Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮, ৯ কার্তিক ১৪২৫, ১৩ সফর ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

বিশ্বে গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জল করছে সিলেটিরা মেয়র আরিফ

সিসিকে টাওয়ার হ্যামলেটস স্পিকার সাবিনার সংবর্ধনা

| প্রকাশের সময় : ৪ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

 সিলেট অফিস : যুক্তরাজ্যের লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটসের স্পিকার কাউন্সিলার সাবিনা আক্তারকে সংবর্ধনা দিয়েছে সিলেট সিটি করপোরেশন। গত মঙ্গলবার রাতে নগর ভবনে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। সিসিকের কর্মকর্তা চন্দন দাসের সঞ্চালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের শুরুতে লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটসের স্পিকার কাউন্সিলার সাবিনা আক্তারকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান সিসিকের মেয়র, কাউন্সিলর ও কর্মকর্তাবৃন্দ। পরে সিসিক মেয়র আরিফ তার হাতে একটি সম্মাননা ক্রেস্ট তুলেদেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের সভাপতি সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশী সিলেটীরা লন্ডনসহ বিশ্বের অনেক দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করে সিলেট তথা দেশের ভাবমুর্তি উজ্জল করছেন সাবিনার মতো যোগ্যতা সম্পূর্ণ মানুষ। তাদের পাঠানো রেমিটেন্সের উপর ভর করে দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাড়ছে দিন দিন। তিনি বলেন, “প্রবাসীরা তাদের অর্জিত অর্থের একটা অংশ ব্যাংকের মাধ্যমে পরিবারের কাছে পাঠায়। এই অর্থ কেবল তাদের পরিবারের প্রয়োজনই মেটায় না, তাদের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধি করে এবং নানা ক্ষেত্রে বিনিয়োগ হয়ে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে”। সিলেট নগরীকে প্রবাসে বসবাসরত নতুন প্রজন্মদের পছন্দমত একটি উন্নত, নিরাপদ ও আধুনিক নগর গড়ে তোলতে প্রবাসীদের এগিয়ে আসার আহবান জানান সিসিক মেয়র আরিফ। অনুষ্ঠানের সংবর্ধিত অতিথি সাবিনা আক্তার তার অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, ইউরোপ সিলেট তথা দেশের প্রতিনিধিত্ব করা গর্বের বিষয়। স্পিকার কাউন্সিলার নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে লন্ডনে বাংলাদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতিকে তুলে ধরতে প্রবাসীদের নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। বাংলা ভাষা শিক্ষার জন্য টাওয়ার হ্যামলেটস থেকে আর্থিক সহায়তা করা হচ্ছে। এখন সেখানের বাসা-বাড়ি দোকান-পাঠ ও শপিংমলগুলোতে ইংরেজী’র পাশাপাশি বাংলায় লেখা শুভা পাচ্ছে উল্লেখ করে সাবিনা আক্তার বলেন, লন্ডনে বেড়ে উঠা নতুন প্রজন্মদের স্বদেশমূখী করতে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। নগরীর রাস্তা-ঘাট প্রশস্থকরণ, জানযট নিরসন, শিক্ষা,স্বাস্থ্যসহ একটি পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন সিসিক মেয়র এ জন্য তিনি প্রশংসার দাবি রাখেন। সাবিনা আক্তার বলেন, সিলেট নগরী এখন পরিধি বৃদ্ধি পেয়ে একটি অত্যাধুনিক নগরীতে রূপ নিচ্ছে। যার ফলে আগামীতে লন্ডনসহ প্রবাসে বেড়ে উঠা নতুন প্রজন্মরা স্বদেশমূখী হয়ে দেশের অর্থনীতিকে আরো বেগবান করবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন সাবিনা আক্তার। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, ইউকে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি মুহিবুর রহমান মুহিব, সাংবাদিক ও কলামিষ্ট নজরুল ইসলাম বাসন, সাপ্তাহিক জনমত পত্রিকার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিরুল ইসলাম চৌধুরী, সিসকের প্রধান নির্বাহী এনামুল হাবিব, কাউন্সিলর সৈয়দ মিছবাহ উদ্দিন, শান্তনু দত্ত শন্তু, মহিলা কাউন্সিলর শাহানারা বেগম। এসময় উপস্থিত ছিলেন, কাউন্সিলর দিনার খান হাসু, সৈয়দ তৌফিকুল হাদী, সিকন্দর আলী, মো. আব্দুর রকিব তুহিন, আব্দুল মুহিত জাবেদ, রাজিক মিয়া, সিসিকের সচিব বদরুল হক, প্রধান প্রকৌশরী নুর আজিজুর রহমান, নির্বাহী প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার মো. আব্দুল আজিজ, নির্বাহী প্রকৌশলী আলী আকবর, শামছুল হক, প্রশাসনিক কর্মকর্তা হানিফুর রহমান। এছাড়া অনুষ্ঠানে লন্ডন বাংলা প্রসক্লাবের সহ সভাপতি মাহবুবুর রহমান, আরডিএফ ম্যাটারনিটি ক্লিনিকের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক জুনায়েদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।