Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১২ বৈশাখ ১৪২৬, ১৮ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

যেমন আশঙ্কা করা হয়েছিলো তেমনই হলো

| প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

চট্টগ্রামে ফ্লাইওভারে দুর্ঘটনায় প্রাইভেট কার আরোহী নিহত
চট্টগ্রাম ব্যুরো : যেমন আশঙ্কা করা হয়েছিলো ঠিক তেমনি হলো। চট্টগ্রাম নগরীর মুরাদপুর ফ্লাইওভারে দুর্ঘটনায় একজনের প্রাণ গেল। এতে আহত হয়েছেন আরও একজন। গতকাল (বৃহস্পতিবার) সকালে ফ্লাইওভারে উল্টোপথে আসা একটি প্রাইভেট কারের সাথে কাভার্ড ভ্যানের সংঘর্ষ হয়। আর তাতে প্রাণ হারান কার আরোহী মন্টি চৌধুরী (২৭)। তার সহযাত্রী আহত অমিতকে (৪৫) আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে মেহেদীবাগের একটি বেসরকারি হাসপাতালে।
স্বঘোষিত কর্মবীর চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালামের অতিউৎসাহে কোন প্রকার সমিক্ষা ছাড়াই ৬৮০ কোটি টাকা ব্যায়ে অপরিকল্পিত ফ্লাইওভারটি নির্মাণ করা হয়। আবার ‘ঘোড়ার আগে গাড়ি’ জুড়ে দেওয়ার মতো উঠা-নামার পথ বা র‌্যাম্প ও লুপ নির্মাণ ছাড়াই ফ্লাইওভারটি যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হলো। আর এই কাজ করতে গিয়ে পাঁচ কিলোমিটারের বেশি দীর্ঘ এই ফ্লাইওভারের একপাশ পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে করে একাংশে চরম ঝুঁকি নিয়েই মুখোমুখি চলছে যানবাহন। এরফলে যে কোন সময় বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে এমন আশঙ্কা করে দৈনিক ইনকিলাবে একাধিক রিপোর্ট প্রকাশ হলেও টনক নড়েনি সিডিএ কর্মকর্তাদের।
সকালে উল্টো পথে চলতে গিয়েই দুর্ঘটনায় পড়ে পাইভেট কারটি। খুলশী থানার এসআই দেলোয়ার হোসেন ইনকিলাবকে বলেন, কাভার্ড ভ্যানটি লালখান বাজার থেকে মুরাদপুর যাচ্ছিল। আর প্রাইভেট কারটি মুরাদপুর থেকে লালখান বাজারের দিকে যাচ্ছিল উল্টো পথে। জিইসি মোড়ে দুই গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে প্রাইভেট কারে থাকা দুইজন গুরুতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে পাঠানো হয় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে এসে মন্টির লাশ শনাক্ত করে বলে মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার জানান। মন্টির বাসা নগরীর পাথরঘাটা এলাকায়। তাদের গ্রামের বাড়ি বোয়ালখালীর পূর্ব গোমদন্ডী গ্রামে। তার পিতার নাম মৃণ¥য় চৌধুরী। অমিত চৌধুরীর আশঙ্কাজনক উল্লেখ করে তাদের এক আত্মীয় জানান, তিনি বিদেশে পড়ালেখা করে দেশে এসে ব্যবসা শুরু করেন। ঢাকায় তাদের তৈরি পোশাক কারখানা আছে।
উল্লেখ মুরাদপুর ফ্লাওভারের ২নং গেইট ও স্যানমার ওশান সিটি এলাকায় র‌্যাম্প ও লুপ নির্মাণ কাজ চলছে। ওই দুই অংশে একপাশে চলাচল বন্ধ না করে পুরো ফ্লাইওভারের একপাশ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আর এতে করে চরম ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলছে। এনিয়ে গাড়ি চালকদের সিডিএর বিরুদ্ধে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে। চালকরা বলছেন, যে অংশে কাজ হচ্ছে ওই অংশেও বন্ধ রেখে দ্বিমুখী যানবাহন চলাচল করা যায়। অথচ তা না করে পুরো ফ্লাইওভারটির একপাশ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এতে যানবাহন চলতে গিয়ে প্রায় ছোটখাটো দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। প্রসঙ্গত সম্প্রতি একটি বিলাশবহুল যাত্রীবাহি এসি বাসের ধাক্কায় মুরাদপুর ফ্লাইওভারে দুই মোটর সাইকেল আরোহীর মৃত্যু হয়।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফ্লাইওভার


আরও
আরও পড়ুন