Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ১৩ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিল হলে কঠোর আন্দোলন -আল্লামা আহমদ শফী

প্রকাশের সময় : ২৮ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

চট্টগ্রাম ব্যুরো : রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাদ দিলে কঠোর আন্দোলনের হুমকি দিয়ে হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ্ আহমদ শফী ও মহাসচিব হাফেজ জুনাইদ বাবুনগরী বলেছেন, যারা আদালতের কাঁধে বন্দুক রেখে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিল করতে চায় তারা স্বাধীনতা ও জনগণের শক্র। পৃথক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় নাস্তিক্যবাদিদের ফাঁদে পা না দিয়ে এ ধরনের কর্মকা- থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।
২৮ বছর আগের পুরনো একটি রিট মামলাকে সচল করে বাংলাদেশের সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম ‘ইসলাম’ থাকবে কী থাকবে না; এই বিষয়ে শুনানির জন্যে হাইকোর্টের গ্রহণ করা রিট মামলা বাতিলের দাবি এবং দেশের শিক্ষা-সংস্কৃতিসহ নানা পর্যায়ে ইসলামবিরোধী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে হেফাজতে ইসলামের আহ্বানে গত ২৫ মার্চ শুক্রবার বাদ জুমা দেশব্যাপী অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ কর্মসূচিতে ব্যাপকহারে শরিক হয়ে কর্মসূচিকে সফল করায় দেশবাসীর প্রতি ধন্যবাদ ও শোকরিয়াও জ্ঞাপন করেন সংগঠনটির আমির শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ্ আহমদ শফী এবং মহাসচিব আল্লামা হাফেজ মুহাম্মদ জুনায়েদ বাবুনগরী।
গতকাল (রোববার) এক বিবৃতিতে হেফাজত আমির বলেন, বাংলাদেশের জনগণ নাস্তিক্যবাদি ষড়যন্ত্র কখনোই সফল হতে দিবে না। যারাই ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করবে, তারাই এক সময় নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। তিনি বলেন, গত শুক্রবার দেশের এমন কোনো শহর ছিল না, যেখানে সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বিক্ষোভ হয়নি। রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিলের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত নাস্তিক্যবাদি চক্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী মিছিলে সেদিন রাজপথে তৌহিদী জনতার ঐক্যের ঢল নেমেছিল। সেদিন কোটি কোটি মুসলমি জনতা ইসলামবিদ্বেষী নাস্তিক্যবাদী চক্রসহ রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিলের জন্যে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত সকল মহলের কাছে এই কঠিন বার্তা পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছে যে, দেশবাসী ইসলামের স্বার্থে সীসাঢালা প্রাচীরের মতো ঐক্যবদ্ধ এবং ষড়যন্ত্রকারীদের কোনো চক্রান্তই তারা সফল হতে দিবে না। হেফাজত আমির বলেন, রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিল নিয়ে চক্রান্ত বন্ধ না হলে প্রয়োজনে জাতীয় ওলামা-মাশায়েখ সম্মেলনের মাধ্যমে আরও কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। বিবৃতিতে হেফাজত আমির দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ইসলাম ও মুসলিম স্বার্থসংশ্লিষ্ট যেকোনো প্রতিকূলতার মোকাবেলায় আমাদের এই ঐক্যবদ্ধ অবস্থানকে আরো দৃঢ় করতে হবে। ষড়যন্ত্রকারীরা ব্যর্থ হয়ে উচ্ছেদ হয়ে যাবে।
অপর এক বিবৃতিতে হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব প্রখ্যাত মুহাদ্দিস আল্লামা হাফেজ মুহাম্মদ জুনাইদ বাবুনগরী গত শুক্রবার বিক্ষোভ মিছিলের মাধ্যমে সারাদেশে প্রতিবাদের গণজোয়ারে শামিল হওয়ায় দেশবাসীর প্রতি ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আমরা হাইকোর্টের মাননীয় বিচারপতি এবং শাসক মহলসহ সংশ্লিষ্ট সবার কাছে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বহাল রাখার পক্ষে দেশবাসীর ঐকবদ্ধ দৃঢ় অবস্থানের কথা জানান দিতে সক্ষম হয়েছি। জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, যারা দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী নয় এবং যারা চায় না এদেশের সকল ধর্মমতের মানুষ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মাধ্যমে সুখে-শান্তিতে সুন্দরভাবে বসবাস করুন, তারাই আদালতের কাঁধে বন্দুক রেখে রাষ্ট্রধর্ম বাতিল করে দেশে গোলযোগ তৈরি করতে চায়। এই ষড়যন্ত্রকারীরা দেশের শক্র, দেশের গণমানুষেরও শক্র এবং এরা দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী নয়।
হেফাজত মহাসচিব আরও বলেন, বাংলাদেশে ৯২ ভাগ মুসলমান যেমন স্বাধীন ধর্মীয় ও নাগরিক অধিকার নিয়ে বসবাস করবে, তেমনি হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টানসহ সকল অমুসলিমও তাদের পূর্ণ ধর্মীয় ও নাগরিক অধিকার নিয়ে বসবাস করবেন। আমরা চাই মুসলমানদের পাশাপাশি অন্যান্য সকল ধর্মাবলম্বীও যেন এদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির সাথে সুখে শান্তিতে বসবাস করে। যারা সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম মুছে দিতে চায়, তারা মূলত এদেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাঁধাতে চায়।



 

Show all comments
  • Md. Ashiqur Rahman ২৮ মার্চ, ২০১৬, ১২:৪৪ এএম says : 2
    প্রকৃত মুসলিমরা কখনোই অন্য ধর্মালমবীদের অধিকার হরণ করে না। তাছাড়া বাংলাদেশে এ ধরনের উললেখ যোগ্য অতীতও দেখি নাহ। বরং ভারতের চেয়ে হাজার গুণ সুখে তারা। আমাদের ধর্মের বিধান তাদের অধিকার দেয় আল্লাহর বানদা হিসেবেআসলে। সুখী দেশে অশান্তিতির বীজ বপণ করতে এসব কাজ নয়ত কিছু হতে পারে না। আর যুদি কার্যকর করা হয়। তাহলে ......................................................................
    Total Reply(0) Reply
  • Rabiullah ২৮ মার্চ, ২০১৬, ৮:৩৪ এএম says : 0
    100%
    Total Reply(0) Reply
  • Maksudul Karim Tasbir ২৮ মার্চ, ২০১৬, ১১:২৭ এএম says : 0
    আমার মনে হয় সংবিধানে কিছু ধারা পরিবর্তন করা উচিত। এদের মধ্য প্রথম রাষ্ট ধর্ম ইসলাম নিয়ে যাতে কেউ কোন কিছু কিরতে না পারে সে ব্যাপারে কঠিন হওয়া। কারণ আমারা রা মুসলিম প্রধান দেশে বাস করি এখানে ইসলামি হবে রাষ্ট্রধর্ম। কিছু কিছু ........... যারা নিজেদের সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ভাবে, এসব ....... সংবিধানের সুযোগ নিয়ে বার বার রিট করবে আর এভাবে আন্দোলন চলতে থাকবে। এটা ত দেশের নীতি হতে পারে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Aminul Islam ২৮ মার্চ, ২০১৬, ১১:২৭ এএম says : 1
    আল্লামা আহমদ শফির নেতৃত্বে লক্ষ কোটি তৌহিদী জনতা তা জান কোরবান করে হলেও ইসলাম ক্ব রক্ষা করবে,ইনশাআল্লাহ
    Total Reply(0) Reply
  • Khokon ২৮ মার্চ, ২০১৬, ১১:৩১ এএম says : 0
    Exactly. Islam is our soul. We want islamic republic of Bangladesh
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Hossain ২৮ মার্চ, ২০১৬, ১১:৩৩ এএম says : 0
    ji Hazrat, jodi sangbidhan theke rastio Dhormo islam ke Bad Deya hoy, ta hole Lagatar Andoloner kormosochi Debar Aahobban janacchi,
    Total Reply(0) Reply
  • Abu mahmud ২৮ মার্চ, ২০১৬, ১১:৩৮ এএম says : 4
    মুজাহিদে আযম,শায়খুল ইসলাম, আল্লামা আহমদ শফি সাহেবের সাথে দেশের সমস্ত তৌহিদী জনতা একমত ও ঐক্যবদ্ধ!তাই সরকার কে আমরা অনুরোধ করছি , অনতিবিলম্বে উনার আহবান কে শ্রদ্ধার সহিত বিবেচনা পূর্বক রাষ্ট্র ধর্ম ইসলামকে বহাল রাখার জন্য|নাহলে পরবর্তী পরিস্থিতির জন্য সরকারই দায়ী থাকবেন|
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।