Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

সরকার চক্রান্ত করে রংপুরের ঠাকুরপাড়ায় হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে -মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ নভেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

সরকার চক্রান্ত করে রংপুরের ঠাকুরপাড়া গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর হামলার ঘটনায় ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, সরকার চক্রান্ত করে হামলার ঘটনা ঘটিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের নাম জড়িয়ে নিজেদের দোষ ঢাকতে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। গতকাল (রোববার) সকালে লালমনিরহাট যাওয়ার পথে নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দরে তিনি সাংবাদিকদের একথা বলেন।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে (গতকাল) রংপুরের ঠাকুরপাড়ায় আমারও যাওয়ার কথা ছিল; কিন্ত সেখানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ নেতৃবৃন্দ যাচ্ছেন। তাই সেখানে একসাথে দুটি দলের প্রোগ্রাম করা সমীচীন নয়, এ বিষয়টিকে আমরা গুরুত্ব দেই। তাই আমি তাদের ছাড় দিয়েছি। ফখরুল আরও বলেন, আজ লালমনিরহাটে আমার গুরুত্বপূর্ণ মিটিং আছে। মিটিং শেষ করে আবার ঢাকায় ফিরতে হবে। আগামীকাল (আজ) আমি রংপুরের ঠাকুরপাড়া গ্রামে পরিদর্শনে আসব। আগামী নির্বাচনে বিএনপির সঙ্গে জোটে জামায়াতের থাকা না থাকা নিয়ে প্রশ্ন করলে ফখরুল বলেন, আমাদের জোট অটুট রয়েছে। এখনও জামায়াতের রাজনীতি নিষিদ্ধ করা হয়নি। তাই আগামী নির্বাচনে তারা আমাদের সঙ্গে থেকেই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। সৈয়দপুরে বিমান থেকে নেমে সাংবাদিকদের সঙ্গে কয়েক মিনিট কথা বলে মির্জা ফখরুল লালমনিরহাটের উদ্দেশে যাত্রা করেন।
এদিকে লালমনিটারহাটে পৌছে সদর উপজেলার বুড়ির বাজার এলাকায় দুর্নীতি, মাদক ও সন্ত্রাস বিরোধী সাইকেল র‌্যালি শেষে স্থানীয়দের সাথে মতবিনিময় করেন বিএনপি মহাসচিব। এসময় তিনি বলেন, বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রাখতেই খালেদা জিয়ার নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেইসাথে ক্ষমতা গ্রহণ করার পর বিএনপি যাতে আর নির্বাচন করতে না পারে সে জন্য সারাদেশে বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর নির্যাতনের স্টিমরোলার চালানো হচ্ছে। তিনি বলেন, দেশের অবস্থা ভালো না। আওয়ামী লীগ সরকার দেশের মানুষের বুকের ওপর জগদ্দল পাথরের মতো চেপে বসেছে। এ সরকার কতটা গ্রহণযোগ্য তা মামলা-হামলা দেখে দেশবাসী বুঝতে পেরেছে।
মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা নির্বাচনকালীন সময়ে একটি সহায়ক সরকার চেয়েছি। যে সরকার হবে নিরপেক্ষ, যারা নির্বাচন কমিশনকে অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচনে সহায়তা করবে। আমাদের ন্যায্য দাবির প্রতি সারাদেশের মানুষের সমর্থন রয়েছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপমন্ত্রী অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও রাজশাহীর সিটির সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু, বিএনপির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক ফুটবল টিমের অধিনায়ক আমিনুল ইসলাম, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলাসহ বিএনপি জেলা, উপজেলা ও সহযোগী সংঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জা ফখরুল


আরও
আরও পড়ুন