Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৮ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

বিএনপির দুঃসময়ে খোন্দকার দেলোয়ারের মতো নেতার প্রয়োজন ছিল -নজরুল ইসলাম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ মার্চ, ২০১৮, ৪:২১ পিএম

বিএনপির আজকের দুঃসময়ে খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের মতো মহান নেতা খুবই বেশি প্রয়োজন ছিল বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে ভাগ্যবান তিনি যখন মহাসচিব ছিলেন তখন আমি তার সাথে থেকে যুগ্ম মহাসচিবের দায়িত্ব পালন করেছি। সহজ-সরল, সাদামাটা এই মানুষ এতই সাধারণ জীবনযাপন করতেন যে, অনেক সময় তার পাঞ্জাবি-পায়জামা রুমের ভিতরে ঝুলিয়ে রাখতেন। একটি হাফ হাতা গেঞ্জি পরে আমাদের সাথে নানা বিষয়ে কথা বলতেন। অনেক সময় খালি গায়েও থাকতেন তিনি। এলাকার মানুষের সাথে ছিল তার নিবিড় সম্পর্ক।

বৃহস্পতিবার (১৫ মার্চ) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘ঘুরে দাঁড়াও বাংলাদেশ’-এর উদ্যোগে বিএনপি’র সাবেক মহাসচিব অ্যাড. খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণ সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনকে চেতনার বাতিঘর আখ্যায়িত করে বিএনপির নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন ছিলেন একজন আদর্শবান শহীদ জিয়ার সুযোগ্য অনুসারী। তিনি কখনো বিএনপি এবং জিয়া পরিবারের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা ও প্রতারণা করেননি। জীবন দিয়ে প্রমাণ করে গেছেন তিনি জাতীয়তাবাদী দল ও বিএনপিকে কত ভালবাসেন। অনেক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন একজন আদর্শ শিক্ষকও ছিলেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, খোন্দকার দেলোয়ার ৫২’র ভাষাসৈনিক, ৭১’র মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক এবং জাতীয়তাবাদী দলের গঠনকাল থেকেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন। নির্লোভ এই রাজনীতিবিদ জীবনে বহু অত্যাচার সহ্য করেছেন। তার সন্তানকেও নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে। তারপরও তিনি থেমে থাকেননি।

সংগঠনের সভাপতি কাদের সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে আলোচনায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুঁইয়া, বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, বিএনপির সহ-যুব বিষয়ক সম্পাদক মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ইসমাঈল হোসেন বেঙ্গল প্রমুখ।



 

Show all comments
  • Mohammed Shah Alam Khan ১৫ মার্চ, ২০১৮, ৯:৩২ পিএম says : 0
    “ঘুড়ে দাঁড়াও বাংলাদেশ” এই সংঘঠনটি কারা করেছেন কি উদ্দেশ্যে করেছেন এটা সংগঠনের নাম শুনলেই বুঝা যায় তাই না?? সংগঠনের নাম এবং এর সাথে বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধারা জড়িত থাকায় এটাই প্রতীয়মান হয় যে, এনারা মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি হিসাবে নিজেদেরকে প্রকাশ করতে চায় তাই না??? ............ আল্লাহ্‌ আমাদের সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করার ক্ষমতা দান করুন। আমীন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নজরুল ইসলাম

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ