Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

আমি কোরআন পড়েছি : মানেকা গান্ধি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

ভারতের কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রী মানেকা গান্ধী বলেছেন, আমাদের মধ্যে কতজন নিজ নিজ ধর্মীয় গ্রন্থ পড়েছেন? আমি কোরআন পড়েছি। ধর্মীয় কারণেই এখন দেশে উত্তেজনা দেখা যাচ্ছে। এর কারণ শিশুরা অন্য ধর্ম সম্পর্কে কিছু জানে না। তাই সবার অন্য ধর্ম সম্পর্কে জানা দরকার। খবর হিন্দুস্তান টাইমস। মোদীর নের্তৃত্বে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকে ধর্মীয় কারণে তথাকথিত ধর্ম নিরপেক্ষ ভারতে উত্তেজনা বাড়ছে। মুসলমানদের নানাভাবে হয়রানী ও নির্যাতন করা হচ্ছে। এসব বন্ধে স্কুলে শিশু শিক্ষার্থীদের অন্য ধর্ম (ইসলাম ধর্মসহ অন্যান্য ধর্মীয় গ্রস্থ) সম্পর্কে শিক্ষার ব্যবস্থা করার পক্ষে মত দেন ভারতের কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রী মানেকা গান্ধী। গান্ধি পরিবারের সদস্য মন্ত্রী মেনেকা গান্ধি বলেন, ধর্মীয় কারণেই এখন দেশে উত্তেজনা দেখা যাচ্ছে। এর অন্যতম একটি কারণ হচ্ছে আমাদের শিশুরা অন্য ধর্ম সম্পর্কে কিছু জানে না। ফলে অন্য ধর্মের প্রতি তারা ঘৃণা পোষণ করে। হিন্দু, জৈন, বৌদ্ধ, শিখ ও ইসলাম ধর্মের মূল্যবান গ্রন্থ থেকে শিক্ষালাভ করলে শিশুরা ছোট বয়সেই অন্য ধর্মের প্রতি সম্মান করতে শিখবে।
গত সপ্তাহে ভারতের সেন্ট্রাল অ্যাডভাইজরি বোর্ড অব এডুকেশনে তিনি নতুন এই পরিকল্পনা প্রস্তাব তুলে ধরেন। পবিত্র কোরআনসহ ছয় ধর্মের পবিত্র গ্রন্থ থেকে সপ্তাহে অন্তত দুইবার ক্লাস নেয়ার ব্যাপারে মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের কাছে আহŸানও জানিয়েছেন তিনি। নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, আমাদের মধ্যে কতজন নিজ নিজ ধর্মীয় গ্রন্থ পড়েছেন? আমি কোরআন পড়েছি। আপনারা (ভারতের হিন্দু ধর্মাবলম্বী) কতজন জানেন যে মুহাম্মদ (সা.) যুদ্ধবিরোধী? আমাদের নৈতিকতার শিক্ষা দেয়া হতো, কিন্তু এখন আর এটি নেই। সারাদেশে প্লেস্কুলে এ ধরনের গাইডলাইন তৈরির ব্যাপারেও প্রস্তাব দিয়েছেন মানেকা। তিনি বলেন, প্লেস্কুলের গাইডলাইন মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয় তৈরি করে। তাই আমি মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়কে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ জানিয়েছি। যাতে দুই মন্ত্রণালয় একসঙ্গে কাজ করতে পারে।



 

Show all comments
  • ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ৭:২৭ এএম says : 0
    ভারতের কেন্দ্রীয় নেতা মানেকা গান্ধী হিন্দু হয়ে যদি গর্বের সহিত বলতে পারে আমি কুরআন পড়েছি, তাহলে আমাদের দেশের পাতি নেতারা নিজের মুসলিম পরিচয়টুকু তুলে ধরতে এতভয় পায় কেন বুঝে আসেনা।।
    Total Reply(1) Reply
    • am iqbal ২৬ জানুয়ারি, ২০১৮, ১০:৫৭ পিএম says : 0
      Maneka Gandhi is not HINDU she is SHIKH.
  • Shihab Ahmed ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:১৯ পিএম says : 0
    পবিত্র কুরআনের জ্ঞান ও অনুশীলন মানব সভ্যতা ও সম্প্রীতির জন্য এক আলোক বর্তিকা।
    Total Reply(0) Reply
  • Mamun Rana ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:১৯ পিএম says : 0
    Sobar sob dhormo somporkee jana uchit .
    Total Reply(0) Reply
  • Mahfuz Ahmed ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:২০ পিএম says : 0
    আমিন।
    Total Reply(0) Reply
  • ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ১:১১ পিএম says : 0
    কুরআনই সঠিক আলোর দিশারী
    Total Reply(0) Reply
  • তাজরিয়া ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ৬:৩২ এএম says : 0
    কথাগুলো ভালো লেগেছে
    Total Reply(1) Reply
    • জাহিদুল ইসলাম ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ১:৫২ পিএম says : 0
      মানুষ নিজ ধম্র বুঝলে অন্য ধমে্র মানুষদের আঘাত করে না -
  • Mohammad Rafiqul Islam ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ৫:১১ পিএম says : 0
    Quran for everybody
    Total Reply(0) Reply
  • Md. samrat ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ৯:৩৮ পিএম says : 0
    ইসলাম ধর্মই সবচেয়ে বড় ধর্ম, এ সম্পর্কে জানা দরকার।
    Total Reply(0) Reply
  • anarul ২১ জানুয়ারি, ২০১৮, ১১:২২ পিএম says : 1
    পবিত্র কুরআান দিতে পারে একমাত্র সঠিক পথের সমাধান।
    Total Reply(0) Reply
  • alim ২২ জানুয়ারি, ২০১৮, ৭:৩৬ এএম says : 0
    ভারতের কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রী মানেকা গান্ধীর, উক্তি থেকে কি আমরা শিক্ষা নিতে পেরেছি ? ভরা কলস বাজে কম ৷”
    Total Reply(0) Reply
  • molla ASHRAF ALI ২২ জানুয়ারি, ২০১৮, ৮:৩৫ এএম says : 0
    QURAN IS THE SOURCE OF ALL KNOWLEDGE.AS PEOPLE DO NOT KNOW QURAN, THEY OPPOSE AGAINST IT. QURAN IS FOR ALL. IT GUIDES US TO THE EATERNAL SUCCESSFUL WAY. IT EMANCIPATES HUMAN BEIBG FROM THE BLIND FAITH. SO, WE SHOULD TRY TO UNDERSTAND ISLAM AND QURAN.
    Total Reply(0) Reply
  • shekul ২৬ জানুয়ারি, ২০১৮, ৭:৩২ পিএম says : 0
    ameen
    Total Reply(0) Reply
  • nesaruddin ২৭ জানুয়ারি, ২০১৮, ৩:১৩ এএম says : 0
    ذَٰلِكَ الْكِتَابُ لَا رَيْبَ ۛ فِيهِ ۛ هُدًى لِّلْمُتَّقِينَ This is the Book (the Qur'an), whereof there is no doubt, a guidance to those who are Al-Muttaqun [the pious and righteous persons who fear Allah much (abstain from all kinds of sins and evil deeds which He has forbidden) and love Allah much (perform all kinds of good deeds which He has ordained)]. [2:2] The Holy Qur'an -
    Total Reply(0) Reply
  • লিপিকরিম ১৭ এপ্রিল, ২০১৮, ৬:২০ পিএম says : 0
    আমিন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।