Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী

ঐতিহাসিক টেস্ট অস্ট্রেলিয়ার

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

সব উত্তেজনা আর রোমাঞ্চে জল ঢেলে দিয়ে অ্যাডিলেডের ঐতিহাসিক প্রথম দিবা-রাত্রির অ্যাসেজ টেস্ট প্রতাপের সঙ্গেই জিতে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ৩ ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজেও ২-০তে লিড নিয়েছে স্টিভেন স্মিথের দল।
সিরিজে সমতায় ফেরার আশা নিয়ে দিন শুরু করা ইংল্যান্ড গুটিয়ে যায় প্রথম সেশনেই। স্টার্ক-হ্যাজেলউডদের সামনে দাঁড়াতেই পারেননি জো রুটরা। শেষ দিনে ইংলিশদের করতে হত ১৭৮ রান। কিন্তু হাতের ৬ উইকেটে তারা করতে পারে মাত্র ৫১। ফলে রেকর্ড বইয়ে কোন অদল-বদল ছড়াই শেষ হয়েছে দুদলের মধ্যকার প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্ট। অস্ট্রেলিয়া জিতেছে ১২০ রানে।
চতুর্থ দিন শেষে রোমাঞ্চের আভাস পাওয়া গেলেও রেকর্ড-পরিসংখ্যান কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার পক্ষেই ছিল। ইংল্যান্ডকে জিততে হলে নিজেদের সর্বোচ্চ রান তাড়ার সফল রেকর্ড (৩৩২) টপকাতে হত। অ্যাডিলেডের এই ভেন্যুতেও তো ৩১২ রানের বেশি তাড়া করে জয়ের কোন রেকর্ড নেই। রেকর্ডের পাতায় বদল আনতে এ যাত্রায় ইংল্যান্ডকে হত ৩৫৪ রান।
চতুর্থ দিন শেষে স্কোর বোর্ডে ৪ উইকেটে ১৭৬ রান জমা হওয়ায় আশায় বুকও বেধেছিল ইংলিশ সমর্থকরা। আশা দেখাচ্ছিল সূলত রুটের ব্যাট। কিন্তু সেই রুট ফেরেন এদিন কোন রান যোগ না করেই। আগের দিনে করা ব্যক্তিগত ৬৭ রানেই বিদায় নেন জস হ্যাজেলউডের শিকার হয়ে। এর আগে দিনের ব্যক্তিগত দ্বিতীয় বলে ক্রিস ওকসকে ফিরিয়ে উইকেট শিকারের উৎসব শুরু করেন হ্যাজেলউড। এরপর চার ইনিংসে চতুর্থবারের মত মঈন আলীর উইকেট নেন নাথান লায়ন। নতুন বলে বাকি কাজটা নিপূনভাবে সারেন মিচেল স্টার্ক।
কিছুটা প্রতিরোধের আভাস ছিল জনি বেয়ার’শর (৩৬) ব্যাটে। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে সেই বেয়ার’শকে ফিরিয়েই অষ্টমবারের মত ৫ উইকেটের কোটা পূর্ণ করেন স্টার্ক। দুই ইনিংস মিলে স্টার্কের ঝুলিতে ৮ উইকেট। তবে ম্যাচ সেরা হয়েছেন স্টার্ক নয়, প্রথম ইনিংসে দুর্দান্ত অপরাজিত সেঞ্চুরি করা শন মার্শ।
পার্থে সিরিজের তৃতীয় টেস্ট শুরু হবে ১৪ ডিসেম্বর।
অস্ট্রেলিয়া : ৪৪২/৮ ডি. (মার্শ ১২৬*, পাইন ৫৭, ৫৩ খাজা; ওভারটন ৩/১০৫) ও ১৩৮ (খাজা ২০, স্টার্ক ২০; অ্যান্ডারসন ৫/৪৩, ওকস ৪/৩৬)।
ইংল্যান্ড : ২২৭ (ওভারটন ৪১, কুক ৩৭; লায়ন ৪/৬০, স্টার্ক ৩/৪৯) ও (লক্ষ্য ৩৫৪) ৮৪.২ ওভারে ২৩৩ (আগের দিন ১৭৬/৪) (কুক ১৬, স্টোনম্যান ৩৬, ভিন্স ১৫, রুট ৬৭, মালান ২৯, বেয়ার’শ ৩৬; স্টার্ক ৫/৮৮, হ্যাজেলউড ২/৪৯, কামিন্স ১/৩৯, লায়ন ২/৪৫)।
ফল : অস্ট্রেলিয়া ১২০ রানে জয়ী।
সিরিজ : ৫ ম্যাচ সিরিজে অস্ট্রেলিয়া ২-০তে এগিয়ে।
ম্যান অব দা ম্যাচ : শন মার্শ।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর