Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

রাজনৈতিক মামলা অন্যত্র শুনানি করতে রিট

সুপ্রিম কোর্টে প্রবেশে বাধা

| প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০১৮, ১০:৩৮ পিএম

স্টাফ রিপোর্টার : রাজনৈতিক মামলা নিষ্পত্তির জন্য সুপ্রিম কোর্টের বাইরে অন্যত্র বেঞ্চ গঠনের জন্য রিট আবেদন করা হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুরে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ এ রিট দায়ের করেন। গত ১৮ মার্চ বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার লিভ টু আপিল শুনানির দিন বিচারপ্রার্থীদেরকে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে প্রবেশ করতে বাধাদেন কর্তব্য পালনরত পুলিশ সদস্যেরা। আইনজীবীদেরকে নানাভাবে হরয়ানি করা হয় বলে অভিযোগ উঠে। ওই দিন ওই আইনজীবী রাজনৈতিক মামলা অন্যত্র স্থানান্তরের জন্য আবেদন করেন। পরে গতকাল রিট মামলাটি করেন।
আবেদনে বলা হয়, সুপ্রিম কোর্টে রাজনৈতিক মামলার শুনানি থাকার কারণে কোর্টের বিভিন্ন গেট দিয়ে আইনজীবী, ক্লার্ক ও মক্কেলদের পুলিশ ভেতরে ঢুকতে দিচ্ছে না। আবার ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকার পর কয়েকজন আইনজীবীকে ঢুকতে দিলেও পুলিশের অযথা হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে।
আবেদনে আরো বলা হয়, ১৬ কোটি মানুষের জন্য উচ্চ আদালত। এখানে ফরিয়াদি পক্ষ আসবে, জনগণ এখানে আসবে। কিন্তু পুলিশের বাধার কারণে আইনজীবীদের সঙ্গে মোসাবিদা (খসড়া) করতে পারছে না। পুলিশ সংবিধানের ৩৫ অনুচ্ছেদ লঙ্ঘন করছে। তাই রাজনৈতিক মামলা নিষ্পত্তি ও শুনানির জন্য প্রয়োজনে সংবিধানের ১০০ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সুপ্রিম কোর্টের বাইরে অন্যত্র সার্কিট বেঞ্চ গঠন করুন।
১৮ বছরের কম বয়সীদের ছবি প্রকাশ নিয়ে রুল
বিচারাধীন মামলায় ১৮ বছরের কম বয়সী শিশুদের ছবি (আসামি কিংবা ভুক্তভোগী) প্রকাশ করা যাবে না মর্মে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। গতকাল সোমবার এ সংক্রান্ত রিটের শুনানি শেষে বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে আদালত এ সংক্রান্ত আইনের অস্পষ্টতা দূর করার বিষয়ে গেজেট জারির নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়েও রুল জারি করেন। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব এবং নারী ও শিশু মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ ছয়জনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। জনস্বার্থে তিন আইনজীবী কামাল নিয়াজী, আশফাকুর রহমান ও মিফতা-উল আলম সোমবার রিট আবেদনটি দায়ের করেন। রিট আবেদনের ওপর শুনানি করেন ব্যারিস্টার হাসান এম এইচ আজিম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ