Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫, ১৫ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

কবিতা

| প্রকাশের সময় : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

মিজানুর রহমান তোতা

নিরুদ্দেশ যাত্রার অপেক্ষায়

অনাকাঙ্খিত বিতর্কের সূচনায় দগ্ধ
কল্পিত কাহিনীর বেড়াজাল বিস্তার
অদৃশ্য বেসাতি তপ্ত গুঞ্জনে আহত
অন্তরালের বিষ-
একদিন ভাঙবেই, মুছে যাবে ভিন্নতা।
অপেক্ষা শুধু নিরুদ্দেশ যাত্রার।
আমি যাবো না, হবো না নিরুদ্দেশ
দেখবো কত মিথ্যার বেসাতি
কত রঙে কত ঢঙে কতভাবে
বিমর্ষ বিমনা জীর্ণ পুরাতন আসরে
থাকতে ইচ্ছে হয় না।

যেতে হবে সবাইকে আগে বা পরে
বাহাদুরী যতটাই হোক না কেন
সবার জন্য করছে অপেক্ষার পালা।
চোখের রঙীন গøাসটা খুলে
ফেললেই দেখা যাবে দুর বহুদুরের
সেই সাদাকালোর চমৎকার পালক।
শেষতক যেতেই হলো নিরুদ্দেশ।

সবুজ আহমেদ
বর্ণমালার প্রান্তর

তোমরা তারা হয়ে আছো দূর আকাশের প্রান্তরে
শোকগাঁথা মন উঠনে উজ্জল শহীদ মিনার হয়ে
একুশ এলে এসে যায় চোখের কোনে ব্যথার কাঁপন
একুশ স্বরণ করিয়ে দেয় সিমাহীন স্মৃতির সাগর
ভাই হারা বোন বলে তাজা লাশ করেছি দাফন।
সেদিন একুশে পলাশের লাল কৃষ্ণচূড়ার
ভেংগে ছিলো ডাল
কারবালা ঘটেছিল রাজপথে হরণ হয়েছিলো প্রাণ
বুলেট বুকে নিয়ে ছিলো যারা
আজও অঝরে কাঁদে তাদের জননী জায়া
আমরা সারা বছরে একদিন........
সাদা গোলাপ ছিটিয়ে শোকগীতি গেয়ে সারা
যাদের প্রাণের বিনিময়ে ফেলাম
মা উচ্চারনের অধিকার
রেখেছি কি খোঁজ কি ফেলো তারা
এই তাদের ত্যাগে প্রতিষ্ঠিত বাংলার বর্নমালা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।