Inqilab Logo

রোববার, ১৬ জানুয়ারী ২০২২, ০২ মাঘ ১৪২৮, ১২ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

লড়াইটা কোহলী বনাম গেইলের

প্রকাশের সময় : ৩১ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : ভারতের ক্রিকেটের হোম, শচীন, গাভাস্কারের জন্মস্থানÑমুম্বাইয়ে খেলতে এসে একটু বেশিই তাই চাঙ্গা হয়ে পড়ে ভারত ক্রিকেট দল। বিশ্বকাপে নিজের ফেয়ারওয়েল ম্যাচে ট্রফিতে হাত দিতে পেরেছেন ব্যাটিং জিনিয়াস শচীন টেন্ডুলকার নিজের এই ভেন্যুতেই। সেই ভেন্যু থেকেই এবার সেমি’র বাধা টপকে ট্রফির লড়াইয়ের স্বপ্ন দেখছে এই প্রজন্মের সেনশেসন বিরাট কোহলী।
ভারত-বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজের লড়াইটা উত্তাপ পাচ্ছে অন্য এক উত্তেজনায়। টি-২০’র প্রকৃত বিনোদনের পসরা সাজিয়েই বসেছে মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম। লড়াইটা কোহলী ভার্সেস গেইলÑম্যাচপূর্ব আলোচনায় এমনটাই উচ্চারিত হচ্ছে। ২০০৭’র চ্যাম্পিয়নদের মুখোমুখি ২০১২’র চ্যাম্পিয়নরা! লড়াইটা টি-২০’র আইসিসি র‌্যাংকিং ওয়ান ভার্সেস থ্রি’র। টি-২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচে ৪টি মুখোমুখি লড়াইয়ে ২ দলের কেউ নেই এগিয়ে, এখনো সমতা ২-২ এ। তবে টি-২০ বিশ্বকাপে কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজের অতীতটা ভারতের বিপক্ষে ভালোÑ৩ লড়াইয়ে ২টিতে জয়।
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় দিয়ে টি-২০ বিশ্বকাপ অভিযাত্রা এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের। সেখানে নিউজিল্যান্ডের কাছে হার দিয়ে শুরু করে পাকিস্তান, বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে সেমিতে ভারত। লড়াইটা যেহেতু ভারতের মাটিতে, সমর্থকদের বিপক্ষে খেলতে হবে তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। তবে আসর পূর্ব আলোচনায় গোনায় ধরেনি যে দলকে, সেই দলটি সুপার টেনের হার্ডল সহজে পেরিয়ে বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ নিয়েছে। লক্ষ্য তাদের একটাই, ট্রফি পুনরুদ্ধার। সেই হুংকার গতকাল সংবাদ সম্মেলনে দিয়েছেন ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক ড্যারেন স্যামীÑ‘সারা বিশ্বের বিপক্ষে দাঁড়িয়ে এখন আমরা। আমাদের সাথে আছে শুধু ১৫ জন ক্রিকেটার এবং সাপোর্টিং স্টাফ। আমাদের নিজেদের পরিধি এখন সারা বিশ্বের বিপক্ষে। সেটাই আমাদেরকে আমাদের খেলায় উদ্বুদ্ধ করবে। আমরা একজন ভারতীয় সমর্থক পাব না, যারা আমাদেরকে সমর্থন করবে। আমরা সে চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুত। আমরা এই টুর্নামেন্টে খেলতে এসেছি ১ নম্বর হয়ে। কিন্তু কেউ আমাদের সুযোগ দেয়নি। আমাদের নিয়ে অনেক কথা উঠেছে, আমরা তা নিয়ে কথা বলিনি। ইতোমধ্যে ৬ ধাপের মধ্যে চারটি পেরিয়েছি। এখন আমাদের সামনে ২টি ধাপ বাকি আছে।’
নিউজিল্যান্ডের কাছে বাজেভাবে হার দিয়ে শুরু করে সুপার টেনের পরের তিনটি ম্যাচ জিতে নিজেদের সেরাটা নিংড়ে দিতে মুখিয়ে ভারত। সেমিফাইনালে শিষ্যদের সেই সেরা খেলার অপেক্ষায় ভারতের টিম ডিরেক্টর রবি শাস্ত্রীÑ‘আমরা আমাদের সামর্থের ৭০ শতাংশও এই টুর্নামেন্টে খেলতে পারিনি। এখনো ৩০ শতাংশ জায়গায় উন্নতিন সুযোগ আছে। আশা করছি আগামীকাল এটা দেখাতে পারবো।’
এই টুর্নামেন্টে ভারত সেমিফাইনাল পর্যন্ত এসেছে কোহলীর ব্যাটে ভর করে। কোলকাতায় ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ উইনিং ৫৫, মোহালীতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নট আউট ৮২Ñনিজেকে একটু অন্যরকম চিনিয়েছেন টি-২০’র নাম্বার ওয়ান ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলী। সুপার টেনে ৪ ম্যাচে ১৮৪ রান (গড় ৯২.০০), ভারত ব্যাটিং লাইন আপে একমাত্র ধারাবাহিক যে তিনিই। কিন্তু সেখানে বড়ই মলিন ভারতের ওপেনিং জুটি, শিখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মাদের ওপেনিং পার্টনারশিপের গড় মাত্র ১১। এখানেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওপেনারদের সঙ্গে ব্যবধান সুস্পষ্ট। উইন্ডিজ ওপেনারদের গড় সেখানে চলমান বিশ্বকাপে ৪২!
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ উইনিং ১০০ ছাড়া বলার মতো ইনিংস নেই গেইলের। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচে ছিলেন দর্শকের কাতারে। তারপরও পুরোপুরি গেইল নির্ভর দল কিন্তু নয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওপেনার ফ্লেচারও যে দলটির ধারাবাহিক ব্যাটসম্যান (৩ ইনিংসে ১০৬ রান, গড় ১০৬)। বোলিং লাইন আপ নিয়ে তুলনামূলক আলোচনায়ও উইন্ডিজ বোলারদের পিছিয়ে রাখার সুযোগ নেই। ৪ ম্যাচে ২৫টি উইকেট শিকার করেছেন উইন্ডিজ বোলাররা। দুই পেস বোলার ডুয়াইন ব্রাভো, আন্দ্রে রাসেলের সঙ্গে লেগ স্পিনার স্যামুয়েল বাদ্রিও নির্ভরতা দিয়েছে দলটিকে। যেখানে ভারতের বোলিংয়ে ঔজ্জ্বল্য ছড়ায়নি কেউ। ২০০৯ এ লর্ডসে ১৫৪’র টার্গেটে ভারতের বিপক্ষে ৮ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটে জয়, ২০১০ এ বাররাডোজে ১৭০’র টার্গেট দিয়ে ভারতের বিপক্ষে ১৪ রানের জয় থেকে টনিক নিতে পারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। উপমহাদেশের মাটি থেকে (শ্রীলংকা) টি-২০ বিশ্বকাপের ট্রফি জিতে গেইলদের গ্যাংনাম ড্যান্সটাও এখনো মনে রেখেছে বিশ্ব। প্রেমাদাসায় স্বাগতিক শ্রীলংকা সমর্থকদের কাঁদিয়ে সেই জয়ের অতীতও স্যামীদের মুম্বাইয়ে রেখেছে ফুরফুরে আমেজে। সর্বশেষ টি-২০ বিশ্বকাপে মিরপুরে ১৩০’র টার্গেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৭ উইকেটে হারিয়ে দেয়ার নিকট অতীত থেকেও যে প্রেরণা পাচ্ছে ভারত।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লড়াইটা কোহলী বনাম গেইলের
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ