Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮, ৯ কার্তিক ১৪২৫, ১৩ সফর ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

পাকিস্তানের মাটিতে একতরফা সামরিক পদক্ষেপের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক

সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তান আইএসপিআর’র প্রধান মেজর জেনারেল আসিফ

ইনকিলাব ডেস্ক: | প্রকাশের সময় : ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

পাকিস্তান আইএসপিআর’র প্রধান মেজর জেনারেল আসিফ গফুর পাকিস্তানের মাটিতে একতরফা সামরিক পদক্ষেপ গ্রহণের বিরুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের উচিত সার্বিক বিষয় খতিয়ে দেখা। একতরফা কোন কিছুই ইতিবাচক হবে না। প্রতিবেশী আফগানিস্তানে মারাত্মক হামলার পরিকল্পনাকারী হাক্কানি নেটওয়ার্কের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে প্রত্যাখ্যান করেন তিনি। সন্ত্রাসীদের সীমান্ত পারাপার বন্ধের জন্য পাকিস্তানের নেয়া পদক্ষেপগুলো সম্পর্কে গফুর বলেন : ‘আমরা আফগান সীমান্তে কার্যকর সীমান্ত ব্যবস্থাপনার জন্য দুর্গ ও পোস্ট নির্মাণ করেছি। আমাদের কাছ থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও আফগানিস্তান এরচেয়ে বেশি কি চায়? আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের উচিত ভারতের ভূমিকা খতিয়ে দেখাÑ এ কথা উল্লেখ করে আইএসপিআর প্রধান বলেন, আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠা ব্যাপারে পাকিস্তানের চেয়ে বেশি আগ্রহ আর কোন দেশের নেই। আমরা জানি যে সেখানে (আফগানিস্তানে) শান্তির মানে হলো পাকিস্তানে শান্তি। তিনি বলেন, কোন চাপাচাপিতে কাজ হবে না। এটা শুধু আস্থা-ভিত্তিক সহযোগিতা। এটাই শুধু এই অঞ্চলে টেকসই শান্তি বয়ে আনতে পারে। তিনি জিজ্ঞেস করেন, আমরা কেমন বন্ধু যে যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তানকে চোখে চোখে রাখবে? তিনি স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেন যে, পাকিস্তান তার বন্ধুদের সঙ্গে কাজ করতে রাজি। কিন্তু নিজের মর্যাদার সঙ্গে আপোস করতে রাজি নয়। তিনি বলেন, এবার পাকিস্তানের জন্য কিছু করতে যুক্তরাষ্ট্র ও আফগানিস্তানের সামনে সময় এসেছে বলে জানিয়েছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। গত বৃহস্পতিবার জাতীয় ও আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তান আন্তঃবাহিনী গণসংযোগ (আইএসপিআর)-এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আসিফ গফুর এই মন্তব্য করেন। পাকিস্তানের মাটিতে আশ্রয় নেয়া সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আরো কিছু করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে যে চাপ দেয়া হচ্ছে সে বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে গফুর বলেন: পাকিস্তানে কোন নিষিদ্ধ সংগঠনের কোন সংঘটিত অবকাঠামো নেই। আমরা পাকিস্তানের মাটিতে দু’বার চাপিয়ে দেয়া ও আমদানিকৃত যুদ্ধ করেছি। এখন আমরা আর কারো জন্য বাড়তি কিছু করতে পারবোনা। তিনি বলেন, আমরা এখন যা করছি এবং আগামীতে যা করবো তা একান্তভাবে পাকিস্তানীদের জন্য। যুক্তরাষ্ট্র যে সাহায্য দিয়েছে তা আল-কায়দার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তাদেরকে সহায়তা প্রদানের জন্য। আমরা যদি যুক্তরাষ্ট্র ও আফগানিস্তানকে সাহায্য না করতাম তাহলে তারা কখনোই আল-কায়দাকে পরাজিত করতে পারতো না। জেনারেল গফুর আরো বলেন, পাকিস্তানে এখন কোন সন্ত্রাসী গ্রæপ অবশিষ্ট নেই। এই অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য আমরা অনেকদূর অগ্রসর হয়েছি। পাকিস্তান সীমান্ত দিয়ে অনুপ্রবেশ সম্পর্কে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সা¤প্রতিক দাবি সম্পর্কে জেনারেল গফুর বলেন : ভারত স¤প্রতি দাবি করেছে যে তাদের ১০ জন সৈন্য পাকিস্তানে ঢুকে পাকিস্তানী সেনাদের হত্যা করেছে। কিন্তু এগুলো জনগণকে শান্ত রাখতে মিথ্যা প্রপাগাÐা ছাড়া কিছুই নয়। কাশ্মিরি জনগণের রাজনৈতিক সংগ্রাম মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়ে তার এসব কথা বলছে। ‘আমরা আমাদেরকে এ ধরনের অপেশাদার কাজে জড়াতে পারি না’, বলেন আইএসপিআর ডিজি। ভারতের প্রপাগাÐায় কান না দেয়ার জন্য তিনি মিডিয়াকে ধন্যবাদ জানান। ডন, এসএএম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ