Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৮, ০৯ মাঘ ১৪২৪, ৪ জমাদিউস আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী

আদমদীঘিতে এবার আলু ও সরিষা চাষে বিপ্লব ঘটেছে

নায্য মূল্য না পাওয়ায় চাষি হতাশ

| প্রকাশের সময় : ১৩ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

 

আদমদীঘি (বগুড়া) উপজেলা সংবাদদাতা : শস্যভান্ডার নামে পরিচিত বগুড়ার আদমদীঘিতে এবার আলু ও সরিষা চাষে বিপ্লব ঘটেছে। এবার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক ক্ষতি পুষিয়ে নিতে ব্যাপক সারা ফেলেছে আলু ও সরিষা চাষে। চারদিকে শুধু আলু ও সরিষা গাছের সবুজের সমারোহ । এবার চলতি রোপা আমন মৌসুমে বন্যার পানিতে ডুবে নষ্ট হওয়া জমিতে আগাম রবিশস্য ফসলের দিকে ঝুঁকে পড়েছে এলাকার কৃষক। অন্যান্য বছরের চেয়ে এবার কৃষক ব্যাপক আলু ও সরিষা চাষ করেছে। সময়মত সেচ সার ওষুধ প্রয়োগ করাসহ আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় আলু ও সরিষার বাম্পার ফলনের আশায় বুক বেধেছে এলাকার কৃষক। ইতোমধ্যে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় আগাম রোপন করা আলু তুলে ভালো ফলন পেলেও বাজারে অন্যান্য সবজির চেয়ে নতুন আলুর দাম কম হওয়ায় কৃষক ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় তাদের লোকসান গুনতে হচ্ছে। এবার উচ্চ ফলনশীল আলু উৎপাদন করার পরও ভালো দাম পাচ্ছেনা কৃষক। এবার এ উপজেলায় ২৫ হাজার হেক্টর জমিতে আলুচাষ হয়েছে । আর স্বল্প সময়ে লাভজনক ফসল সরিষা চাষ করা হচ্ছে ৩৫ শ’ হেক্টর জমিতে। এর মধ্যে সান্তাহার পৌরসভায় ৫০ হেক্টর জমিতে আলু ১শ হেক্টরে জমিতে সরিষা, আদমদীঘি সদর ইউনিয়নে ৫৫০ হেক্টরে আলু ৭৫০ হেক্টরে সরিষা, নশরৎ পুর ইউনিয়নে ৩ শ’ হেক্টরে আলু ৫৫০ হেক্টরে সরিষা, সান্তাহার ইউনিয়নে ১শ ৫০ হেক্টরে আলু ৩ শ’ ৫০ হেক্টরে সরিষা, কুন্দুগ্রাম ইউনিয়নে ৩ শ’ ৫০ হেক্টরে আলু ৫৫০ হেক্টরে সরিষা, চাপাপুর ইউনিয়নে ৩৫০ হেক্টরে আলু ৪ শ’ হেক্টরে সরিষা, ছাতিয়ান গ্রাম ইউনিয়নে ৮৫০ হেক্টরে আলু ৭৫০ হেক্টরে সরিষা চাষ হয়েছে। গতবছর এ উপজেলায় আলুচাষ হয়েছিল মাত্র ৫ শ’ হেক্টরে, আর সরিষা চাষ হয়েছিল ১৮ শ’ হেক্টরে। চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় আলু চাষে বিপ্লব ঘটেছে। বর্তমানে বাজারে নতুন আলুর দাম কম দেখে কৃষক ও বর্গা চাষীদের মধ্যে হতাশা দেখা দিয়েছে। অন্যান্য বছর এ সময় নতুন আলুর কেজি ছিল ৫০ থেকে ৬০ টাকা । বর্তমানে নতুন আলু বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১৫ থেকে ২০ টাকা । ফলে আলু চাষ করে এবার লোকসান হতে পারে বলে স্থানীয় কৃষকরা মনে করছেন।

 

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।