Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯, ০৯ চৈত্র ১৪২৫, ১৫ রজব ১৪৪০ হিজরী।

রাজনৈতিক দলগুলোকে শিক্ষামন্ত্রী, পরীক্ষার রুটিন দেখে কর্মসূচি দেবেন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ১:৫৫ পিএম

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার রুটিন দেখে রাজনৈতিক দলগুলোকে কর্মসূচি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।
আজ বৃহস্পতিবার সকালের দিকে রাজধানীর গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার হল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ আহ্বান জানান।

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘২০ লাখের বেশি শিক্ষার্থীর বিষয়টি বিবেচনা করে এবং পরীক্ষার রুটিন দেখে রাজনৈতিক কর্মসূচি দেবেন। যাতে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা দিতে কোনো অসুবিধা না হয়।’
প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে সব রকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে মানুষের পক্ষে যা কিছু করা সম্ভব তা সবই আমরা করে যাচ্ছি। কোথাও প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পাওয়া গেলে সারা দেশে সে দিনের পরীক্ষা বাতিল করা হবে। আমরা আশা করছি, এবার আর কোনোভাবেই প্রশ্নফাঁস হবে না।’
এ সময় আদৌ প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে কিনা- তা যাচাই করে ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানান নুরুল ইসলাম নাহিদ।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এবার সারা দেশে অভিন্ন প্রশ্নপত্রে এসএসএসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তাই আমরা অনেক ঝুঁকির মধ্যে রয়েছি। কেউ যদি প্রশ্নফাঁসের মতো নোংরা কাজের মধ্যে জড়িত হয়, তাকে কোনোভাবেই রেহাই দেওয়া হবে না। এ বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন সংস্থা কাজ করছে। সন্দেহজনক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে নজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছে।’
শিক্ষক-অভিভাবকদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আপনাদের কাছে অনুরোধ করছি, কেউ প্রশ্ন কেনাবেচার মধ্যে জড়িত হবেন না। আমরা সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা শেষ করতে চাই। যদি প্রশ্নপত্রের মতো দেখতে এমন কিছু আদান-প্রদান করা হয়, তবে সেও প্রশ্নফাঁসের অপরাধে সাজাপ্রাপ্ত হবেন।’
৩০ মিনিট আগে কেন্দ্রে প্রবেশ অভিভাবকদের জন্য বাড়তি ভোগান্তি এমন অভিযোগ তুলে ধরলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘পরীক্ষার তো একটা নির্ধারিত সময় থাকবে। আমরা এবার থেকে পরীক্ষার সময় কমিয়ে এনেছি। তাই ৩০ মিনিট আগেই বাধ্যতামূলক কেন্দ্রে প্রবেশ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এটি মাথায় নিয়ে সকলকে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশের অনুরোধ জানান তিনি।’
আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় শুরু হওয়া এই পরীক্ষা চলবে দুপুর একটা পর্যন্ত। এ ছাড়া বিকালের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে দুপুর দুইটা থেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত।
এবার পরীক্ষায় ২০ লাখ ৩১ হাজার ৮৮৯ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছেন। এর মধ্যে ১০ লাখ ২৩ হাজার ২১২ জন ছাত্র ও ১০ লাখ ৮ হাজার ৬৮৭ জন ছাত্রী রয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কর্মসূচি

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন