Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

তারা নতুন ধারার জঙ্গি

প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : গত বৃহস্পতিবার বিবিসির এক বিশ্লেষণধর্মী প্রতিবেদনে বলা হয়, ইন্দোনেশিয়ার জঙ্গি সংগঠনগুলোর এক নতুন ধারা বা প্রজন্মের সদস্যরা এ হামলা চালিয়েছে। এ বিষয়ে নিরাপত্তা বিশ্লেষক ইয়োহানস সুলেইমান মনে করেন, যেভাবে এ হামলা চালানো হয়েছে তা দেশটিতে একেবারেই নতুন ধাঁচের। ইন্দোনেশীয় পুলিশ প্রধান জেনারেল বাদরুদ্দিন হাইতির বরাত দিয়ে বিবিসির খবরে বলা হয়, শনাক্ত হওয়া চার সন্ত্রাসীসহ পাঁচ হামলাকারীই গত বৃহস্পতিবার গোলাগুলি ও বোমা বিস্ফোরণের সময় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হয়। হামলায় একজন কানাডীয় ও একজন ইন্দোনেশীয় বেসামরিক লোকও প্রাণ হারান। আহত হন অন্তত আরও ২০ জন। পুলিশ বলছে, হামলাকারীদের দুজন নিহত হয় একটি আত্মঘাতী বোমা হামলায়। বাকি তিনজন বন্দুক লড়াইয়ে। জেনারেল হাইতি জানান, সুনাকিম ও আরেক হামলাকারী উভয়ই অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত ছিল। আর জাকার্তার পুলিশ প্রধান টিটো কারনাভিয়ান বলেন, বৃহস্পতিবারের হামলায় যে সন্ত্রাসী সেল জড়িত বলে মনে করা হচ্ছে, তা উদ্ঘাটনে অভিযান চালানো হচ্ছে। পুলিশের এই কর্মকর্তা বিবিসিকে বলেন, ছোট একটা দল এ হামলা চালালেও সেটা কম গুরুত্বপূর্ণ নয়। কেননা, মূল অপরাধীরা জাভা ও সুলাওয়াশিভিত্তিক অন্য সেলগুলোর সঙ্গে যুক্ত। এরই মধ্যে, গত বৃহস্পতিবার সকালে জাকার্তার কাছাকাছি স্থান থেকে তিন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বাহরুম নাইম নামের একজন ইন্দোনেশীয়র নাম প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ। তাদের ধারণা, তিনি এ হামলার সমন্বয়কারী এবং আইএসের হয়ে লড়াই করতে সিরিয়া গিয়েছিলেন। সেখান থেকে দেশে ফিরে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় আইএস-সমর্থক গোষ্ঠীগুলোকে সংগঠিত করার কাজ করছিলেন তিনি। বিবিসি, আল-জাজিরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ