Inqilab Logo

শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১৫ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

আমদানিকৃত ২০ কোচ পরীক্ষার জন্য সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায়

প্রকাশের সময় : ২৫ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

সৈয়দপুর (নীলফামারী) উপজেলা সংবাদদাতা : লাল-সবুজ পতাকার রংয়ে ভারত থেকে আমদানি করা ২০টি যাত্রীবাহী রেল কোচের প্রথম চালান গত বুধবার বিকেলে সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশনের ইয়ার্ডে পৌঁছেছে। কোচগুলো সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর রেলের ট্রাফিক বিভাগে হস্তান্তর করা হবে। পরে এসব বিভিন্ন রুটে চলাচল করবে বলে জানিয়েছে রেলওয়ে বিভাগ। রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক (ডিএস) নূর আহাম্মাদ হোসেন, ওয়ার্কস ম্যানেজার কুদরত-ই-খুদা এসব কোচ বুঝে নেন। এর আগে গত ২২ মার্চ ভারতের আমদানি করা ১২০টি কোচের মধ্যে ২০টি কোচ দর্শনায় হস্তান্তর করেন ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। আমদানি করা ২০টি কোচের মধ্যে তাপানুকুল (এসি) বাথ ৩টি, এসি চেয়ার ৬টি, শোভন চেয়ার ৮টি ও পাওয়ার কার রয়েছে ৩টি। রেলওয়ে কারখানার ১২নং গেট দিয়ে এসব ভেতরে নেওয়া হয়। ভারত থেকে বিশেষজ্ঞরা এসে এসব কোচ পরীক্ষা-নিরীক্ষার শেষে রেলওয়ে বিভাগে হস্তান্তর করা হবে। এসব আমদানি কোচ সিল্ক সিটি, ধূমকেতু, পদ্মা, চিত্রা ও সুন্দরবন আন্তঃনগর ট্রেনে সংযোহনের সম্ভাবনা রয়েছে। সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশনের রিকশা চালক গোলজার হোসেন (৬০) জানান, ভারত থেকে আমদানি করা কোচ দিয়ে এই অঞ্চলের ট্রেনগুলো চালানোর দাবি জানান। রেলওয়ে শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোখছেদুল মোমিন বলেন, এসব কোচ নীলসাগর, একতা ও দ্রুযানে সংযোজন করে ট্রেন চালানোর দাবি জানান। এতে করে যাত্রীদের দুর্ভোগ অনেকাংশে কমে আসবে। দেশের বুহত্তম সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্ত্বাধায়ক (ডিএস) নূর আহাম্মদ হোসেনর সঙ্গে কথা হয়। তিনি জানান, কোচগুলো আমরা গস্খহণ করেছি। এসব কারখানায় পর্যবেক্ষণ করে সাটিফিকেট প্রদান করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আমদানিকৃত ২০ কোচ পরীক্ষার জন্য সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায়
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ