Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯ আশ্বিন ১৪২৭, ০৬ সফর ১৪৪২ হিজরী

‘ভুয়া ফেসবুক’ স্ট্যাটাসে মামলা, আসিফ নজরুলের আগাম জামিন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০১৭, ১২:৩৬ পিএম

তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ (২) ধারায় করা মামলা ও মানহানির মামলায় আগাম জামিন পেয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিষয়ের অধ্যাপক আসিফ নজরুল। মাদারীপুর সদর থানায় আসিফ নজরুলের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় মামলা করা হয়। নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের ভাগনে সৈয়দ আসাদউজ্জামান মিনার এই মামলার বাদী। গত ২৪ নভেম্বর নৌমন্ত্রীর চাচাতো ভাই মাদারীপুর জেলা পরিষদের সদস্য খান ফারুক মাদারীপুর মুখ্য বিচারক মো. জাকির হোসেনের আদালতে আসিফ নজরুলের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করেন।
মঙ্গলবার হাইকোর্টে বিচারপতি মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী ও আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে এই আদেশ দেন।
আদালতে উপস্থিত হয়ে আসিফ নজরুল আইনজীবীর মাধ্যমে জামিনের আবেদন জানান। আদালতে আসিফ নজরুলের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মোহাম্মদ আসাদউজ্জামান। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ এ কে এম মনিরুজ্জামান কবীর।
পরে মনিরুজ্জামান গণমাধ্যমকে বলেন, মানহানির মামলায় আদালত ১০ সপ্তাহের এবং তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলায় পুলিশ প্রতিবেদন দাখিল না করা পর্যন্ত আগাম জামিন দিয়েছেন।
মাদারীপুর সদর থানায় করা এই মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসিফ নজরুল তাঁর ফেসবুক পেজে চট্টগ্রাম বন্দরে লস্কর পদে (জাহাজের রশি বাঁধা ও পাহারা দেওয়াই যাঁদের মূল কাজ) নিয়োগ নিয়ে নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের বিরুদ্ধে অসত্য তথ্য দিয়েছেন। আসাদউজ্জামান তথ্য ও প্রযুক্তি আইনে মাদারীপুর সদর থানায় আসিফ নজরুলের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আদেশের জন্য পাঠানো হয়।
মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ১৮ নভেম্বর আসিফ নজরুল চট্টগ্রাম বন্দরে লস্কর পদে নিয়োগ নিয়ে নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের বিরুদ্ধে স্ট্যাটাস দেন। সেখানে বলা হয়, এই পদে নিয়োগ দেওয়া ৯২ জনের মধ্যে ৯০ জনই মাদারীপুর জেলার বাসিন্দা। বিবরণে আরও বলা হয়, নৌমন্ত্রীকে নিয়ে যে স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছ তা ভিত্তিহীন। এখানে মোট ৮৫ জনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। যাঁদের মধ্যে মাদারীপুর জেলার মাত্র ৮ জন রয়েছে।
গত মঙ্গলবার তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় মামলা দায়ের করার জন্য নৌমন্ত্রীর ভাগনে আসাদউজ্জামান জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আবেদন করেন। তবে আদালত মামলাটি গ্রহণ করেননি। পরে বৃহস্পতিবার আসাদউজ্জামান আসিফ নজরুলের বিরুদ্ধে তথ্য ও প্রযুক্তি আইনে মাদারীপুর সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। গতকাল সোমবার সকালে এটি মামলা হিসেবে নেওয়া হয়। একই ঘটনায় গত ২৪ নভেম্বর আসিফ নজরুলের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করা হয়।
মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তদন্ত মো. আবু নাইম গণমাধ্যমকে বলেন, কর্তৃপক্ষের অনুমোদন সাপেক্ষে আসিফ নজরুলের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ (২) ধারায় মামলা হয়েছে।
এ ব্যাপারে অধ্যাপক আসিফ নজরুল গণমাধ্যমকে বলেন, নৌমন্ত্রীকে নিয়ে ফেসবুকের ওই পোস্ট তাঁর নামে করা ভুয়া অ্যাকাউন্ট থেকে দেওয়া হয়েছিল। ওই ভুয়া অ্যাকাউন্টের বিষয়ে ফেসবুকে তিনি বিভিন্ন সময়ে সবাইকে সতর্ক করেছেন।

 



 

Show all comments
  • Nasir ২৮ নভেম্বর, ২০১৭, ৪:০০ পিএম says : 0
    Jur jar dunia tar vhai
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আসিফ নজরুল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ