Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮, ১১ আষাঢ় ১৪২৫, ১০ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী

চাঁদপুরে জাটকা রক্ষায় ১৪ ম্যাজিস্ট্রেট

চাঁদপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ মার্চ, ২০১৮, ১২:০০ এএম

ইলিশের অভয়াশ্রম চাঁদপুর পদ্মা-মেঘনা নদীতে ১ মার্চ থেকে জাটকা রক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত। এ সময়ে নদীতে সকল প্রকার জাল ফেলা এবং মাছ আহরণ নিষিদ্ধ করেছে সরকার। নদীতে জেলেরা যাতে ইলিশের পোনা জাটকা শিকার করতে না পারে সে জন্য কাজ করছে জেলা ট্রাস্কফোর্স। জেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে নৌ-পুলিশ, কোস্টগার্ড ও জেলা মৎস্য বিভাগ যৌথভাবে দিনরাত অভিযান করছে।
নবাগত চাঁদপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান নদীতে জাটকা রক্ষায় ইতিমধ্যে জিরো ট্রলারেন্স ঘোষনা করেছেন। তিনি জাটকা বিরোধী ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহন করেছেন। জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে জাটকা সংরক্ষণ কার্যক্রমের প্রচারপত্র প্রকাশ করেছেন। অতিরিক্তি জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা আক্তারসহ ১৪ জন নির্বাহী ম্যাজিস্টেট চাঁদপুর পদ্মা-মেঘনা নদীতে জাটকা বিরোধী অভিযানে নেমেছে।
জেলা মৎস্য বিভাগ, কোস্টগার্ড ও নৌ-পুলিশের সাথে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের অভিযানে সফলতা আসতে শুরু করেছে। শুধুমাত্র চাঁদপুর সদরে ইউএনও, সদর এসিল্যান্ডসহ ৯ জন ম্যাজিস্ট্রেট কাজ করছে। এর মধ্যে দিনে-রাতে ৫জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সার্বক্ষনিক অভিযানে রয়েছেন। হাইমচর ও মতলব উত্তরে ৪ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজ করছেন। এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নারায়ন চন্দ্র পাল দৈনিক ইনকিলাবকে জানান, কোথাও জাটকা শিকারের খবর পেলে তাৎক্ষনিক অভিযান হবে। নদীতে দিনে-রাতে ৫ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সার্বক্ষনিক অভিযানে রয়েছেন।

 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
fifa-worldcup-2018
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ