Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৭ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

অমর একুশে বইমেলা বিক্রির শীর্ষে যেসব বই

| প্রকাশের সময় : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

এহসান আব্দুল্লাহ : হাটি হাটি পা পা করে প্রায় শেষ হতে চললো অমর একুশে বইমেলা ২০১৮। গতকাল মেলার ২২তম দিনে মেলা প্রাঙ্গন ঘুরে এর মধ্যেই আঁচ করা গেল বিক্রির শীর্ষে থাকা বইগুলোর তালিকা। মেলার এই সময়ে দাড়িয়ে পাঠকরা সহজেই বাছাই করে নিতে পারছেন তাদের পছন্দের বই। কারণ হিসেবে তারা জানান মোটামুটি প্রত্যাশিত সব লেখকের বই মেলায় প্রাকশিত হয়েছে মেলার সপ্তাহখানেক পর থেকেই ফলে এখন আর লেখকের বই প্রকাশের জন্য কোন ধরণের অপেক্ষা করতে হচ্ছেনা বা যাচাই করতে হচ্ছেনা। পাঠকরা আগে পড়ে যে বইগুলোর রিভিও ভালো বলছেন সেগুলো অতি সহজেই কিনে নিতে পারছেন তারা।
এই পর্যন্ত মেলায় প্রকাশিত বইগুলোর মধ্যে রয়েছে তা¤্রলিপি থেকে মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখা কিশোর উপন্যাস ‘সাইক্লোন’, সময় থেকে প্রকাশিত বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী ‘ত্রাটিনা’ ও পার্ল থেকে ‘তবুও টুনটুনি তবুও ছোটাচ্চু’। সর্বাধিক বিক্রিত বইয়ের তালিকায় রয়েছে বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘কারাগারের রোজনামচা’।
এছাড়াও নতুন মোড়কে হুমায়ুন আহমেদের পুরোনো বইগুলো। হুমায়ুন সমগ্র, শ্রেষ্ঠ হুমায়ুন আহমেদ ইত্যাদী নামে এইসব বই পাঠকদের টানছে আগের মতোই।
গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্স থেকে প্রকাশিত হাফিজুর রহমানের লেখা ‘এরদোয়ান দ্যা চেঞ্জ মেকার’ বইটিও রয়েছে বেশি বিক্রিত বইয়ের তালিকায়। বইটি পাওয়া যাচ্ছে মেলার সূচীপত্রের স্টলে। এছাড়াও এই তালিকায় রয়েছে লেখা লেখি প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত বাংলাদেশ ডিবেট এসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান আল মামুন রাসেলের লেখা ‘ভালো বক্তা, উপস্থাপক ও বিতার্কিক হওয়ার বৈজ্ঞানিক কৌশল’ নামক বইটি।
প্রয়াত কথাসাহিত্যিক শওকত আলীর লেখা ইন্তামিন প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত’শুধু কাহিনী’ পাঠকদের কাছে সাড়া ফেলেছে ব্যাপক হারে। তা¤্রলিপি থেকে গুলতেকিন খানের প্রথম উপন্যাস ‘চৌকাঠ’, পার্ল থেকে প্রকাশিত সাকিব আল হাসানের ‘হালুম’ ও এবং আয়মান সাদিকের ‘নেভার স্টপ লার্নিং’ রয়েছে বেস্ট সেলার বইয়ের তালিকায়।
ঐতিহ্য থেকে প্রকাশিত বুলবুল সরওয়ারের মহাভারতের পথে এক ও দুই, দেবব্রত মুখোপাধ্যায়ের নায়ক, রফিক হারিরির ওমর ও সাবিদিন ইব্রাহিমের অন দ্য শর্টনেস অব লাইফ- সেনেকা পাঠকের কাছে খুব ভালো চলছে।
প্রথমা থেকে প্রকাশিত আনিসুল হকের ‘আলো-আঁধারের যাত্রী’, আসিফ নজরুলের ‘বেকার দিনের প্রেম’ ও গোলাম মুরশিদের ‘বিদ্রোহী রণক্লান্ত নজরুল জীবনী’ বই তিনটি খুবই ভালো বিক্রি হচ্ছে। ভাষাচিত্র থেকে প্রকাশিত সাদাত হোসেনের ‘নিঃসঙ্গ নক্ষত্র’ ও পাঠক চাহিদার শীর্ষে রয়েছে।
অমর একুশে উদ্যাপনের অংশ হিসেবে বাংলা একাডেমির উদ্যোগে গতকাল শুরু হয় দু’দিনব্যাপী (২২-২৩ ফেব্রæয়ারি ২০১৮) দক্ষিণ এশিয়ার সাম্প্রতিক সাহিত্য শীর্ষক আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলন। সকাল ১০:০০টায় বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ড. ফকরুল আলম। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভারতের অনুবাদক ও গবেষক রাধা চক্রবর্তী। সভাপতিত্ব করেন ইমেরিটাস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম।
স্বাগত বক্তব্য প্রদান করে অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার সাম্প্রতিক সাহিত্যের গতি-প্রকৃতি অনুধাবনে এ ধরনের সম্মেলন বিশেষ ভূমিকা পালন করে। এ অঞ্চলের মানুষের বৈচিত্র্যময় জীবন এবং একই সঙ্গে এর প্রাণচঞ্চল সাহিত্যসম্পদের সাক্ষাৎ পেতে দক্ষিণ এশিয় সাহিত্যের নিবিড় পাঠ এবং বিশ্লেষণ প্রয়োজন।
মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করে ড. ফকরুল আলম বলেন, দক্ষিণ এশিয় লেখকদের সাহিত্যে প্রান্তীয় মানুষের স্বর যেমন ওঠে আসে তেমনি নতুন এক সাহিত্যরীতিরও এ অঞ্চলের লেখকেরা জন্ম দিয়ে চলেন; যার মধ্যে সময়-দেশ ও মানুষের মহাস্বরই প্রতিধ্বনিত হয়ে চলে।
আলোচনায় অংশগ্রহণ করে ভারতের অনুবাদক ও গবেষক রাধা চক্রবর্তী বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার সাম্প্রতিক সাহিত্যে নানান অভিমুখ পরিলক্ষিত হলেও মানবমুখী প্রবণতাই প্রধান।
সভাপতির বক্তব্যে ইমেরিটাস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, ঔপনিবেশিক বাস্তবতা দক্ষিণ এশিয়ার সাধারণ মানুষকে যেমন স্বাধীনতার অদম্য স্পৃহা দান করেছে তেমনি এ অঞ্চলের লেখকদের মাঝে নতুন সাহিত্যিক রূপরীতি অনুসন্ধানের মানস গঠন করেছে। আজ অনুষ্ঠিত হবে দু’দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলনের শেষ দিন।
একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে সকাল ১০:০০টায় অনুষ্ঠিত হবে দক্ষিণ এশিয়ার কবিতা শীর্ষক আলোচনাপর্ব। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন অধ্যাপক কায়সার হক। আলোচনায় অংশ নেবেন নেপালের লেখক আভি সুবেদি, কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা, অধ্যাপক সোনিয়া নিশাত আমিন এবং সাদাফ সায্।
বেলা ১২:০০টায় দক্ষিণ এশিয়ার ভাষা এবং অনুবাদ শীর্ষক সমাপনী আলোচনা পর্বে বক্তব্য উপস্থাপন করবেন অধ্যাপক আবদুস সেলিম। আলোচনায় অংশ নেবেন রাশিদ আসকারী, ফায়েজা হাসানাত এবং জি এইচ হাবীব।

 

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ