Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ০১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

শিরোপা স্বপ্ন দেখিয়ে গেলেন মাহমুদউল্লাহ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ মার্চ, ২০১৮, ১২:০০ এএম

ঘরে-বাইরে সময়টা খারাপ যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। মাঠে নেই আগের জৌলুস। প্রধান কোচের স্থায়ী দায়িত্বে নেই কেউ। দল নির্বাচনেও অস্থিরতা। গোলমেলে পরিস্থিতির মাঝে দলের সেরা খেলোয়াড় সাকিব আল হাসানও চোটে পড়ে বাইরে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে সব ফরম্যাটে ধরাশায়ী হওয়ার পর এবার ওদের দেশেই সফর। ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট নিদাহাস কাপের অন্য প্রতিপক্ষ শক্তিশালী ভারত। সব মিলিয়ে পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশকে জাগিয়ে তোলার ভার অন্তঃবর্তীকালীন প্রধান কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। শ্রীলঙ্কায় যাওয়ার আগে খেলোয়াড়দের নির্ভার থাকার মন্ত্র জানিয়েছিলেন আগের দিন এই বলে, ‘বাংলাদেশের হয়ে খেলার গর্বটা অনুভব করুক ক্রিকেটাররা’। তার একদিন বাদে সেই গর্বের অনুভুতি থেকেই কিনা ভঙ্গুর এক দল নিয়েই চ্যাম্পিয়ন হবার স্বপ্ন দেখিয়ে গেলেন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও।
আগের দিন আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে কেবল অন্তবর্তী প্রধান কোচ কোর্টনি ওয়ালশ এসেছিলেন। পিএসএলে খেলতে যাওয়া ভারপ্রাপ্ত মাহমুদউল্লাহ দলের সঙ্গে যোগ দিলেন একদিন পর। গতকাল বিকেলে কলম্বো পৌঁছেছে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে উড়াল দেওয়ার আগে বিমানবন্দরে নিজেদের লক্ষ্য জানিয়ে গেছেন অধিনায়ক। বললেন, ‘লক্ষ্য অবশ্যই টুর্নামেন্ট জেতা, এটা আমাদের প্রথম লক্ষ্য। তবে পাশাপাশি আমাদেরও অনেক কিছু করার বাকি আছে। অনেক কিছু প্রমাণ করার বাকি আছে।’
তবে তাতেই থেমে থাকছেন না ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক। টি-টোয়েন্টি সংস্করণে নিজেদের শক্তি সামর্থ্য নিয়ে উঠা সব প্রশ্নও মাটিচাপা দেওয়ার পণ তাদের, ‘আমরা কতটুকু ভালো করতে পারি এই সংস্করণে। শেষ সংবাদ সম্মেলনেও আমি এই কথাটা বলছিলাম অনেকের মনে হয়তো একটা প্রশ্নবোধক চিহ্ন আছে এই সংস্করণের শক্তিমত্তা নিয়ে। আমার মনে হয় এটা আমাদের জন্য খুব ভালো একটা প্ল্যাটফর্ম আমাদের নিজেদেরকে প্রমাণ করার জন্য।’
ত্রিদেশীয় এই সিরিজের শুরুটা বাংলাদেশ জয় দিয়ে করতে পারলে বাকি ম্যাচগুলাতেও আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠবে গেল মাসে ঘরের মাঠে টানা হারতে থাকা টাইগাররা। একটি জয়ই পারে দলের মোমেন্টাম ফিরিয়ে দিতে, আর সেই মোমেন্টামই পুরো টুর্নামেন্টে দলকে দারুণ কিছু করার খোরাক যোগাবে বলে বিশ্বাস করেন রিয়াদ, ‘আমার কাছে মনে হয় প্রথম ম্যাচটা খুব ভাইটাল আমাদের জন্য। সেইটা জিতেই টুর্নামেন্ট শুরু করতে চাই আমরা। আমরা যদি সেইটা জিততে পারি তবে শুরুটা ভালো হলে মোমেন্টাম পাব এবং এই একটা ম্যাচই কনফিডেন্স বুস্ট আপ করবে, বাকি ম্যাচগুলো কিভাবে ভালো করবেন।’
শ্রীলঙ্কায় স্বাগতিকরা ছাড়া অপর প্রতিপক্ষের নাম ভারত। শক্তিমত্তায় বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী দলগুলোর একটি। ওদের নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলিসহ বেশ কয়েকজন বিশ্রামে। তবু স্কোয়াডে যারা আছেন নিজেদের দিনেই যে কাউকে উড়িয়ে দিতে যথেষ্ট। প্রতিপক্ষের দিকে বেশি না দেখে নিজেদের দিকে মন মাহমুদউল্লøাহর। শ্রীলঙ্কায় প্রচুর খেলার সুবিধাটাও কাজে লাগাতে চান, ‘যে কোন প্রতিপক্ষই অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যার বিরুদ্ধেই খেলেন আপনার ভালো খেলতে হবে। আপনি এটা বলতে পারেন ঘরের মাটিতে আমরা খুব ভালো খেলছিলাম এখন আমাদের প্রত্যাশা অনেক বেশি বেড়ে গেছে। আমরা হয়তো শেষ সিরিজে আশানুরূপ পারফরম করতে পারিনি। তবে যেহেতু উপমহাদেশের পরিবেশ, বেশ অনেকবার আমরা খেলেছিও শ্রীলঙ্কায়। তো ইনশাআল্লøাহ আমরা ভালো কিছু করতে পারবো।’
আঙুলের ইনজুরিতে পড়ে লঙ্কাতেও খেলা হচ্ছে না সাকিব-আল-হাসানের। দলে সাকিবের মত পারফর্মারের অনুপস্থিত তাই ভাবাচ্ছে রিয়াদকেও। ভারত ও স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার সাথে এমন গুরুত্বপূর্ণ একটি সিরিজে এই অলরাউন্ডারের অনুপস্থিতি নিজেদের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি মেনে রিয়াদ বলেন, ‘সাকিবকে মিস করাটা দলের জন্য বেশ ক্ষতিকর। ওর মতো অপরিহার্য প্লেয়ার একাদশে না থাকাটা আমাদের জন্য কঠিন অনেক।’ সাকিবের অনুপস্থিতি দলকে ভাবালেও থেমে থাকবে না বাংলাদেশ দল। বরং বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবে নিয়ে ভাল কিছু করে দেখানোর কথা জানিয়ে রিয়াদ বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য ভালো করার একটি সুযোগ। আমাদের প্রথম লক্ষ্য থাকবে এই টুর্নামেন্ট জেতা। সেই সাথে আমার মনে হয় আমাদেরও অনেক কিছু করার বাকি আছে টি-টোয়েন্টিতে, এবং অনেক কিছু প্রমাণ করারও আছে যে আমরা কতটুকু ভালো দল হতে পারি এই ফরম্যাটে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর