব মুহাম্মাদ নুরুজ্জামানের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ খেলাফত ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি মোঃ আল আমিন, ইসলামী ছাত্র খেলাফত বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মির্জা ইয়াসিন আরাফাত, বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়ার প্রধান সম্পাদক আবদুর রহমান, ইসলামী ছাত্র খেলাফত বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন, ইসলামী ছাত্রসমাজ ঢাকা মহানগর সহ-সভাপতি জি এম মাহমুদ হাসান, সাধারণ সম্পাদক মোঃ তারেক জামিল, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ওবায়দুল্লাহ, ওয়ারী থানার সভাপতি হাফেজ মোঃ আলিফ হোসেন, হাজারীবাগ থানার সভাপতি এমদাদুল্লাহ, আজিজুল ইসলাম শিবলী, হামিদুর রহমান, ইসহাক আল ফরিদী, মোঃ শরিফ মাহমুদ, শহিদুল ইসলাম, শাহরিয়ার সাইফী, মোঃ বরকতুল্লাহ সাইফীসহ প্রমুখ ছাত্র নেতৃবৃন্দ।
আমীর খা দরবার শরীফ
কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলাধীন জরুইন ফকির বাড়ী আমির খা দরবার শরীফের পীর হযরত মাওলানা শাহ্ সূুফি মোঃ মাঈন উদ্দিন মাইজভান্ডারী (৬১) গত ২৭ সেপ্টেম্বর রোজ শুক্রবার বেলা ১১.৩০ মিনিটের সময় তাঁহার নিজস্ব দরবার শরীফে ইন্তেকাল করেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। পরের দিন শনিবার দুপুর ২.০০ টায় নিজ দরবার শরীফে জানাযা শেষে দাফন করা হয়। জানাযার নামাজ পড়ান তাঁর স-ুযোগ্য সন্তান শাহজাদা প্রভাষক মোঃ হোসাইন। মুনাজাত করেন আলহ্াজ মোঃ আলমগীর খান আল মাইজ ভান্ডারী। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও পাঁচ মেয়েসহ বহু ভক্ত-মুরিদ এবং আত্মীয়-স্বজন রেখে যান। শাহ্ সূুফি মোঃ মাঈন উদ্দিন মাইজভান্ডারীর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেন, বুড়িচং উপজেলা আহলে সুন্নাতওয়াল জামাতের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাওলানা মুফতি মোঃ আবুল হোসেন আল কাদরী, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট বুড়িচং উপজেলা সাধারণ সম্পাদক কলামিষ্ট গাজী মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম জাবির, বুড়িচং মইনিয়া নজরুলিয়া দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন মাওলানা শেখ শাদী আব্দুল্লাহ সাদকপুরী ও বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা বুড়িচং উপজেলা সভাপতি পীরজাদা মোঃ ইয়াকুব আলী চিশতী এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে পীর মাঈন উদ্দিন মাইজভান্ডারীর মাগফেরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।
ইসলামী আন্দোলন
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নেতা আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম বলেছেন, চট্টগ্রাম মহানগরে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে, একটু বৃষ্টিতেই পুরো নগরী বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে এমন দুর্ভোগপূর্ণ এবং নানাবিধ সমস্যাগ্রস্ত অবস্থায় হে হারে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন গৃহকর বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়েছে তাতে সাধারণ নগরবাসীর জীবনে চরম নাভিশ্বাস উঠবে। গত বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম দেওয়ানহাটস্থ দলীয় কার্যালয় চত্বরে এক মিছিলপূর্ব সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
কেন্দ্রীয় নেতা আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম আরও বলেন, নতুন মূল্যায়নে করের হার আগের তুলনায় ৫০ গুণ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। এক লাপে অস্বাভাবিক এ ধরনের কর বৃদ্ধিরতে পরবর্তীতে এর ভাড়ায় বসবাসরত সাধারণ নগরবাসীর ওপরই বর্তাবে। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি, জলাবদ্ধতা, নিত্যপনের মূল্যবৃদ্ধির পাশাপাশি বাসাভাড়া অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধ হলে নগরবাসীর মাথায় আকাশ ভেঙে পড়বে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেন কেন্দ্রীয় নেতা আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম।
-প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।