Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭, ০৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী

কুমিল্লার টানা তিন

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) আগে দলই বিক্রি করে দিতে চেয়েছিলেন চিটাগং ভাইকিংসের বর্তমান মালিক পক্ষ। শেষ পর্যন্ত দল গঠন করলেও টুর্নামেন্টে খুব একটা শক্তিশালী দিতে পারেনি তারা। যার প্রভাব দেখা যাচ্ছে খেলার মাঠেও। তিন ম্যাচ খেলে চিটাগংয়ের জয় মাত্র একটিতে। কোন ম্যাচেই বড় সংগ্রহ গড়তে পারছে না দলটির ব্যটসম্যানরা। লো স্কোরিংয়ের ধারাবাহিকতায় গতকালও ৪ উইকেটে মাত্র ১৩৯ রান করে মিসবাহ-উল-হকের দল।
তামিম ইকবালের ফেরার ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স এই লক্ষ্য পেরিয়ে গেছে ৬ উইকেট ও ১১ বল হাতে রেখে। এবারের বিপিএলে দুদলের প্রথম দেখাতেও চিটাগংকে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছিল কুমিল্লা। প্রথম ম্যাচে হারের পর কুমিল্লার এটি টানা তৃতীয় জয়। সমান ৪ ম্যাচে ও ৩ জয়ে নেট রান রেটে এগিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ঢাকা গø্যাডিয়েটর্স, দুইয়ে কুমিল্লা। সমান ম্যাচে মাত্র একটিতে জেতা চট্টগ্রামের অবস্থান ছয়ে। দলের এই সাফল্যের ব্যাঘাত না ঘটাতেই হয়তো মোহাম্মাদ নবীর নেতৃত্বেই খেলেছেন তামিম।
দলের জয়ে অবশ্য এদিন অবদান রাখতে পারেননি তামিম। শ্রীলঙ্কান স্পিনার মুনাভিরাকে পুল করতে গিয়ে শর্ট থার্ড ম্যানে সুভাশিষ রায়ের হাতে ক্যাচ তুলে দেন বাঁ-হাতি ওপেনার। তার ১০ বলে ৪ রানের ইনিংসে নেই কোন বাউন্ডারি। তৃতীয় ওভারে যখন তিনে ফেরেন, দলীয় স্কোর তখন ৭। আরেক ওপেনার লিটন দাসও (২০ বলে ২১) ভালো কিছু দিতে পারেননি। তবে বাকি ব্যাটসম্যানদের দায়ীত্বশীল ব্যাটিংয়ে জয় পেতে বেগ পেতে হয়নি কুমিল্লাকে। ৩৬ বলে ২ চার ও ৩ ছক্কায় ৪৫ রান করে ম্যাচসেরা নির্বাচিত হন ইমরুল কায়েস। ইংলিশ রিক্রুট জস বাটলার করেন ৩১ বলে ৪৪ রান। ৮ বলে ১৭ রানে ম্যাচের শেষ টেনে দেন মার্লন স্যামুয়েলস।
এর আগে গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সন্ধ্যার ম্যাচে টস হেরে চিটাগংয়ের হয়ে ওপেন করতে আসেন লুক রনকি ও সৌম্য সরকার। রনকি তার নিয়মমত প্রথম থেকেই ছিলেন মারমুখী। ১৯ বলে খেলেন ৩১ রানের ইনিংস। তবে এর বেশি আর রনকিকে আগাতে দেননি সাইফুদ্দিন। লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে তাকে সাজঘরে পাঠান এ অলরাউন্ডার। ফর্মহীনতায় ভোগা সৌম্য সরকার এদিন খেললেন বেশ ঠান্ডা মাথায়, করেন ৩০ রান। আর সিকান্দার রাজার ব্যাট থেকে আসে ২০টি রান। কুমিল্লার বোলারদের মধ্যে নবী, সাইফুদ্দীন, রশিদ খান ও ব্রাভো একটি করে উইকেট পেয়েছেন।
চিটাগং ভাইকিংস : ১৩৯/৪, ২০ ওভার (রনকি ৩১, সৌম্য ৩০, রাজা ২০; রশিদ ১/১৭,নবী ১/১৯, ব্রাভো ১/৩২, সাইফুদ্দি ১/৩০)।
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স : ১৪০/৪, ১৮.১ ওভার (ইমরুল ৪৫, বাটলার ৪৪, লিটন ২১, স্যামুয়েলস ১৭*; সানজামুল ২/১৪, মুনাভিরা ২/১৭)।
ফল : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ৬ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : ইমরুল কায়েস (কুমিল্লা)।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ