Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

আপত্তিকর ছবি তুলে মুক্তিপণ আদায় : দুই নারীসহ আটক-৩

প্রকাশের সময় : ১ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

রাজশাহী ব্যুরো : জমিজমা সংক্রান্ত কাজে রাজশাহীর আদালত থেকে ফেরার পথে কৌশলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে দুই ব্যক্তির সঙ্গে জোরপূর্বক আপত্তিকর ছবি তুলে কুড়ি হাজার টাকা মুক্তিপণ আদায়ের ঘটনা ঘটেছে। তাদের কাছ থেকে কেড়ে নেয়া হয় দুইটি মোবাইল ফোনও। খবর পেয়ে রাজশাহী র‌্যাবের একটি দল বুধবার রাত ১০টার দিকে নগরীর শিরলোইল এলাকার এক বাড়িতে অভিযান চালিয়ে নারীসহ প্রতারক চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে। তবে উদ্ধার হয়নি বিকাশে নেয়া মুক্তিপণের অর্থ।
র‌্যাব-৫ সূত্র জানায়, জমিজমার মামলা সংক্রান্ত কাজে রাজশাহীর আদালতে এসেছিল বাগমারা উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের ইয়ানুস আলী ইনু (৫০) ও সাজুড়িয়া গ্রামের আব্দুল বারিক (৬০)। মামলার কাজ সেরে বিকেলে বাড়ি ফেরার সময় তারা প্রতারক চক্রের খপ্পরে পড়ে। শাহানাজ (৪৮) নামের এক মহিলা কৌশলে তাদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। বাড়িতে নিয়ে গিয়ে তাদের দুইজনকে একটি ঘরে আটকে রেখে তাদের কাছ থেকে নগদ সাড়ে ৫ হাজার টাকা ও দুইটি মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। এর পর ৪/৫ জন যুবক ইয়াসমিন (২০) নামের এক যুবতীকে বিবস্ত্র করে ওই দুইজনের সঙ্গে জোরপূর্বক ছবি তোলে। এসময় তাদের প্রাণনাশের হুমকিও দেয়া হয়। এর পর তারা ইনুর মোবাইল থেকে তার পরিবারের সদস্যদের ফোন করে দেড় লাখ টাকা দাবি করে। সর্বশেষ সন্ধ্যায় তারা ২০ হাজার টাকায় রাজি হয়ে নগরীর কুমারপাড়াস্থ মিম নামের বিকাশের দোকানের নাম্বার দেয়। ওই বিকাশ নম্বারে ২০ হাজার টাকা পাওয়ার পর তাদের ছেড়ে দেয়।
ইয়ানুস আলী ইনু বলেন, তাদের এলাকার রেজাউল নামের এক ব্যক্তি ৫০০ টাকা দিয়েছিল শিরোইল এলাকার শাহানাজকে পৌঁছে দেয়ার জন্য। সঙ্গে ফোন নম্বার দেয়। সে টাকা পৌঁছে দিতে গিয়ে কৌশলে তাদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে একটি ঘরে বন্দি করে এবং আপত্তিকর ছবি তুলে পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে মুক্তিপণ দাবি করে।
র‌্যাব-৫ এর উপ-অধিনায়ক স্কোয়াডন লিডার এবিএম মোবাশ্বের জানান, খবর পেয়ে প্রথমে বিকাশের দোকানে অভিযান চালানো হয়। তবে র‌্যাব পৌঁছার কিছুক্ষণ আগেই তারা টাকা তুলে নেয়। টাকা পেয়ে তারা আটক দুইজনকে ছেড়ে দেয়। র‌্যাব তাদের সঙ্গে নিয়ে ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে প্রতারক চক্রের তিন সদস্য ইয়াসমিন, শাহিন ও রকিকে আটক করে। এ ঘটনায় ইনু বাদী হয়ে রাতেই ৬-৭ জনের বিরুদ্ধে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করে। মামলায় আটক ইয়াসমিন, শাহিন, রকি ও রেজাউলের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আপত্তিকর ছবি তুলে মুক্তিপণ আদায় : দুই নারীসহ আটক-৩
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ