Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮, ১০ মাঘ ১৪২৪, ৫ জমাদিউস আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী

বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য শতভাগ মালিকানা : কাতার

| প্রকাশের সময় : ৮ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম


ইনকিলাব ডেস্ক : বিদেশি বিনিয়োগ সংক্রান্ত নতুন একটি আইন অনুমোদন করেছে কাতার। এ আইন অনুযায়ী অর্থনীতির অধিকাংশ খাতে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে শতভাগ মালিকানার সুযোগ পাবেন বিদেশিরা। আগে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা সর্বোচ্চ ৪৯ শতাংশ পর্যন্ত মালিকানা পেতেন। এএফপি’র বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে মিডল ইস্ট মনিটর। জ্বালানি খাতের বাইরেও অর্থনীতিতে বৈচিত্র্য আনতে আগ্রহী দোহা। আর সে লক্ষ্যে বিভিন্ন খাতে বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন কাতারের অর্থ ও বাণিজ্যমন্ত্রী শেখ আহমেদ বিন জসিম। তিনি বলেছেন, অর্থনৈতিক উন্নয়নকে আরও গতিশীল করতেই এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এর ফলে বিশ্ব অর্থনৈতিক সূচকে কাতারের অবস্থান আরও সংহত হবে। আবাসনের মতো সুনির্দিষ্ট কিছু খাতে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য শতভাগ মালিকানার বিষয়টি কার্যকর হবে না। সৌদি জোটের কাতারবিরোধী অবরোধের পর থেকেই অর্থনীতিকে মজবুত ভিত্তির ওপর টিকিয়ে রাখতে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে দোহা। এ নিষেধাজ্ঞায় দেশটির অর্থনীতি ভেঙে পড়ার আশঙ্কা থাকলেও বাস্তবে তা হয়নি। বিশ্বের শীর্ষ তরল প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) রফতানিকারক দেশ কাতার। দেশটির মাথাপিছু আয় ১ লাখ ২৭ হাজার ৬৬০ মার্কিন ডলার। এটি কাতারকে দুনিয়ার অন্যতম ধনী দেশে পরিণত করেছে। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)-এর মতে, দেশটির ক্রয়ক্ষমতা বিশ্বের যে কোনও দেশের তুলনায় বেশি। যে কোনও ধরনের নিষেধাজ্ঞা মোকাবিলায় অর্থ জোগান দেওয়ার সামর্থ্য আছে কাতারের। সউদী জোটের নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর দেশটি নতুন নৌপথের ব্যবস্থা করেছে; যা সউদী আরবের সীমান্তের কাছ দিয়ে গেছে। কয়েক হাজার কোটি ডলার রাষ্ট্রীয় অর্থ স্থানীয় ব্যাংকগুলোকে দেওয়া হয়েছে যাতে করে লেনদেন অব্যাহত রাখা সম্ভব হয়। পশ্চিমা বড় বড় জ্বালানি কোম্পানিগুলোর মনোযোগ কেড়েছে ৩০ শতাংশ এলএনজি উৎপাদনের ঘোষণা দিয়ে। কাতারের এসব পদক্ষেপের সাফল্য দেখিয়ে দিয়েছে কয়েক বছরও যদি সউদী জোটের এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকে তাতেও দেশটি বড় ধরনের কোনও সমস্যায় পড়বে না। কাতারের একজন শীর্ষস্থানীয় ব্যাংকার বলেন, আমরা যতক্ষণ গ্যাস বিক্রি করতে পারবো ততক্ষণ নির্বিঘেœ টিকে থাকতে পারবো। মিডল ইস্ট মনিটর, রয়টার্স।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর