Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৮, ৬ বৈশাখ ১৪২৫, ০২ শাবান ১৪৩৯ হিজরী

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

রাস্তার পাশে ময়লা ফেলা
মাওনার গড়গড়িয়া মাস্টারবাড়ির ঢাকা-ময়মনসিংহ হাইওয়ে রাস্তার পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া খাল ও হাইওয়ের পাশেই আরেকটি ময়লার ভাগাড় ইচ্ছা করে গড়ে তোলা হচ্ছে! রাস্তার পাশে বৃক্ষ লাগানো, ঘাস চাষ করার কথা; সেখানে কিছু মানুষের অমনোযোগিতা ও অব্যবস্থাপনার কারণে রাস্তার সবচেয়ে সুন্দর অংশটিই এখন খারাপ জায়গা! ময়লা ফেলার জন্য নির্দিষ্ট জায়গা থাকবে। সেখানে আলাদা আলাদা করে ময়লা থেকে সার তৈরি হবে, ইলেকট্রিক ময়লাগুলো আলাদাভাবে ব্যবস্থাপনায় আনতে হবে এবং দূষক ময়লাগুলো চিহ্নিত করে তা বিলুপ্ত করার ব্যবস্থা করতে হবে। এখানে ভ্যানে করে খালের পানির মধ্যে সরাসরি ময়লা ফেলে হচ্ছে। খালের দূষিত পানির পাশেই চাষ হচ্ছে সবজি, ধান এবং অন্যান্য ফসল। অনেক সময় এই দূষিত পানিই সবজিতে দেওয়া হচ্ছে। কৃষকরা জানেই না দূষিত পানি ফসলে দিলে কী হয়। একদিকে ময়লা ফেলে দূষণ করা হচ্ছে বায়ুর এবং ময়লা পানি আবার খাইয়ে দেওয়া হচ্ছে ফসলের মাধ্যমে! আশা করছি, প্রশাসনও এ ব্যাপারে বড় ভূমিকা রাখবে।
সাঈদ চৌধুরী
শ্রীপুর, গাজীপুর

 

প্রশ্ন ফাঁস রোধে উদ্যোগ নিন
কিছু প্রভাবশালী অসাধু চক্র প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত। তারা অসৎ উপায়ে বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে আর্থিক লোভে পরীক্ষার আগের দিন ইন্টারনেটে প্রশ্ন ছড়িয়ে দেয়। এই চক্রের কোনো কোনো সদস্য গ্রাহকদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা লুটে নেয়। এভাবে প্রশ্ন ফাঁসের মাধ্যমে শিক্ষার আসল মান বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। যারা লেখাপড়া ঠিকমতো করে না, তারা পরীক্ষার আগমুহূর্তে প্রশ্ন পেয়ে ভালো রেজাল্ট করছে। ভালো ছাত্ররা তাদের সঠিক মান থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। চাকরির নিয়োগ পরীক্ষার দিকে লক্ষ্য করলেও ঠিক একই রকম চিত্র। এভাবে চলতে থাকলে রাষ্ট্রব্যবস্থায় অযোগ্য জনবল সৃষ্টি হবে। এই প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে কারা জড়িত তাদের খুঁজে বের করতে হবে। এর সঙ্গে সংশিল্গষ্ট সবাইকে আইনের আওতায় এনে যথাযথ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।
তাইফুর রহমান মুন্না
কাছিকাটা, মোরেলগঞ্জ, বাগেরহাট

 

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।