Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌
শিরোনাম

সালমার আড়াই বছরের মেয়ের কি হবে?

| প্রকাশের সময় : ১৪ মার্চ, ২০১৮, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার: নেপালে ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা কেড়ে নিয়েছে পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সহকারী প্রধান উম্মে সালমার জীবন। কিন্তু তার আড়াই বছরের মেয়ে সামারা এখনও জানে না তার মা চলে গেছেন না ফেরার দেশে। শিশুটি এখনও অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে কখন তার মা তার জন্যে খেলনা নিয়ে আসবে!
বুয়েট থেকে বেরিয়ে দুই বছর পর বিসিএস দিয়ে পরিকল্পনা কমিশনে জয়েন করেন মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে উম্মে সালমা। তিনি পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সহকারী প্রধানের দায়িত্বে ছিলেন। স্বামী-সন্তান নিয়ে রাজধানীর বেইলি রোডের সরকারি স্টাফ কোয়াটারে থাকতেন । ভাড়া বাসা থেকে জমি কিনে রাজধানীর দক্ষিণখানের ইসলামবাগের হলান সড়কে বাড়ি নির্মাণ করেছিলেন তিনি। সেখানেই মূলত দীর্ঘ সময় পরিবারের সঙ্গে কাটিয়েছেন উম্মে সালমা। সোমবার সহকর্মীর সঙ্গে সরকারি কাজে নেপালের উদ্দেশ্যে ইউএস-বাংলার বিমানে চড়েন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে উম্মে সালমার দক্ষিণখানের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় শুনশান নিরবতা। সারা বাড়িজুড়ে নিস্তব্ধতা। যে বড় আঙ্গিনা জুড়ে শিশুরা খেলতো, সেখানে গতকাল বিকেল থেকে কোনো শিশু আর খেলছে না। তার পরিবার থেকে জানা যায়, উম্মে সালমা সরকারি চাকরির সুবাদে স্বামী-সন্তান নিয়ে রাজধানীর বেইলি রোডের সরকারি স্টাফ কোয়াটারে থাকতেন। প্রায়ই আসতেন এখানে। সে এলে মুখরিত হতো পুরো বাড়ি। বাচ্চারা মজে যেতো। ওকে পেলে খুশি হতো সবাই। কিন্তু বিমান দুর্ঘটনার খবরে সবাই স্তব্ধ হয়ে যায়। এখনও তারা বিশ্বাসই করতে পারছে না যে সালমা আর ফিরবে না। সালমার বড় ভাই আনোয়ার সাদত জানায়, সালমার নেপাল পৌঁছার কথা ছিল দুপুর দেড়টা-২টার মধ্যে। আমরা ৩টার দিকে দুর্ঘটনার খবর পাই। মৃত্যুর খবরে ছুটে আসেন স্বজনরা। ওর মরদেহ আনতে নেপাল গেছেন বড় ভাই আবুল কালাম আজাদ ও স্বামী মাসুদ উদ্দিন ভূঁইয়া। স্বামী আমেরিকান টোব্যাকো কোম্পানির ইলেকট্রিক ইঞ্জিনিয়ার।
উম্মে সালমার মা ফজিলাতুন্নেছা বলেন, সালমার মেয়ে সামারা এখনো জানে না তার মায়ের খবরটি। মা হয়ে সন্তানের মৃত্যুর সংবাদ শোনা বড় কষ্টের। ওর অভাব কখনো পূরণ হবে না। পরিবার তো বটেই, দেশ, সরকারও ক্ষতিগ্রস্ত হল।
উল্লেখ্য, সোমবার দুপুরে নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস-বাংলার বিমান বিধ্বস্ত হয়। এতে চারজন ক্রুসহ ৭১ যাত্রী ছিলেন। তাঁদের মধ্যে ৫০ জন নিহত হয়েছেন। এই নিহতদের একজন হচ্ছেন পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সহকারী প্রধান উম্মে সালমা।



 

Show all comments
  • রিফাত ১৪ মার্চ, ২০১৮, ২:৩০ এএম says : 0
    আল্লাহ তুমি তার প্রতি রহমত নাযিল করো।
    Total Reply(0) Reply
  • ১৪ মার্চ, ২০১৮, ৭:২৩ এএম says : 0
    খুবই পরিতাপের বিষয়।
    Total Reply(0) Reply
  • Jalal ১৪ মার্চ, ২০১৮, ১২:৫১ পিএম says : 0
    Allah will save her insha allah. If it could be possible I would accept her.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ