Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে মানুষের ঢল

দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় প্রযুক্তি উৎসব

ফারুক হোসাইন : | প্রকাশের সময় : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

হলিউড অভিনেত্রী অড্রে হেপবার্নের চেহারার আদলে তৈরি রোবট সোফিয়া। তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ক মেগা ইভেন্ট ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’-এর এবারের আয়োজনের বড় আকর্ষণ এই যন্ত্রমানবী। আর এই যন্ত্রমানবীকে দেখতে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে নেমেছিল মানুষের ঢল। সকাল থেকেই দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করে হাজার হাজার মানুষ সুযোগ পেয়েছিলেন সোফিয়াকে কাছ থেকে এক নজর দেখতে এবং তার কথা শুনতে। তার সাথে কথা বলার সুযোগ করে দিতে দুপুর আড়াইটা থেকে টেক টক উইথ সোফিয়া সেশনের আয়োজন করে আয়োজকরা। হলুদ-সাদা জামদানির টপ আর স্কার্ট পরে মঞ্চে এসেছিলো মানুষের আদলে তৈরি এই রোবট। সেশনে দর্শকদের জন্য নির্ধারিত আসন সংখ্যা ছিলো দুই হাজার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত প্রায় দ্বিগুণ লোক সোফিয়াকে দেখার সুযোগ পায়। সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেইমে সোফিয়াকে আনা হয় ২ টা ৪০ মিনিটে। সোফিয়াকে এসময় মঞ্চে সেট করেন তার নির্মাতা ডেভিড হ্যানসন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুষ্ঠান মঞ্চ ছেড়ে যাওয়া মাত্র সোফিয়াকে কাছ থেকে দেখতে ভিড় লেগে যায় সেখানে। আর বিকালের অনুষ্ঠানের আগে বেলা ১টা থেকেই অনুষ্ঠানস্থলের মূল ফটকে দেখা যায় দর্শকদের দীর্ঘ সারি। পরে মূল ফটক খুলে দেওয়া হলেও কেবল নিবন্ধিতদের একাংশের ভেতরে ঢোকার সুযোগ হয়। অনুষ্ঠান শুরুর সময়ও হাজারখানেক দর্শককে বাইরে অপেক্ষা করতে দেখা যায়। ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের অংশ হিসেবে ‘টেক-টক উইথ সোফিয়া’ শীরোনামে একটি অনুষ্ঠানের জন্য বেলা আড়াইটায় সোফিয়াকে নিয়ে আসা হয় সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে। সেখানে তখন উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়। দেশের সবচেয়ে বড় প্রযুক্তিভিত্তিক প্রদর্শনী ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭-এর প্রথম দিনেই ব্যাপক ভিড় জমিয়েছিলেন প্রযুক্তিপ্রেমিরা। সকাল থেকেই রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের বাইরে প্রবেশ পথে দর্শনার্থীদের দীর্ঘ সারি লক্ষ্য করা যায়। সম্মেলন কেন্দ্রের ভেতরেও দর্শনার্থীদের ভিড় থাকায় এক পর্যায়ে প্রযুক্তিপ্রেমীদের প্রবেশ পথের সারি বাণিজ্য মেলার মাঠ পর্যন্ত পৌঁছে যায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে এই ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের উদ্বোধন করার পর সবার জন্য মেলা প্রাঙ্গণ উন্মুক্ত করে দেয়া হয় দুপুর সোয়া ১টার দিকে। তার আগে সকাল থেকেই মেলায় আগতরা বাইরে দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করতে থাকেন। দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে সবাই নিবন্ধন করে প্রদর্শনীতে প্রবেশ করেছেন। প্রদর্শনীতে প্রবেশের জন্য দীর্ঘলাইনে অপেক্ষা করছিলেন রাজধানীর বাড্ডা থেকে আসা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আনিসুর রহমান। তিনি জানান মেলার প্রথম দিনে সবকিছু ঘুরে দেখার জন্য সকাল সকালেই এসেছিলাম। ভেবেছিলাম সকাল থেকেই প্রবেশ করতে পারবো। কিন্তু উদ্বোধনের জন্য ঢুকতে দেরি হচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম, সাদিয়া পারভিন, ইশরাত আকা, মামুনুর রশীদসহ কয়েকজন রোবট সোফিয়াকে দেখতে এসেছেন বলে জানান। প্রবেশ পথের দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে তারা জানান, রোবট সোফিয়া বাংলাদেশে এসেছেন এটি একটি ঐতিহাসিক ঘটনা। ইতিহাসের স্বাক্ষী হতেই এখানে এসেছি। লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে সমস্যা হচ্ছে কিনা জানতে চাইলে তারা বলেন, মেলা উদ্বোধন হতে দেরি হচ্ছে সে পর্যন্ত তো সবাইকে অপেক্ষা করতেই হবে। আশা করি সোফিয়াকে দেখলে কষ্ট অনুভূত হবে না।
বেলা ৩ টায় সেশন শুরু করেন সঞ্চালক গাউসুল আজম। তিনি সোফিয়াকে প্রথম প্রশ্ন করেন, সোফিয়া তুমি কি পরেছো? তখন হলভর্তি দশর্কের সামনে সোফিয়া বলে, আমি বাংলাদেশি প্যাটেন্ট করা জামদানি পরেছি। জামদানির কথা বলতে গিয়ে সোফিয়া বলে, বাংলাদেশের গার্মেন্ট খাত বিশ্বব্যাপী খুব সুনাম অর্জন করেছে। এরপর সোফিয়াকে প্রশ্ন করেন তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। বাংলাদেশ চাইলে সোশ্যাল রোবট তৈরি করতে পারবে কিনা? জবাবে সোফিয়া বলে, বাংলাদেশের ডেভেলপাররা চাইলেই আমার মতো রোবট তৈরি করতে পারবে। কারণ এখন এগুলো তৈরি করার অনেক সুযোগ রয়েছে। এর মাধ্যমে দেশের অনেক পরিবর্তন আনা সম্ভব বলেও জানায়। এরপর প্রতিমন্ত্রী সোফিয়াকে আরো কয়েকটি প্রশ্ন করেন।
এসময় রোবট সোফিয়ার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হ্যানসন রোবটিক্সের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী ড. ডেভিড হ্যানসন জানান, পাঁচ বছর পর মানুষের পাশাপাশি রোবটও চলাচল করবে। সৈয়দ গাউসুল আলম শাওন ডেভিড হ্যানসনের কাছে জানতে চান, সোফিয়াকে কিভাবে তৈরি করলেন, এর পেছনের কথা শুনতে চাই। হ্যানসন বলেন, সোফিয়াকে তৈরি করা হয়েছে ওপেন সোর্স সফটওয়্যারের মাধ্যমে, বাংলাদেশি ডেভেলপাররা চাইলেই সোফিয়ার মতো রোবট তৈরি করতে পারবে। হ্যানসন আরো বলেন, শুধু রোবট তৈরি করলে হবে না, এখন তার মধ্যে কিছু অনুভূতি সঞ্চারের কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, আমি এখন থেকে ৩০ বছর আগে রোবট তৈরির স্বপ্ন দেখেছিলাম। আর ২৩ বছর আগে কাজ শুরু করি খুব অল্প পরিসরে। সাড়ে তিন বছর আগে সোফিয়াকে তৈরির কাজ শুরু করি। তবে বছর দেড়েক আগে সোফিয়াকে পরিপূর্ণ রূপে তৈরি করতে সক্ষম হই। টেক টক উইথ সোফিয়া সেশনে হ্যানসন বলেন, বিশ্বব্যাপী এখন ১৩টি সোফিয়ার মতো রোবট আছে। ভবিষ্যতে আরো উন্নত মানের রোবট তৈরি হবে, ফলে কিছু মানুষ চাকুরি হারাবে। তবে অনেক নতুন কর্মসংস্থান তৈরি হবে বলে জানান হ্যানসন। অতিরিক্ত দর্শনার্থীর কারণে তীব্র শোরগোলে তা বেশি সময় চালিয়ে নেওয়া যায়নি। প্রচন্ড হৈ চৈয়ের মধ্যে সঞ্চালকরা এ সময় দর্শকদের উদ্দেশে বলতে থাকেন- আপনাদের শব্দে সোফিয়ার সমস্যা হচ্ছে, সে এত শব্দে সাড়া দিতে সমস্যায় পড়বে। টেক টক উইথ সোফিয়া সেশনটি দুই ঘণ্টা হওয়ার কথা থাকলেও তা ৪০ মিনিটের মতো হয়েছে। সেশনে ২০০০ দর্শনার্থী প্রবেশের কথা থাকলেও তা পাঁচ হাজারের মতো ছিল। এর আগে গতকাল (বুধবার) বেলা ১২টা ১৫ মিনিটে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় এই প্রযুক্তি উৎসব উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঞ্চে তার সঙ্গে কথা বলে রোবট মানবী সোফিয়া।
ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭ তে গিয়ে জানা যায়, ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি উচ্চতার সোফিয়াকে তৈরি করেছে হংকংয়ের হ্যানসন রোবোটিকস। মানবীর আদলে তৈরি এই রোবট প্রশ্ন শুনে ইংরেজিতে তার উত্তর দিতে পারে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাহায্যে সে কণ্ঠ ও চেহারা শনাক্ত করতে পারে; বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত ব্যবহার করে ক্রমাগত বাড়িয়ে নিতে পারে নিজের জ্ঞান। হাসি-কান্না, রাগ-অভিমানসহ নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে পারে সোফিয়া। কেউ তার সঙ্গে কথা বললে তাদের বোঝার চেষ্টা করে। সামনে মানুষ না থাকলে নিজে নিজে মুভি চালিয়ে দেখে। ভাবতে থাকে জগৎ, সংসার, সংস্কৃতি, দর্শন নিয়ে। চার দিনের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে যোগ দিতে গত সোমবার মধ্যরাতে ঢাকায় আসে সোফিয়া। তার চালক হংকং পলিটেকনিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জিওভানি লায়নও সঙ্গে আসেন।
ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের প্রথম দিন বেলা আড়াইটা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত সোফিয়াকে রাখা হয় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে। সেখানে ‘টেক-টক উইথ সোফিয়া’ শীরোনামে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ ছাড়া আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে ড. ডেভিড হ্যানসন মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। হ্যানসন জানান সোফিয়া কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার নারী রোবট। সে নানা বিষয়ে অসংখ্য প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে। ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিশাল তথ্যভান্ডারে যুক্ত থাকে সে। এ ছাড়া মানুষের সঙ্গী ও সহযোগী হিসেবেও কাজ করতে পারে সোফিয়া। গত অক্টোবরে রিয়াদে ফিউচার ইনভেস্টমেন্ট ইনিশিয়েটিভ শীর্ষক এক সম্মেলনে সোফিয়াকে দেওয়া হয়েছে সৌদি আরবের নাগরিকত্ব। বিশ্বের কোনো দেশে রোবটকে নাগরিকত্ব দেওয়ার এমন ঘোষণা এটাই প্রথম।
আয়োজকরা জানান, এবারের মেলা বৃহৎ পরিসরে ও আড়ম্বরপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে। ৪ দিন ব্যাপী এই আয়োজনে গুগল-নুয়ান্সসহ খ্যাতিমান তথ্যপ্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের প্রায় দুই শতাধিক বক্তা মোট ২৪টির বেশি সেমিনারে অংশ নেবে। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আইটি ক্যারিয়ার-বিষয়ক সম্মেলনের পাশাপাশি উন্নয়ন সহযোগীদের নিয়ে থাকবে ডেভলপার সম্মেলন। প্রযুক্তি প্রেমীদের জন্য প্রদর্শনীতে সফটওয়্যার শোকেসিং, ই-গভর্নেন্স এক্সপো, স্টার্টআপ জোন, কিডস জোন, মেড ইন বাংলাদেশ জোন এবং ইন্টারন্যাশনাল জোন ছাড়াও আইসিটি সংশ্লিষ্ট বেশ কিছু প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।
কয়েকটি আইটি সংগঠনের সহযোগিতায় আইসিটি বিভাগ ও বেসিস ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’-এর আয়োজন করেছে। চার দিনব্যাপী এই আয়োজনের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘রেডি ফর টুমরো’। ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত মেলা সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলবে। ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড দেখতে কোনো টিকিট লাগবে না, তবে ওয়েবসাইটে নিবন্ধন করতে হবে। মেলা প্রাঙ্গণেও নিবন্ধন করার সুযোগ থাকছে।
স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে দেশের তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন ও সক্ষমতা তুলে ধরতেই এ আয়োজন করেছে সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ। এ ছাড়া সহযোগী হিসেবে রয়েছে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি), বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়ার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্প। এ ছাড়াও পার্টনার হিসেবে রয়েছে- বাক্য, বিসিএস, ই-ক্যাব, বিআইজেএফ, বিবিআইটি, বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরাম এবং সিটিও ফোরাম।

 


Show all comments
  • মৌনতা মাহি ৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১:৫০ এএম says : 0
    ভাল লাগলো
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর