Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ০৬ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

ঝিকরগাছার হিরা ব্রিক্স বন্ধের নির্দেশ

| প্রকাশের সময় : ২ মার্চ, ২০১৮, ১২:০০ এএম

যশোর ব্যুরো: যশোরের ঝিকরগাছার কুন্দিপুর গ্রামের সেই হিরা ব্রিক্স অবশেষে স্থায়ীভাবে বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে যশোর জেলা প্রশাসন। ঝিকরগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ইটভাটিটি বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। গত ১৯ ফেব্রæয়ারি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) স্বাক্ষরিত নোটিশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে দেয়া হয়। নোটিশের অনুলিপি হিরা ব্রিক্সের মালিক রফিকুল ইসলামের বরাবরও পাঠানো হয়েছে।
জানা গেছে, যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার নাভারণ ইউনিয়নের কুন্দিরপুর গ্রামে নির্মাণাধীন মেসার্স হীরা ব্রিকস্ এর পাশেই রয়েছে কুন্দিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও আরএকে আলিম মাদ্রাসা। এছাড়াও রয়েছে দুইটি মসজিদ। ২০১৩ সালের আইন অনুযায়ি কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এক কিলোমিটারের মধ্যে ইটভাটি নির্মাণের কোন সুযোগ নেই। কিন্তু এই আইন অমান্য করে নির্মাণ করা হচ্ছে ইটভাটিটি। স্থানীয়ভাবে ভাটা নির্মাণে বাধা দিয়ে কোন ফল না পেয়ে জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদফতরের হস্তক্ষেপ কামনা করে এলাকাবাসী। এর প্রেক্ষিতে উপজেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদফতর আলাদা আলাদা তদন্ত করে জেলা প্রশাসনের কাছে প্রতিবেদন জমা দেয়। এরপর প্রশাসন থেকে ইটভাটির সকল কর্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয় মালিক রফিকুল ইসলামকে। কিন্তু তিনি নির্দেশনা অমান্য করে ইটভাটির কার্যক্রম চালিয়ে যান। একপর্যায়ে ঝিকরগাছা উপজেলা প্রশাসন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে কয়েকজনকে আটক ও জরিমানা করে। এরই মধ্যে গত জানুয়ারি মাসে ভাটাটিতে ইট পোড়ানো শুরু হয়। এমন অভিযোগ পেয়ে যশোর জেলা প্রশাসন ৬ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। তদন্ত কমিটি হিরা ব্রিক্স পরিদর্শন করে জেলা প্রশাসনকে একটি প্রতিবেদন দেয়। এ প্রতিবেদনে ইটভাটি প্রস্তুত ও ইটভাটি স্থাপন নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৩ এর ৮(৩)এর ঙ ও চ অনুচ্ছেদ লঙ্ঘন করে হিরা ব্রিক্স নতুন ইটভাটি তৈরি করেছে মর্মে গঠিত তদন্তের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে। এ অবস্থায় ইটভাটির কর্যক্রম বন্ধের জন্য জেলা প্রশাসন থেকে ঝিকরগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের করতে বলা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নির্দেশ


আরও
আরও পড়ুন