Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নতুন ভিসিকে ফুল দেয়া নিয়ে কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের মারপিট

| প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

শৃংখলা ভঙ্গের অভিযোগে এক কর্মীকে হল থেকে বহিস্কার, সংগঠনে অবাঞ্চিত ঘোষণা
বিশেষ সংবাদদাতা, ময়মনসিংহ ব্যুরো : জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সদ্য যোগদান করা নতুন ভিসি অধ্যাপক ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমানকে ফুল দেয়াকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের মাঝে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ ঘটনায় শৃংখলা ভঙ্গের অভিযোগে ছাত্রলীগ কর্মী সিয়াম(২৩)কে অগ্নিবীনা হল হল থেকে বহিষ্কার করে সংগঠনে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়েছে।
বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ সূত্র জানায়, সোমবার দিবাগত রাতে ভিসি অধ্যাপক ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান দায়িত্বে যোগদান করতে বিশ্ববিদ্যালয় আসেন। এ সময় ভিসি বাংলোতে নতুন ভিসিকে ফুল দেয়ার অপেক্ষমান মুহূর্তে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাবুর সাথে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে (ট্রিপল-ই) ইলেক্টিক্যাল এন্ড ইলেক্টনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী মোঃ ফয়জুর রহমান সিয়াম। এতে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।
বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান রকিব জানান, ফুল দেয়ার আগে একটু ভুল বুঝাবুঝি হয়েছিল। সভাপতি সিয়ামকে ধমক দিলে সাথের ছেলেদের সাথে ভুল বুঝাবুঝির ঘটনা ঘটে। পরে শৃংখলা ভঙ্গের কারণে সিয়ামকে হল থেকে বের করে দেয়া হয়েছে। সেই সাথে তাকে রাজনৈতিক এক্টিভিটিজ থেকে সাময়িক দূরে থাকতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
সূত্রমতে, সিইসি বিভাগের শিক্ষার্থী সিয়াম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের একজন সক্রিয় কর্মী। বিগত সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের একাধিক মিছিলে তাকে নেতৃত্ব দিতে দেখা গেছে।
বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাবু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই ছেলে ভিন্ন আদর্শের। সে ছাত্রদল করত। তাই তাকে হল থেকে বহিষ্কার করে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়েছে। তবে মারপিটের কোন ঘটনা ঘটেনি। শুধুমাত্র সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। কারণ পরবর্তীতে অন্য কেউ যেন সংগঠনের শৃংখলা ভঙ্গের সাহস না পায়।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে (ট্রিপল-ই) ইলেক্টিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী সিয়াম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে আমি পরে কথা বলব।
বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত ইনচার্জ এসআই কামরুল হাসান জানান, শুনেছি তাদের মাঝে ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। তবে এটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। বিষয়টি স্পষ্টভাবে আমার জানা নেই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ