Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

ফেনী ও মোহনগঞ্জে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২

ইনকিলাব ডেস্ক: | প্রকাশের সময় : ২ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

ফেনীতে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী ও নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক ডাকাত নিহত হয়। আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রতিবেদন-
ফেনী জেলা সংবাদদাতা জানান, ফেনীতে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন রাজু (২৫) নিহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বেশ কয়েকটি অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করেছে। গত রোববার মধ্যরাতে ফেনীর ধর্মপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ফেনী র‌্যাব ক্যাম্পের অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লিডার শাফায়াত জামিল ফাহিম জানায়, ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুর এলাকায় হাফেজিয়া মাদরাসার পাশে একটি বাড়িতে মাদক ব্যবসায়ীরা অবস্থান নিয়েছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব অভিযান চালায়। মাদক ব্যাবসায়ীরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছুড়লে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলে আনোয়ার হোসেন রাজু গুলিবিদ্ধ হয়। র‌্যাব রাজুকে উদ্ধার করে ফেনী সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।
র‌্যাব ঘটনাস্থল থেকে দুটি বিদেশী পিস্তল, দুটি ওয়ান শুটারগান, একটি দেশীয় তৈরী বন্দুক, সাত রাউন্ড গুলি, ৫ টি খালি খোসা উদ্ধার করেছে। নিহতের বিরুদ্ধে মাদক, ধর্ষণ, ডাকাতি ও চোরাচালানসহ অন্তত ১০টি মামলা রয়েছে। নিহত আনোয়ার স্থানীয় জাহাঙ্গীরের ছেলে।
নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা জানান, নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার নয়াপাড়া হাওরে গতকাল সোমবার ভোর রাতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তি ডাকাত রিপুল বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, নিহত লুৎফর রহমান ওরফে রিপুল ডাকাত (৪০) নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার গাগলাজুর ইউনিয়নের চাঁনপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মোতালেবের ছেলে। তার বিরুদ্ধে ডাকাতিসহ বিভিন্ন ধরনের মোট ১৯টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে ২টি মামলায় তার সাজা হয়েছে।
পুলিশ দাবি, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত রোববার বিকেলে গাগলাজুর বাজার থেকে লুৎফর রহমান রিপুলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তাকে নিয়ে গভীর রাতে মোহনগঞ্জের নয়াপাড়া এলাকার একটি হাওরে অস্ত্র উদ্ধার করতে গেলে তার সহযোগীরা তাদেরকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। এ সময় পুলিশও আত্মরক্ষার্তে পাল্টা গুলি ছুড়ে। গোলাগুলির মাঝে পড়ে বিপুল গুলিবিদ্ধ হয়। তাকে আশঙ্কা জনক অবস্থায় সকালে মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মোহনগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আনসারী জিন্নাত আলীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বন্দুক যুদ্ধে ডাকাত রিপুল নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করে বরেন, বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের এস আই আফজাল হোসেন, এস আই জহিরুল ইসলাম ও কনস্টেবল তোফাজ্জল আহত হয়েছে। তাদেরকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ