Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ০৮ মাঘ ১৪২৭, ০৮ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

কাউন্সিলররা পাড়া-মহল্লায় অবস্থান নেবে সাঈদ খোকন

৮ ফেব্রæয়ারি নাগরিকদের নিরাপত্তা

| প্রকাশের সময় : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম


স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার রায় ঘোষণার দিন ৮ ফেব্রæয়ারি ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের নেতৃত্বে এলাকার মুরব্বী ও যুবকরা পাড়া-মহল্লায় অবস্থান নেবে জানিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন, কোন দুষ্কৃতিকারী যাতে সাধারণ নাগরিকদের কোন ক্ষতি করতে না পারে সেজন্য জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধি হিসেবে ওয়ার্ড কাউন্সিলরা পাড়া-মহল্লায় অবস্থান নেবেন। তবে পরিস্থিতির যদি অবনতি হয় তাহলে আঞ্চলিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের সহায়তায় আইনগত ব্যবস্থা নেবেন। তবে কোন অবস্থাতেই আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না।
গতকাল সোমবার নগর ভবনে ‘নাগরিক নিরাপত্তায় জনপ্রতিনিধিদের ভুমিকা’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তৃতায় মেয়র এ কথা বলেন। সভায় ডিএসসিসির বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলররা বক্তৃতা করেন।
আগামী ৮ ফেব্রæয়ারি খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে নাশকতার যে আশঙ্কা করা হচ্ছে তা থেকে সাধারণ জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাউন্সিলরদের নির্দেশনা দিয়ে দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ৮ ফেব্রæয়ারির দিন আমাদের প্রত্যেক কাউন্সিলরের নেতৃত্বে প্রত্যেক এলাকায় অবস্থান কর্মসূচি পালিত হবে। যার মাধ্যমে কোন প্রকার নাশকতামূলক কর্মসূচি হতে দেওয়া হবে না। তবে যা কিছু করা হবে সবকিছুই আইনসম্মত হতে হবে। আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়া যাবে না। জরুরি কোনো ব্যবস্থা নিতে হলে প্রশাসনের সহায়তা নিয়ে তা করা যাবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে একটি বিষয় সাধারণ জনগণের গায়ে যেন কোনো আঘাত না লাগে, এমনকি কোনো প্রকার হেনস্থা যেন না হয়।
বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে ঢাকা দক্ষিণের মেয়র বলেন, রায় যেটাই হোক না কেন আমি আশা করব খালেদা জিয়া যেন নিয়ম মেনে থাকেন এবং বিএনপির নেতা-কর্মীদের দেশের পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করার কাজ থেকে যেন বিরত রাখেন। আইনি প্রক্রিয়ায় যেন সবকিছুর সমাধান করেন। তাছাড়া আমাদের যে শক্তি এর সামনে কোন প্রকার অপশক্তি মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর ক্ষমতা রাখে না।
মতবিনিময় সভায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রায় ৩০ জন ওয়ার্ড কাউন্সিলর উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।
বিএনপিকে সন্ত্রাসী দল হিসেবে উল্লেখ করে কাউন্সিলররা বলেন, বিএনপি সারাদেশেই এর আগেও নাশকতামূলক কর্মসূচি চালিয়েছে। তখন আমরা কোনো জবাব দিতে পারিনি। কিন্তু এখন সঠিক জবাব দেওয়ার সময় হয়েছে। বিএনপির নেতাকর্মীরা ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে এসে ঢাকায় জড়ো হচ্ছেন ৮ তারিখে রাজধানীতে বড় ধরনের বিশৃঙ্খলা ঘটনার জন্য। আগামী ৬ ফেব্রæয়ারি নগর আওয়ামী লীগের দিক-নির্দেশনামূলক সভা অনুষ্ঠিত হবে। তার আগেই আমরা নিজ নিজ এলাকায় আমাদের দায়িত্ব নিয়ে প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। এবার বিএনপি-জামায়াত জোটকে রাজপথে নামতে দেওয়া হবে না। এলাকার বিশেষ পয়েন্টগুলো আমরা নিরাপদ রাখবো।
কাউন্সিলদের মধ্যে বক্তৃতা করেন, আবু আহমেদ মান্নাফী, মীর সমীর, দেলোয়ার হোসেন, এম এ হামিদ খান, ওমর বিন আব্দুল আজিজ, আবুল কালাম অনু, মোহাম্মদ হোসেন প্রমুখ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন