Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৩ বৈশাখ ১৪২৫, ০৯ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
শিরোনাম

যুদ্ধ বেশি দূরে নয়

চীনের সামরিক দৈনিকের হুঁশিয়ারি

| প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

ইনভেস্টিং চ্যানেল : চীনের পিপলস লিবারশন আর্মির (পিএলএ) সংবাদপত্র হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছে, যুদ্ধ আমাদের থেকে বেশি দূরে নয়। চীনের চারপাশে আঞ্চলিক পরিস্থিতি জটিল ও অস্থিতিশীল, শান্তির আড়ালে লুকিয়ে রয়েছে বিপদ। চীন কোনো সামরিক ব্যর্থতা মেনে নিতে পারে না, তাই আমাদেরকে অবশ্যই সম্ভাব্য বিপদ সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে এবং যুদ্ধের জন্য সর্বদা প্রস্তুত থাকতে হবে। দেশ যখন বিরাট সামরিক শক্তি হওয়ার দ্বারপ্রান্তে সে সাথে দেশ জাতীয় নিরাপত্তার প্রতি উচ্চ ঝুঁকির দিকেও অগ্রসর হচ্ছে।
গেøাবাল টাইমস জানায়, নিবন্ধটি প্রথমে ‘যুদ্ধ প্রস্তুতির ইচ্ছাবিহীন একজন সৈনিক কোনো ভালো সৈনিক নয়’ শিরোনামে মঙ্গলবার পিএলএ দৈনিকে প্রকাশিত হয়। সংবাদপত্র হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলে যে চীনা সৈন্যরা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত নয়, কারণ অনেকেই যুদ্ধ আসন্ন বলে বিশ^াস করতে রাজি নয়। সামরিকবিশেষজ্ঞর একমত যে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে চীনের চারপাশে যুদ্ধের হুমকি বৃদ্ধি পেয়েছে।
গেøাবাল টাইমস বলে, সাবেক মেজর জেনারেল ও চীনাঅস্ত্র নিয়ন্ত্রণ ও নিরস্ত্রীকরণ সমিতির ঊর্ধ্বতন উপদেষ্টা জু গুয়াংয়ু বলেন, কোরীয় উপদ্বীপ, চীন-ভারত সীমান্ত এলাকা ও তাইওয়ান প্রণালির মত পিএলএর যে কোনো সম্ভাবনার জন্য অঞ্চলে পিএলএর প্রস্তুত থাকা প্রয়োজন। আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের মত অঞ্চলগুলোতে স্থানীয় অস্থিতিশীলতার কারণে আমাদের বৈদেশিক স্বার্থ হুমকির সম্মুখীন।
গত সপ্তাহে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং সামরিক বাহিনীর প্রতি বিরল বক্তৃতার মধ্য দিয়ে নববর্ষের উদ্বোধন করেন। এতে তিনি সৈন্যদের যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার ও মৃত্যুকে ভয় না করার আহবান জানান।
সরকারী সিনহুয়া বার্তা সংস্থা জানায়, গত বুধবার উত্তরাঞ্চলীয় হেবেই প্রদেশে পিএলএর সেন্ট্রাল থিয়েটার কমান্ডে এক পরিদর্শন সফরে গিয়ে হাজার হাজার সৈন্যের উদ্দেশ্যে বক্তৃতায় বলেন, চীনের সৈন্যদের কঠোর পরিস্থিতি বা মৃত্যুকে ভয় করা উচিত নয়।
পিএলএ তার অধিকাংশ সামরিক শাখাকে নিয়ে দেশে ও বিদেশে সামরিক মহড়া চালাচ্ছে। জে-২০ স্টিলথ জঙ্গি জেট, ওয়াই-২০ পরিবহন বিমান, এইচ-৬কে বোমারু বিমান এবং জে-১৬, জে ১১বি, জে ১০সি জঙ্গি জেটসহ অত্যাধুনিক বিমান নিয়ে ্ এ বছরের শুরু থেকেই সামরিক মহড়া চালিয়ে আসছে।
পিএলএ দৈনিক আরো জানায়, জে-১৬সহ অন্যান্য জঙ্গি বিমানের সাথে জে-২০ বিমান যুদ্ধ মহড়া চালাচ্ছে। জে-২০ দৃষ্টি বহিভর্‚ত সীমানার বাইরে মহড়ায় অংশ নিচ্ছে। ওয়াই-২০ ও জে-১০সি দূর পাল্লার সামরিক পরিবহন ও যুদ্ধ ক্ষমতার উন্নয়নের জন্য মালভ‚মি অঞ্চলের অজ্ঞাত বিমান বন্দরগুলোতে প্রশিক্ষণে অংশ গ্রহণ করছে।
ইকোনোমিক টাইমস মালভ‚মি অঞ্চলকে তিব্বত মালভ‚মি বলে সনাক্ত করেছে যা ভারত ও চীনের মধ্যে দীর্ঘ লাইন অব অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল (এলএসি) বরাবর অবস্থিত।
২০১৮ সালে সশস্ত্র বাহিনীকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করার চীনের সশস্ত্র বাহিনীর জরুরি সতর্কতা থেকে এ ইঙ্গিত মেলে যে ুদ্ধ আসন্ন। যখন কোরীয উপদ্বীপের ঘটনাবলীর ্উপর বহু লোকের দৃষ্টি নিবদ্ধ , তখন আসল যুদ্ধ হতে যাচ্ছে এলএসি দ্বারা বিভক্ত দুই পারমাণবিক পারশক্তির মধ্যে। কথা হচ্ছে, বিশে^র সর্বাপেক্ষা জনবহুল দু’টি দেশ যখন পরস্পরের গলা লক্ষ্য করে অগ্রসর হচ্ছে তখন সম্ভাব্য ভুল কি হতে পারে তা কে বলতে পারে?

 


Show all comments
  • মানিক হায়দার ১৪ জানুয়ারি, ২০১৮, ৪:২৫ এএম says : 1
    হওয়াটাই স্বাভাবিক নয় কি ?
    Total Reply(0) Reply
  • কামরুল জামান ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮, ১১:২৯ এএম says : 0
    ধন্যবাদ
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর