Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জরুরি সেবা ‘৯৯৯’-এর উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

শুধু একটি ফোনকলই মিলবে জরুরী সেবা। ৯৯৯ সম্বরে কল করলে প্রয়োজন অনুযায়ী সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে ছুটে যাবে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস কর্মী কিংবা অ্যাম্বুলেন্স। ভিকটিমকে উদ্ধার ও সহায়তা বা অপরাধীকে আটক করে পরিস্থিতি করবে নিরাপদ। বিনামূল্যে কল করে ফায়ার সার্ভিস বা অ্যাম্বুলেন্স কিংবা জরুরি প্রয়োজনে পুলিশি সহায়তা পাওয়া যাবে।
গতকাল রাজধানীর আব্দুল গণি রোডের পাশে ডিএমপির সেন্ট্রোল কমান্ড অ্যান্ড কন্ট্রোল সেন্টারে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় এ ‘জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল, পুলিশ মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক উপস্থিত ছিলেন।
পুলিশের ‘৯৯৯’ সেবা উদ্বোধনের পর জয় বলেন, আওয়ামী লীগ দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনায় দেশের উন্নয়নে বদ্ধ পরিকর। আওয়ামী লীগের সেবা শুধু আজকের নয়, ভবিষ্যতের। আমরা চাই সরকারের সব সেবা জনগণের দুয়ারে পৌঁছে দিতে।
প্রায় এক বছর আগে চালু হলেও জাতীয় এই কল সেন্টারে প্রাথমিকভাবে একইসঙ্গে ১২০টি কল রিসিভ করা হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ মহাপরিদর্শ।
কোনো অপরাধ সংঘটিত হতে দেখলে, প্রাণনাশের আশঙ্কা দেখা দিলে, কোনো হতাহতের ঘটনা চোখে পড়লে, কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে, অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলে ও অ্যাম্বুলেন্সের প্রয়োজন পড়লে ৯৯৯ ডায়াল করলেই সেবা মিলবে।
এ ৯৯৯ সেবা উদ্বোধনের পর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, জরুরি প্রয়োজনে একজন ব্যক্তির অনেক কিছু প্রয়োজন পড়ে। পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস কিংবা পথে-ঘাটে দুর্ঘটনা হতেই পারে। আধুনিক বিশ্বে সব দেশেই এ সেবাটি তাৎক্ষণিক পাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। আমরাও বিশ্বের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তথ্য-প্রযুক্তির যুগে পদার্পণ করছি। আমরা ৯৯৯ সেবা দেওয়ার জন্য প্রস্তত হয়েছি।
পুলিশের কমৃকর্তারা জানান, ৯৯৯ নম্বরে কল করলেই যে কেউ পেয়ে যাবেন পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও অ্যাম্বুলেন্স সেবা। ৯৯৯ নম্বরটিতে ফোন করতে গ্রাহকের কোনো টাকা খরচ হবে না, এটি সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে। এই কল সেন্টারের দায়িত্বে থাকা পুলিশের সদস্যরা ২৪ ঘণ্টা সেবা দেবেন।
চোখের সামনে কোনো অপরাধ সংগঠিত হলে, কোনো অগ্নিকান্ড ঘটলে অথবা জরুরি ভিত্তিতে অ্যাম্বুলেন্স প্রয়োজন হলে এই একটি নম্বরেই ফোন করলে পাওয়া যাবে সমাধান। আপনার কাছে পৌঁছে যাবে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য, ফায়ার সার্ভিসের অগ্নিনির্বাপক দল অথবা অ্যাম্বুলেন্স।



 

Show all comments
  • Sadia Chowdhury Mishu ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৩:৫৫ এএম says : 0
    জাস্ট এটারই অপেক্ষায় ছিলাম..অনেক দেশে এই সেবাটা আছে...যাই হোক দেরী হলেও ধন্যবাদ।আশা করছি ৯৯৯ শুধু সংখ্যায় সীমাবদ্ধ থাকবেনা..সাধারণ মানুষও উপকৃত হবে..
    Total Reply(0) Reply
  • Hossain Murad ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৩:৫৫ এএম says : 0
    অভিনন্দন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় স্যার কে এবং Zunaid Ahmed Palak স্যারকে , যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশের চমক দেখতে পাচ্ছি. এভাবেই এগোবে দেশ, সোনার বাংলাদেশ.
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Bhuiyan ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৩:৫৭ এএম says : 0
    Good initiative , Hope it succeeds Maintaining neutrality ,and equality and justice for all ,irrespective of political party affiliation .
    Total Reply(0) Reply
  • Kamruzzaman Tito ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৩:৫৭ এএম says : 0
    A great initiative so far for the nation to build up a digital Bangladesh..thnx
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Mohammad Nazmul ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৩:৫৯ এএম says : 0
    This way getting help from police....this Idea is good, but we need something like where we can complain and get help against Police too, when police does crime or put us in trouble.
    Total Reply(0) Reply
  • Rayhan ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৪:০০ এএম says : 0
    নি:সন্দেহে এটা একটা ভাল কাজ,,,কিন্তু এটা কতদিন ভাল ভাবে কাজ করে তাই দেখার বিষয়।।।
    Total Reply(0) Reply
  • Salahuddin Kader ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৪:০০ এএম says : 0
    Good Initiative. Good To See Such Steps For The Citizens
    Total Reply(0) Reply
  • Shahadat ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৪:০২ এএম says : 0
    অন্যান্য দেশে এই সার্ভিস অনেক আগেই চালু রয়েছে, যাক দেরিতে হলেও এই সেবা আমাদের দেশে চালু হল। ধন্যবাদ সরকার কে।
    Total Reply(0) Reply
  • Jiaur Rahman ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৪:০২ এএম says : 0
    অবশ্যই এটি একটি ভালো উদ্যোগ হবে যদি এখানে সব ধরনের মানুষের ফোন কে একই নজরে ও একই গুরুত্বের সাথে দেখা হয় ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জরুরি সেবা -৯৯৯-এর উদ্বোধন
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ