Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮, ১১ আষাঢ় ১৪২৫, ১০ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী

তামাকে অবৈধ বাণিজ্যে প্রতিবছর ২৪৫ কোটি টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

জনস্বাস্থ্য রক্ষা ও অবৈধ বাণিজ্য বন্ধে এফসিটিসি প্রটোকল স্বাক্ষরের দাবি তামাক বিরোধী সংগঠনগুলোর

| প্রকাশের সময় : ১২ মার্চ, ২০১৮, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : বাংলাদেশে তামাকের অবৈধ বাণিজ্যের পরিমাণ বছরে ৯৪ কোটি ৪০ লাখ টাকা। ফলে প্রতিবছর সরকারকে ২৪৪ কোটি ৫০ লাখ টাকার রাজস্ব হারাতে হয়। শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, জুলাই ২০১৬ থেকে অক্টোবর ২০১৭ পর্যন্ত আটককৃত অবৈধ বিদেশী সিগারেটের পরিমান ২ দশমিক ৭৮ কোটি শলাকা যার মূল্য ৪৩ দশমিক ৬৩ কোটি টাকা। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এলায়েন্স ফর এফসিটিসি ইমপ্লিমেন্টেশন (এএফআই) বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশ তামাক বিরোধী জোটভুক্ত সংগঠনগুলোর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তারা এ তথ্য তুলে ধরেন। মাদকদ্রব্য ও নেশা বিরোধী কাউন্সিল (মানবিক) এর তামাক নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা সুমন শেখের পরিচালনায় ‘জনস্বাস্থ্য রক্ষায় ও রাজস্ব বৃদ্ধিতে চোরাচালানকৃত সিগারেট বানিজ্য বন্ধে এফসিটিসি প্রটোকল স্বাক্ষরের দাবীতে অবস্থান ও মানববন্ধন’ কর্মসুচিতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মাদকদ্রব্য বিরোধী ফেডারেশনের মহাসচিব আশরাফ আলম কাজল। বিশেষ বক্তা ছিলেন এলায়েন্স ফর এফসিটিসি ইমপ্লিমেন্টেশন (এএফআই) বাংলাদেশ এর কনভেনর এবং নিরাপদ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান ইবনুল সাইদ রানা। আশরাফুল আলম কাজল বলেন, এফসিটিসি বাস্তবায়নের মাধ্যমে এসডিজি লক্ষমাত্রা অর্জন ও তামাকমুক্ত দেশ গড়তে অবিলম্বে তামাকজাতদ্রব্যের অবৈধ বাণিজ্য বন্ধে এফসিটিসির আর্টিকেল-১৫ অনুযায়ী প্রণীত এফসিটিসি প্রটোকল স্বাক্ষর ও অনুস্বাক্ষর করে বিশ্বব্যাপী একত্রে তামাকের অবৈধ বাণিজ্য বন্ধের উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। ইবনুল সাঈদ রানা বলেন, প্রতিবছর তামাকের কারণে বাংলাদেশে ৯২ হাজার লোক মৃত্যুবরণ করে এবং প্রায় ৪ লাখ লোক পঙ্গুত্ব বরণ করে।

 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
fifa-worldcup-2018