Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে ২০১৮, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ৬ রমজান ১৪৩৯ হিজরী

হাতিয়ায় গৃহবধূকে গলাটিপে হত্যা, শ্বশুর-শাশুড়ি আটক

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১:০১ পিএম

উপজেলা উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নে শারমিন আক্তার (২০) নামের এক গৃহবধূকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে নিহতের স্বামী মোশারফ হোসেন (২৮)। ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে নিহতের শ্বশুর-শাশুড়িকে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে রেহানিয়া গ্রাম থেকে নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত শারমিন আক্তার হাতিয়া পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের আবুল কাশেমের মেয়ে। আটককৃতরা হচ্ছেন রফিক ব্যাপারী (৫৭) ও তার স্ত্রী (৪০)।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৬/৭ মাস পূর্বে রেহানিয়া গ্রামের রফিক ব্যাপারীর ছেলে মোশারফ হোসেনের সাথে বিয়ে হয় শারমিন আক্তারের। সোমবার রাত ৮টার দিকে ঘরের ভিতর মোশারফ ও শারমিনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এর কিছুক্ষণ পর ঘর থেকে বের হয়ে যায় মোশারফ। পরে বাড়ীর লোকজন ঘর থেকে শারমিনের কোন সাড়া-শব্দ না পেয়ে ভিতরে গিয়ে শারমিনের মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে। নিহতের পিতা আবুল কাশেম অভিযোগ করে বলেন, বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন সময় মোশারফ শারমিনকে মারধর করত। রাতে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে মোশারফ শারমিনকে গলা টিপে হত্যা করে পালিয়ে যায়।
হাতিয়া থানার ওসি কামরুজ্জামান শিকদার জানান, খবর পেয়ে নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ভিকটিমকে তার স্বামী গলা টিপে হত্যা করেছে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী পলাতক রয়েছে। ওসি আরো জানান, ঘটনায় জড়িত থাকা সন্দেহে নিহতের শ্বশুর-শাশুড়িকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর