Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮, ১০ মাঘ ১৪২৪, ৫ জমাদিউস আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী

মুফতী মুহাম্মাদ ওয়াক্কাসকে চূড়ান্তরূপে দল থেকে বহিষ্কার

দুই জনকে কারণ দর্শানোর সিদ্ধান্ত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সহ-সভাপতি মুফতী মোহাম্মাদ ওয়াক্কাসকে দল থেকে চূড়ান্তরূপে বহিস্কার করা হয়েছে। গত ৯/১২/১৭ ইং তারিখে অনুষ্ঠিত কার্যনির্বাহী পরিষদের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত মোতাবেক তার কার্যনির্বাহী সদস্যপদ স্থগিত করত: কারণ দর্শানোর নোটিশের কোন জবাব তিনি গতকাল পর্যন্ত দেননি। তাছাড়া সংগঠনবিরোধী যাবতীয় অপতৎপরতা বন্ধ করার শর্তে সর্বশেষ গত ৭/০১/১৮ইং তারিখে সিলেটে অনুষ্ঠিত বৈঠকে দলের সভাপতি শায়েখ আব্দুল মু’মীন সাহেব তাকে দলে ফেরত আনার সিদ্ধান্ত দেওয়ার পরেও তিনি উক্ত অপতৎপরতা গতকাল পর্যন্ত বন্ধ করেননি, দলের নামে আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে অবৈধ ভাবে কনভেনশন করা থেকে বিরতও হননি। তাই গতকাল দলীয় কার্যলয়ে অনুষ্ঠিত দলের কার্যনির্বাহী পরিষদের (মজলিসে আমেলার) জরুরী সভায় সর্বসম্মত ভাবে দল তার বিরুদ্ধে উলি­খিত সিদ্ধান্তগ্রহণ করে। তৎসঙ্গে দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের দায়ে সহ-সভাপতি মাওলানা মনসুরুল হাসান রায়পুরী ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শেখ মুজীবুর রহমানের সদস্যপদ স্থগিত করত: তাদেরকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

মজলিসে আমেলার বৈঠক শেষে দলের উদ্যোগে তাৎক্ষণিকভাবে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে বৈঠকে নেওয়া উক্ত সিদ্ধান্তের কথা জানান দলের মহাসচিব আল­ামা নূর হোছাইন কাসেমী।
প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি মাওলানা জহিরুল হক ভুইঁয়া, সহ সভাপতি মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীব, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা ওবায়দুল­াহ ফারুক, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, সহকারী মহাসচিব মাওলানা আব্দুল বাসির, অর্থ সম্পাদক মাওলানা মুনীর হোসাইন কাসেমী, সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা ফয়জুল হাসান খাদিমানী, নির্বাহী সদস্য মাওলানা খলীলুর রহমান, মাওলানা শিব্বির আহমদ ও ইউ কে জমিয়ত নেতা মাওলানা হোসাইন আহমাদ প্রমূখ। বর্তমান প্রেক্ষিতে শতবর্ষের ঐতিহাসিক দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম দেশ স্বাধীনের ৪৩ বছর পর কঠিন সংকটকাল অতিক্রম করছে। সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন দলীয় মহাসচিব আল­ামা কাসেমী। তিনি কোন গুজবে কান না দিয়ে এবং বিভ্রান্ত না হয়ে দলীয় নেতাকর্মীদেরকে শৃংখলা বজায় রেখে সাংগঠনিক কাজ চালিয়ে যাওয়ার আহŸান জানান।

 

 


Show all comments
  • আনোয়ার হোসেন ১১ জানুয়ারি, ২০১৮, ৪:৩০ এএম says : 0
    বহিষ্কারটা কী সঠিক সমাধান ?
    Total Reply(0) Reply
  • আব্দুল্লাহ ইদ্রিস ১৫ জানুয়ারি, ২০১৮, ৬:৪০ এএম says : 1
    বহিষ্কার করার কোনো প্রয়োজন ছিল না। কেউ কাজ না করলে না বহিস্কার কিসের অটোমেটিক বাদ পড়বে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।