Inqilab Logo

রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

৪৮ ঘণ্টার মাথায় হেলে পড়লো বেজমেন্ট

প্রকাশের সময় : ২৯ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা

নেত্রকোনা জেলা শহরের মোক্তপাড়ায় মগড়া নদীর উপর দৃষ্টিনন্দন নতুন ব্রিজ নির্মাণের লক্ষ্যে পশ্চিম পাশে একটি বিকল্প বেইলী ব্রিজ নির্মাণের জন্য যে বেজমেন্ট নির্মাণ করা হয়েছিল, তা ৪৮ ঘণ্টা পার না হতেই গত শুক্রবার হেলে পড়েছে। ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে এ ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয়দের পক্ষ থেকে এ অভিযোগ উঠেছে। নেত্রকোনা জেলা শহরের মোক্তপাড়ায় মগড়া নদীর উপর ১৯৬৫ সালে নির্মিত পাকা ব্রিজটি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ায় জনগণের পক্ষ থেকে পুরাতন ব্রিজটি ভেঙে সেখানে নতুন ব্রিজ নির্মাণের জোর দাবি উঠে। জনগনের দাবির প্রেক্ষিতে অবশেষে সড়ক ও জনপথ বিভাগ সাড়ে ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে মগড়া নদীর উপর একটি দৃষ্টিনন্দন সম্প্রসারিত ব্রিজ নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। টেন্ডার আহ্বানের পর ব্রিজ নির্মাণের জন্য ঠিকাদারকে কার্যাদেশ প্রদান করা হয়। ঠিকাদার নতুন ব্রিজ নির্মাণ না হওয়া পর্যন্ত যানবাহন ও পথচারীদের চলাচলের জন্য একটি বিকল্প বেইলী সেতু তৈরির লক্ষ্যে বেজমেন্ট নির্মাণ করে। কিন্তু নদীর মাটি পরীক্ষা না করেই বেজমেন্ট নির্র্মাণ করার ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই বিপদজ্জনকভাবে সেটি হেলে পড়ে। স্থানীয় জনগণের বক্তব্য হলো, এই বেজমেন্টের উপর বেইলী বসানোর পর যানবাহন চলাচলের সময় মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটতে পারতো। এ ব্যাপারে ঠিকাদারকে পাওয়া না গেলেও ঠিকাদারের লোকজন জানান, তারা নতুন করে বেজমেন্ট নির্মান করবে। এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাসুদ খান বলেন, নদীর মাটি খারাপ থাকায় নির্মিত বেজমেন্ট হেলে পড়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে সঠিকভাবে বেজমেন্ট নির্মাণের জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ৪৮ ঘণ্টার মাথায় হেলে পড়লো বেজমেন্ট
আরও পড়ুন