Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ সফর ১৪৪০ হিজরী

পুল মাতালেন বগুড়ার দুই জলকন্যা

| প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম


স্পোর্টস রিপোর্টার : বাংলাদেশ যুব গেমসের বিভাগীয় পর্যায়ের শেষ দিন গতকাল রাজশাহী বিভাগের সাঁতারে চাপাইনবাবগঞ্জের পুল মাতিয়েছেন বগুড়ার জলকন্যা রোকেয়া আক্তার, রাশেদা খাতুন ও পাবনার সজীব হোসেন। ৭টির মধ্যে ৩টি করে ইভেন্টেই প্রথম হন এ দুই তরুনী ও এক তরুন। তবে ৫০ মিটার ফ্রি স্টাইলে চাপাইনবাবগঞ্জের পিনকি পর্না নিয়োগী প্রথমস্থান পান। ১০০ ও ৫০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোক এবং ১০০ মিটার ফ্রি স্টাইলে বগুড়ার রোকেয়া প্রথম হন। আর রাশেদা প্রথম হন ২০০ মিটার ফ্রি স্টাইল, ৫০ ও ১০০ মিটার ব্যাক স্ট্রোকে। তরুন বিভাগে ৫০ মিটার ফ্রি স্টাইল, ব্যাক স্ট্রোক ও ব্রেস্ট স্ট্রোকে পাবনার সজীব প্রথম হয়ে সবার নজর কাড়েন। এছাড়া তরুনদের ১০০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোকে চাপাইয়ের খালিদ রবিউল আউয়াল, ১০০ ও ২০০ মিটার ফ্রি স্টাইলে বগুড়ার রেজাউল ইসলাম রিয়াদ এবং ১০০ মিটার ব্যাক স্ট্রোকে বগুড়ার নয়ন ইসলাম প্রথম হন।
বরিশাল বিভাগের ফুটবলে সেরার খেতাব জিতেছে বরগুনা জেলা দল। কাল বরগুনা জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে স্বাগতিক দল টাইব্রেকারে ৪-৩ গোলে বরিশাল জেলাকে হারিয়ে সেরা হয়। নির্ধারিত সময়ের খেলা গোলশূণ্য ড্র হলে ম্যাচের ভাগ্য গড়ায় টাইব্রেকারে।
বরিশাল বিভাগের টেবিল টেনিস পিরোজপুরে অনুষ্ঠিত হয়। এই ডিসিপ্লিনের তরুন এককে প্রথম হন পিরোজপুরের পার্থ বিশ^াস। তরুন দ্বৈত ইভেন্টে প্রথম হয় পিরোজপুরের পার্থ বিশ^াস ও দিব্যেন্দু বিশ^াস প্রিন্স জুটি। তরুনী বিভাগে প্রথম হন পটুয়াখালির মার্জানা আক্তার। বালিকা দ্বৈতে সেরা হয় পটুয়াখালীর মার্জানা আক্তার ও পারভীন আক্তার জুটি। বালক অনুর্ধ-১৭ দলগত ইভেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয় পিরোজপুর। বরিশালের দাবায় পিরোজপুর ভেন্যুতে বালক অনুর্ধ-১৩ বিভাগে প্রথম হন বরগুনার মেহেদী হাসান। বালিকা অনুর্ধ-১৩ বিভাগে প্রথম হন ঝালকাঠির বুশরা। বালক অনুর্ধ-১৭ বিভাগে প্রথম হন পিরোজপুরের ফাহাদ রহমান। এবং বালিকা অনুর্ধ-১৭ বিভাগে সেরা হন ঝালকাঠির রিমি খাতুন।
সিলেট বিভাগের ব্যাডমিন্টনে তরুন এককে স্বাগতিক সিলেটের আব্দুল হামিদ লোকমান প্রথম হন। বালিকাদের এই ইভেন্টে মৌলভীবাজারের জেরিন প্রথমস্থান পান। তরুন দ্বৈতে সিলেটের মাঙ্গাল সিংহ-গৌরব সিংহ জুটি প্রথম ও তরুণীদের এই ইভেন্টে মৌলভীবাজারের জেরিন-লতিকা জুটি প্রথম হয়।
চট্টগ্রাম বিভাগে তরুনদের হ্যান্ডবলের ফাইনালে চট্টগ্রাম ২৭-১৮ গোলে বান্দরবান জেলাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। চট্টগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় এই প্রতিযোগিতা। এই বিভাগের ভলিবলে (তরুণ) চট্টগ্রাম ৩-১ সেটে কুমিল্লা জেলাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। আট দলের অংশগ্রহনে চট্টগ্রামের সিআরসিস্থ শিরিষ তলা ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হয় ভলিবল খেলা।
ময়মনসিংহ বিভাগে কাল বিভাগীয় পর্যায়ের শেষ দিন বক্সিংয়ের বিভিন্ন ওজনশ্রেণীর খেলা হয়। শেরপুর শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্টেডিয়ামে এই বিভাগের বক্সিংঅনুষ্ঠিত হয়। ময়মনসিংহ বিভাগের দাবা ডিসিপ্লিনের অনূর্ধ্ব-১৩ বালিকা বিভাগে শেরপুরের প্রিয়ন্তি সাহা পিউ, অনূর্ধ্ব-১৩ বালক বিভাগে শেরপুরের শাহ সুলতান প্রথম, তরুণীদের অনূর্ধ্ব-১৭ ইভেন্টে শেরপুরের নিরুপমা সাহা আলী ও এই ইভেন্টে তরুণ বিভাগে শেরপুরের জেএম শাহরিয়ার ইসলাম সৌখিন সেরা হন। এছাড়া খুলনা বিভাগের সাঁতারে কুষ্টিয়া স্টেডিয়ামের সুইমিংপুলে তরুণ ও তরুনী গ্রæপে বিভাগে মোট ১৪টি ইভেন্টে সাঁতার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।
খুলনা বিভাগের টেবিল টেনিস বাগেরহাটে অনুষ্ঠিত হয়। তরুণদের দলগতে সাতক্ষীরাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় নড়াইল জেলা। তরুণী এককের ফাইনালে নড়াইলের মৌ একই জেলার তুষিকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হন। তরুণী দ্বৈতের ফাইনালে নড়াইলের মৌ-তুষি জুটি মাগুরার অনিতা-পরমা জুটিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। তরুণীদের দলগত ইভেন্টেও নড়াইল চ্যাম্পিয়ন হয় মাগুরাকে হারিয়ে।
রংপুর বিভাগে অ্যাথলেটিক্সে দ্রæততম মানব-মানবী হন কুড়িগ্রামের সাঈদ আলম ও একই জেলার নেহা রানী সরকার। নেহা ১০০ মিটারের পাশাপাশি মেয়েদের ২০০ মিটার স্প্রিন্টেও সেরা হন। এই বিভাগের ভলিবলে নীলফামারী, গাইবান্ধা, পঞ্চগড় ও কুড়িগ্রাম-এই চারটি জেলা অংশ নেয়। ফাইনালে কুড়িগ্রামকে ৩-০ সেটে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় পঞ্চগড়।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।