Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৪, ০৮ জামাদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
শিরোনাম

পাকিস্তানকে সহায়তা বন্ধ করলে যুক্তরাষ্ট্রেরই ক্ষতি : আব্বাসি

তালেবানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আবারও য্ক্তুরাষ্ট্রের আহ্বান

| প্রকাশের সময় : ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : পাকিস্তানকে নিরাপত্তা সহায়তা বন্ধের পদক্ষেপ যুক্তরাষ্ট্রের জন্যই নেতিবাচক হবে বলে মার্কিন প্রশাসনকে সতর্ক করেছেন পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি। পাকিস্তানি পার্লামেন্টে নিজ কক্ষে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ হুঁশিয়ারি দেন তিনি। আব্বাসের দাবি, সহায়তা বন্ধ হলে সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ে পাকিস্তানের সক্ষমতা কমবে, আর তাতে যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ের উপরই প্রভাব পড়বে। যুক্তরাষ্ট্র আর তাদের মিত্ররা ধারাবাহিক অভিযোগ করে আসছে, আফগান তালেবান ও তাদের মিত্র হাক্কানি নেটওয়ার্ককে পাকিস্তানে ‘নিভৃত আবাস’ গড়ে তোলার সুযোগ করে দিয়েছে ইসলামাবাদ। নতুন বছরের টুইটে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মিথ্যাচার ও সন্ত্রাসবাদে মদদের অভিযোগ তুলে পাকিস্তানে সহায়তা বন্ধের হুমকি দেওয়ার পর ৫ জানুয়ারি নিরাপত্তা সহযোগিতা স্থগিতের ঘোষণা দেয় ওয়াশিংটন। সাক্ষাৎকারে শাহিদ খাকান আব্বাসি সহায়তা বন্ধ করে পাকিস্তানকে দুর্বল না করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করেন। অপরদিকে, তালেবানের নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আবারও পাকিস্তানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আফগানিস্তানের কাবুলের হোটেলে তালেবানের হামলার পর গত সোমবার হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে নতুন করে এ আহŸান জানানো হয়। প্রেস সচিব সারাহ স্যান্ডার্স বলেন, ‘এই হামলা আফগান অংশীদার সঙ্গে কাজ করতে ওয়াশিংটনের সংকল্পকে আরও জোরদার করবে।’ হামলার সময় আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর দ্রæত পদক্ষেপের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘আমাদের সহায়তায় আফগান বাহিনী নিরলসভাবে আফগানিস্তানের শত্রুদের দমন করবে। এই শত্রুরা বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাস ছড়িয়ে দিচ্ছে।’ স্যান্ডার্স আরও বলেন, ‘তালেবান নেতাদের গ্রেফতার অথবা বহিষ্কারের জন্য আমরা পাকিস্তানকে আহ্বান জানাচ্ছি।’ পাকিস্তানের মাটি ব্যবহার করে করে এসব হামলা প্রতিরোধ করতেও দেশটির প্রতি আহ্বান জানান তিনি। রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইকে ‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধ’ বলে উল্লেখ করেন আব্বাসি। তিনি ওয়াশিংটনকে সতর্ক করে বলেন, পাকিস্তানের উপর কোনও ধরনের অবরোধ আরোপ করা হলে তা দেশটির নিজস্ব সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ের প্রত্যাশিত সফলতায় প্রভাব ফেলবে। তবে পাকিস্তান সরকার ওয়াশিংটন ঘোষিত জঙ্গি হাফিজ সাইদের পরিচালনাধীন দাতব্য সংস্থাগুলো বাজেয়াপ্ত করার পরিকল্পনায় অনড় রয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। চলতি মাসেই ইসলামাবাদ সফর করবে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের একটি দল। লস্কর ই তৈয়বা, আফগান তালেবান, হাক্কানি নেটওয়ার্কসহ জাতিসংঘ ঘোষিত অন্যান্য জঙ্গি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষেত্রে পাকিস্তানের কতটুকু অগ্রগতি হয়েছে তা পর্যালোচনা করবেন তারা। মিথ্যাচার ও সন্ত্রাসবাদে মদদের অভিযোগ তুলে বছরের শুরুতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যে টুইটটি করেছিলেন তাকে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বলে উল্লেখ করেছেন আব্বাসি। রয়টার্স, এএফপি।

 


Show all comments
  • খোরশেদ ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮, ৩:৩৪ এএম says : 0
    এবার যুক্তরাষ্ট্রকে বুঝে শুনে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ