Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

দুদককে ভয়-ভীতির উর্ধ্বে উঠে দায়িত্ব পালন করতে হবে : টিআইবি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

দুদক এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসমূহ ভয়-ভীতির উর্ধ্বে উঠে দায়িত্ব পালন করতে পারেন। দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণের মাধ্যমে একটি স্বচ্ছ, জবাদিহিমূলক ও দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় সক্রিয় ভূমিকা রাখতে দেশের তরুণ সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে টিআইবি আয়োজিত এক দুর্নীতিবিরোধী শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। এসময় ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তরুণ শিক্ষার্থীসহ সমমনা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রায় পাঁচশ’ কর্মী ও তরুণ স্বেচ্ছাসেবক দুর্নীতিকে কোনো প্রকার প্রশ্রয় না দেয়ার অঙ্গীকার করেন।
জাতিসংঘ ঘোষিত ৯ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস উদযাপনের অংশ হিসেবে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে দুর্নীতিবিরোধী শপথ পাঠ করান টিআইবি’র বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারপারসন অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা-নির্বাহী ব্যবস্থাপনা অধ্যাপক ড. সুমাইয়া খায়ের। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রীয়ভাবে আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস উদ্যাপনের সরকারি সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান সরকারের দুর্নীতি নির্মূলের রাজনৈতিক অঙ্গীকার পূরণে দুর্নীতিগ্রস্থদের বিচারের আওতায় আনার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, সরকারের এই প্রশংসনীয় উদ্যোগ দুর্নীতির মাত্রা কমাতে সহায়ক ভূমিকা পালনসহ দুর্নীতি প্রতিরোধে জনগণকে সক্রিয় হতে উদ্বুদ্ধ করবে। ড. জামান আরো বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে কার্যকর প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হলে সরকারকে এমন পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে যাতে অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিত হয়, দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানসমূহ যেমন বিচার বিভাগ, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসমূহ ভয়-ভীতির উর্ধ্বে উঠে দায়িত্ব পালন করতে পারেন।
সুলতানা কামাল দেশের তরুণ সমাজকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে অবস্থানের প্রত্যয় মনে ধারণ করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, আজকের তরুণ সমাজ ভবিষ্যৎ বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবে; কাজেই দেশের তরুণ সমাজকে দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এই অঙ্গীকার করতে হবে যে তারা দুর্নীতি করবে না, দুর্নীতি মানবে না এবং দুর্নীতি সইবে না।
প্রসঙ্গত, গত ১০ জুলাই মন্ত্রিপরিষদের সভায় জাতিসংঘ ঘোষিত ৯ ডিসেম্বর ‘আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস’কে জাতীয়ভাবে উদ্যাপনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সরকারের উক্ত ইতিবাচক সিদ্ধান্ত গ্রহণের পেছনে টিআইবি’র দীর্ঘদিনের অধিপরামর্শ এবং দুদক ও টিআইবি’র যৌথ প্রয়াস ছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: টিআইবি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ