Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

সুইমিংপুলে আরিফুল ঝড়

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ মার্চ, ২০১৮, ১২:০০ এএম

বাংলাদেশ যুব গেমসের চুড়ান্ত পর্বে সাঁতারে সুইমিং পুলে ঝড় তুলেছেন ঢাকা বিভাগের কিশোরগঞ্জের তরুণ সাঁতারু আরিফুল ইসলাম। আগের দিন তিনটি ইভেন্টে স্বর্ণ জেতার পর গতকাল গেমসের তৃতীয় দিন দু’টি ইভেন্টে সেরা হয়েছেন তিনি। ফলে বালকদের পাঁচ ইভেন্টে অংশ নিয়ে সবক’টিতেই স্বর্ণপদক জিতেছেন আরিফুল। সাঁতারের বালিকা বিভাগে খুলনার খাদিজা আক্তার বৃস্টি পেয়েছেন দুই স্বর্ণ ও এক রৌপ্যপদক। এদিন অ্যাথলেটিক্সের ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে ময়মনসিংহ বিভাগের জহির, রাজশাহীর শিউলি জিতেছেন স্বর্ণ। আর উশুর ৫৬ কেজি ওজনশ্রেণীতে সেরা হয়ে যুব গেমসে আলো ছড়িয়েছেন রংপুরের নারী ফুটবলার রানী।
আরিফুল ও খাদিজার শ্রেষ্ঠত্বের মধ্যদিয়ে কাল শেষ হলো বাংলাদেশ যুব গেমসের সাঁতার ডিসিপ্লিনের খেলা। এদিন মিরপুরস্থ জাতীয় সুইমিং কমপ্লেক্সে পাঁচ স্বর্ণপদক জেতায় বালক বিভাগ থেকে সেরা সাঁতারু নির্বাচিত হয়েছেন ঢাকার আরিফুল ইসলাম। বালিকা বিভাগ থেকে সেরা সাঁতারু নির্বাচিত হয়েছেন খুলনার খাদিজা আক্তার বৃষ্টি।
বালক বিভাগে আরিফুলের সঙ্গে কেউ লড়াই-ই করতে পারেননি। পুলে কেবল তারই রাজত্ব ছিল। তার সঙ্গে লড়াই করা খুলনার আল-আমিন ও মিঠু মিয়া একটি করে স্বর্ণ জিতেছেন। এছাড়া একটি করে রৌপ্য জিতেছেন এই দুজন। তবে বালিকা বিভাগে লড়াই হয়েছে। খাদিজা আক্তার বৃষ্টির মতো দুটি স্বর্ণ জিতেছেন খুলনার সুম্মা খাতুন ও রুপা খাতুনও। তবে একটি রৌপ্য বেশি জেতায় এগিয়ে যান খাদিজা। সাঁতারের সর্বশেষ ইভেন্ট ২০০ মিটারে স্বর্ণ জিতেন খুলনার আরেক সাঁতারু ফাতেমা আক্তার কেয়া।
আরিফুলের রাজত্বের পরও চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি ঢাকা বিভাগ। শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পড়েছে খুলনা বিভাগ। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে আটটি স্বর্ণ ও আটটি রৌপ্য জিতেছে তারা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ঢাকা বিভাগ জিতেছে ছয় স্বর্ণ, ছয় রৌপ্য ও দুটি ব্রোঞ্জপদক। এ দুই দলের দাপটে গেমসের চুড়ান্ত পর্বের বাকি দুই বিভাগ চট্টগ্রাম ও রাজশাহী সুবিধা করতে পারেনি। একটিও স্বর্ণ জিততে পারেনি তারা। চট্টগ্রাম নয়টি ব্রোঞ্জ ও রাজশাহী ভাগ্যে জুটেছে তিনটি ব্রোঞ্জপদক।
পারিবারিক ঐতিহ্যে সাতাঁর শিখেছেন আন্তর্জাতিক আসরে বাংলাদেশের হয়ে স্বর্ণপদক জয়ের স্বপ্ন দেখা আরিফুল। তার কথা, ‘বড় ভাই সাঁতারু ছিলেন। তাকে দেখেই সাঁতারে এসেছি আমি। বিভিন্ন পর্যায়ে পদক জিতেছি। স্বর্ণপদক জয় সব সময়ই আনন্দ দেয়। যুব গেমসে পাঁচটি স্বর্ণ জিতেছি, বেশ ভালো লাগছে। এই ধারাবাহিকতা বড় আসরেও ধরে রাখতে চাই। বাংলাদেশকে স্বর্ণ এনে দিতে চাই।’
বালিকা বিভাগের সেরা সাঁতারু খাদিজা আক্তার বৃষ্টি মা’র অনুপ্রেরনায় এমন সাফল্য পেয়েছেন বলে জানান। তার কথা, ‘দুটি স্বর্ণ পদক ও একটি রৌপ্য জিতেছি। অনেক ভালো লাগছে। সেরা সাঁতারু নির্বাচিত হওয়ায় আরো বেশি ভালো লাগছে। আমার পরিবারের অনেকেই সাঁতারু। মা সাঁতার শেখান। ভাই সাঁতারু ছিলেন। তাদের দেখেই সাঁতারে এসেছি। তাদের এবং আমার স্বপ্ন পূরণের জন্য সব ধরনের চেষ্টাই করবো আমি।’
এদিকে অ্যাথলেটিক্সের প্রথমদিনে কাল সবচেয়ে আকর্ষণীয় ইভেন্ট ছিল ৪০০ মিটার স্প্রিন্ট। তবে আকর্ষণীয় এই ইভেন্টে নতুন কেউ সেরা হতে পারেনি। তরুণ-তরুণী দু’বিভাগেই পুরনো মুখ জহির রায়হান এবং শিউলি খাতুন বাজিমাত করেছেন। দু’জনই জাতীয় জুনিয়র চ্যাম্পিয়নশিপে স্বর্ণজয়ী অ্যাথলেট। দু’জনই আবার বিকেএসপির শিক্ষার্থী। ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে তরুণ বিভাগে ময়মনসিংহের অ্যাথলেট শেরপুরের সন্তান জহির রায়হান ৪৯.৭০ সেকেন্ড সময়ে দৌড় শেষ করে স্বর্ণ, চট্টগ্রাম বিভাগের জুবাইয়ের ৫১.০০ সেকেন্ড সময় নিয়ে রুপা এবং ঢাকার আল নাঈম শেখ ৫১.৪০ সেকেন্ড সময় নিয়ে ব্রোঞ্জপদক জেতেন। তরুণী বিভাগে রাজশাহী বিভাগের পাবনার মেয়ে শিউলি খাতুন ১ মিনিট .১.১০ সেকেন্ড সময়ে দৌড় শেষ করে স্বর্ণ, খুলনার আইভি আখতার অরিন ১ মিনিট .৩.১০ সেকেন্ড সময় নিয়ে রুপা এবং চট্টগ্রামের সামসুন নাহার ১ মিনিট .৩.৮০ সেকেন্ড সময়ে দৌড় শেষ করে ব্রোঞ্জপদক জেতেন।
অন্যদিকে রাজশাহীর শ্রেষ্ঠত্বের মধ্যদিয়ে শেষ হলো যুব গেমস আরচ্যারি। প্রতিযোগিতা শেষে রাজশাহী পেয়েছে ৩ স্বর্ণ ও ২টি রৌপ্যপদক। কাল টঙ্গিস্থ শহীদ আহসান উল্লাহ্ মাস্টার স্টেডিয়ামে দু’দিনব্যাপী প্রতিযোগিতার শেষ দিনে রিকার্ভ তরুন এককে চট্টগ্রাম বিভাগের চাঁদপুর জেলার বিকেএসপির ছাত্র মিশাদ প্রধানের স্বর্ণ জয় করেন। এই ইভেন্টের তরুনী এককে স্বর্ণ পান রাজশাহীর বিকেএসপির ছাত্রী রাবেয়া খাতুন। টিম মিক্সড ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেন রাজশাহীর রাদিয়া আক্তার শাপলা ও তাওহিদ। রিকার্ভ তরুন টিম ইভেন্টে স্বর্ণ পেয়েছেন ঢাকার ইব্রাহিম শেখ, সাকিব মোল্লা ও আশরাফ মোল্লা। রিকার্ভ তরুনী টিম ইভেন্টে স্বর্ণ জয় করেন রাজশাহীর রাদিয়া আক্তার শাপলা, রাবেয়া খাতুন ও হুমাইরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন