Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৩ বৈশাখ ১৪২৫, ০৯ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
শিরোনাম

নিষেধাজ্ঞা আরোপের কাজ চলছে

গণহত্যায় দায়ীদের চিহ্নিত করার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে : টিলারসন

| প্রকাশের সময় : ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর বর্বর নির্যাতনের জন্য দায়ীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কাজ এগিয়ে চলছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন। এরই মধ্যে দায়ী এক ব্যক্তিকে চিহ্নিত করা হয়েছে, সম্ভাব্য আরও কয়েকজনের দায়ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে তিনি। মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থানের কথা বলতে গিয়ে গত শুক্রবার জাতিসংঘে টিলারসন সাংবাদিকদের এসব জানান বলে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। রাখাইনে মিয়ানমার বাহিনীর নির্যাতনে চলতি বছর অগাস্ট থেকে ছয় লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা নিজ এলাকা ছেড়ে প্রতিবেশী দেশে পালিয়ে গেছে। রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমারের নির্যাতনকে নভেম্বরে ‘জাতিগত শুদ্ধি’ অভিযান বলে ঘোষণা দেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী; ওয়াশিংটন দায়ীদের ওপর ‘নিষেধাজ্ঞা’ আরোপের বিষয়টি চিন্তা করছে বলে সেসময় জানিয়েছিলেন তিনি। যার কারণে মিয়ানমার থেকে বিপুল দেশান্তরের ঘটনা ঘটেছে সেই অগাস্ট হামলার পর থেকে হওয়া সব ঘটনা ও পরিস্থিতি খতিয়ে দেখছি আমরা; যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার জন্য এরই মধ্যে দায়ী একজনকে চিহ্নিত করেছি, সম্ভাব্য অন্যদের বিষয়েও পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে, বলেন টিলারসন। মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ট্রাম্প প্রশাসন প্রথম পর্যায়ে সীমিত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছে। মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের ওপর চাপ বাড়ানোর লক্ষ্যে এ ব্যবস্থা নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, তবে এ নিষেধাজ্ঞায় সামরিক বাহিনীর শীর্ষ নেতৃত্বের অন্তর্ভুক্তির সম্ভাবনা নেই বলেও জানিয়েছেন তারা। মিয়ানমারের ওপর আরোপ করা যে ব্যাপক অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করেছিল সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রশাসন তা নতুন করে আরোপ করা যায় কি না, তাও যাচাই করে দেখা হচ্ছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মার্কিন কর্মকর্তা জানিয়েছেন। কিন্তু মিয়ানমারের সশস্ত্র বাহিনীকে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের দায়ে অভিযুক্তকারী আন্তর্জাতিক মানবাধিকার গোষ্ঠী এবং যুক্তরাষ্ট্রের অনেক আইনপ্রণেতা সীমিত আকারের এই নতুন নিষেধাজ্ঞায় সন্তুষ্ট হবেন না বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। রয়টার্স।

 


Show all comments
  • খাইরুল ইসলাম ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৩:৩৭ এএম says : 0
    এখনও নিষেধাজ্ঞা আরোপের কাজ চলছে..... সব মারা শেষ হলে তার পরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ হবে ?
    Total Reply(0) Reply
  • Sajjad Ben Zafar ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০৫ পিএম says : 0
    এখনতো ফিলিস্তিনিদের সাথে খেলছে। ভবিষ্যতে কার সাথে খেলবে ? আমি মনে করি রোহিঙ্গা ইস্যুতে আমেরিকাকে খেলতে না দিয়ে মুসলিম বিশ্বের উচিত নিজেরাই এর সমাধান করা।
    Total Reply(0) Reply
  • Ahtesham Ruhan ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০৬ পিএম says : 0
    American ra je Iraq, Afghanistan,siria, vietnam, Libia te massacre korse, tar bichar Kobe Hobe?
    Total Reply(0) Reply
  • Leon Sohagi ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৫:৩২ পিএম says : 0
    ওদেরকে দ্রুত মায়ানমার পাঠিয়ে দেয়া হোক
    Total Reply(0) Reply
  • ওয়াদুদ ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ৯:৪৯ পিএম says : 0
    মুস্লিম উম্মা এক হও
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর