Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ১১ বৈশাখ ১৪২৫, ০৭ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
শিরোনাম

খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি- সারাদেশে বিএনপির বিক্ষোভ

| প্রকাশের সময় : ২১ মার্চ, ২০১৮, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সারাদেশে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিএনপি। দলীয় প্রধানের মুক্তি এবং নেতাকর্মীদের গ্রেফতার, নির্যাতন ও হামলার প্রতিবাদে এই কর্মসূচি ঘোষণা করে দলটি। ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল (মঙ্গলবার) ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপি থানায় থানায় বিক্ষোভ করেছে দলের নেতাকর্মীরা। লীভ টু আপিলে খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত করার প্রতিবাদে শাহবাগ থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি আবুল হাসান তালুকদার ননী ও সহ-সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান সাইদের নেতৃত্বে বিজয় নগর পানির ট্যাংকির সামনে থেকে শুরু হয়ে বিজয় নগর বিজয় নগর অতিক্রম করতেই পুলিশের ধাওয়া মিছিলটি ছত্র ভঙ্গ হয়ে যায়। চকবাজার থানা বিএনপি দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক খতীবুর রহমান খোকনের নেতৃত্বে ছোটকাটরা থেকে শুরু হয়ে চম্পাতলী হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে ইমামগঞ্জ মোড়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়। আপর একটি মিছিল হাজী টিপু সুলতানের নেতৃত্বে পুরাতন জেল খানার মোড়ে হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মতিঝিল থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল হাজী মোঃ সোলায়মান আলীর নেতৃত্বে সাদেক হোসেন কমিনিউটি সেন্টারের সামনে থেকে শুরু হয়ে কমলাপুর কাঁচা বাজার প্রদক্ষিণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক এর পিছনে গিয়ে শেষ হয়। দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি ইউনুস মৃধার নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল খিলগাঁও সিপাহীবাগ বাজার হতে খিলগাঁও মৌলভীট্যাক চৌরাস্তা গিয়ে শেষ হয়। রমনা থানা বিএনপি নেতা আব্দুল মোতালেব রুবেলের নেতৃত্বে মিছিল মগবাজার ওয়ালেস রেল গেইটের সামনে থেকে শুরু হয়ে চৌরাস্তা মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। কলাবাগান থানার বিক্ষোভ মিছিল দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ সিরাজুল ইসলাম সিরাজের নেতৃত্বে পান্থপথ ফার্নিচার মার্কেটের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে শমরিতা হাসপাতালের সামনে গিয়ে শেষ হয়। যাত্রাবাড়ী বিএনপির মিছিল শহীদ ফারুক সড়ক থেকে দয়াগঞ্জ গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে নেতৃত্ব দেন থানা বিএনপি নেতা ঃ আলহাজ্ব মিজানুর রহমান ভান্ডারী, আলহাজ্ব আনোয়ার সর্দার। কামরাঙ্গীরচর থানা বিএনপির নেতা হাজী মনির হোসেন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে রসুলপুর রনি মার্কেট এর সামনে মিছিলের প্রস্তুতির সময় পুলিশের হামলায় ৪/৫ জন নেতাকর্মীরা আহত হন। শ্যামপুর থানার মিছিল কাজী মাহবুব মাওলা হিমেল ও হাজী মোজাম্মেল হকের নেতৃত্বে জুরাইন বাজার থেকে শুরু হয়ে গেন্ডারিয়া রেল স্টেশনে সামনে যেতে পুলিশি হামলা মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। দক্ষিণ বিএনপি সহ-সভাপতি ও কদমতলী থানা বিএনপি সভাপতি হাজী মীর হোসেন মীরুর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল জুরাইন রেলগেট হতে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে গেন্ডারিয়া ঘুন্টিঘরে এসে শেষ হয়। গেন্ডারিয়া বিএনপির মিছিল ধোপখোলা মাঠ থেকে শুরু করে গেন্ডারিয়া হাই স্কুল এর সামনে গিয়ে গিয়ে শেষ হয়। সূত্রাপুর থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আঃ সাত্তারে নেতৃত্বে ভিক্টোরিয়া পার্ক থেকে শুরু হয়ে লক্ষী বাজার আসলে পুলিশি বাধার মুখে মিছিটি ছত্র ভঙ্গ হয়ে যায়। ওয়ারী বিএনপির মিছিল গোলাম মোস্তফা সেলিম ও মোঃ ইব্রাহিমের নেতৃত্বে টিকাটুলী থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কে এম দাস লেনে শেষ হয়। বংশাল থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আরিফুর রমহমান নাদিম ও লতিফুল্লাহ জাফরুর নেতৃত্বে আরমানীটোলা বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে তারা মসজিদের সামনে গিযে শেষ হয়। বংশাল থানার অপর একটি মিছিল মোঃ হুমায়নের নেতৃত্বে আনন্দ ডেইরী ফার্ম থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কাহেরটুলী সাত মন্দির রোডে গিয়ে শেষ হয়। বিএনপি নেতা সাইফুলের নেতৃত্বে কোতয়ালী থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল বাবু বাজার থেকে শুরু হয়ে বাদামতলী ফল পট্টি গিয়ে শেষ হয়। এ ছাড়াও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির লালবাগ, হাজারীবাগ, মুগদা, পল্টন, নিউমার্কেট, সবুজবাগ, ডেমরা, ধানমন্ডি থানার নেতৃবৃন্দ বিক্ষোভ মিছিল করে।
একই কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি থানায় থানায় বিক্ষোভ মিছিল করে। বাড্ডা থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল সকালে গুলশান-বাড্ডা লিংক রোড এলাকায় শুরু করতে গেলে ব্যাপক পুলিশী বাঁধায় মিছিলটি পন্ড হয়ে যায়। মোহাম্মদপুর থানার মিছিল উত্তর বিএনপির সহ-সভাপতি ও সাবেক কমিশনার আতিকুল ইসলাম মমিনের নেতৃত্বে শুরু হলে বিএনপি ও সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সে মিছিলে অংশগ্রহণ করে। মিছিলটি মোহাম্মদপুর বাসষ্ট্যান্ড থেকে কাঁচা বাজারে গিয়ে শেষ হয়। মোহাম্মদপুর থানার আরেকটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল রহমান, বজলুর রহমান ও আলমগীর হোসেন লাবুর নেতৃত্বে রিংরোড হতে শুরু হয়ে মাঠের কর্নারে গিয়ে শেষ হয়। কাফরুল থানা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল রোকেয়া স্মরণীতে অনুষ্ঠিত হয়। এতে নেতৃত্ব দেন উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন মতি এবং সহ-সাধারণ সম্পাদক মো: আশরাফুজ্জাহান জাহান। বিমানবন্দর বিএনপির মিছিল উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোঃ নাসির জুলহাস পারভেজের নেতৃত্বে, আদাবর বিএনপির মিছিল আবুল হাশেম, কামাল সরকার ও সাইফুন্নবী খালে;ের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। দক্ষিণখান থানার মিছিল থানা বিএনপি›র সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর আলী ও সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আমিরুল ইসলাম বাবলুর নেতৃত্বে মধ্য আজমপুর রোডে অনুষ্ঠিত হয়। বনানী থানা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল সকালে মহাখালীস্থ গাউছুল আযম মসজিদ থেকে শুরু হলে পুলিশী বাঁধায় পন্ড হয়ে যায়। তুরাগ থানা বিএনপি বিক্ষোভ মিছিল করার প্রস্তুতি নিলে পুলিশ ও আওয়ামী নেতাকর্মীদের হামলায় মিছিল পÐ হয়। খিলক্ষেত থানার মিছিল হাজী এস.এম ফজলুল হকের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিরপুর থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল এস.এ সিদ্দিক সাজু, মোঃ দেলোয়ার হোসেন দুলু, হাজী আব্দুল মতিন ও আবুল বাশার ভূঁইয়ার নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি প্রশিক্ষা বিল্ডিং এর সামনে থেকে শুরু হয়ে মিরপুর কমার্স কলেজের সামনে এসে শেষ হয়। মিরপুর থানা বিএনপির আরেকটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু করতে গেলে মিছিলটি পুলিশী বাঁধায় পন্ড হয়ে যায়। দারুস সালাম থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ মাসুদ খান ও হাজী আঃ রহমানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। ভাটারা থানা বিএনপি বিক্ষোভ মিছিল করতে গেলে পুলিশী বাঁধায় মিছিলটি পন্ড হয়ে যায়। উত্তরখান থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল আহসান হাবিব, মোঃ হিরণ, জাহাঙ্গীর বেপারী সহ বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয়। শেরে বাংলা নগর থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, শাহ আলম, সোহেল সহ থানা বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি স্কয়ার হাসপাতালের সামনে থেকে শুরু হয়ে সমরিতা হাসপাতালের সামনে গিয়ে পুলিশি বাঁধায় পন্ড হয়ে যায়।
এদিকে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহসান চৌধুরী পাপ্পুর নেতৃত্বে ব্রাক্ষণবাড়িয়ার নবীনগরের রছুলপুর, নাটঘর, বিদ্যাকুট, শিবপুর, বিটঘর, কাইতলা, রছুল্লাবাদ, রতনপুর, কৃষ্ণনগর, বীরগাঁও, নারায়নপুর ও নবীনগর পশ্চিম ইউনিয়নে চারদিন ব্যাপী লিফলেট বিতরণ ও একাধিক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। এই সময় উপস্থিত ছিলেন নবীনগর উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মলাই মিয়া, যুগ্ম সম্পাদক উবায়দুল হক ভিপি লিটন, দপ্তর সম্পাদক হুমায়ন কবির, সাবেক প্রচার সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, ক্রীড়া সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম জাকন, মুক্তিযোদ্ধা সম্পাদক আঃ আওয়াল, রিয়াদ বিএনপি নেতা আমিনুল ইসলাম আইনুল, নবীনগর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক হাবিবুর রহমান হেলাল, আসাদুজ্জামান দুলাল, নবীনগর উপজেলা ছাত্রদল সহ-সভাপতি মোশারফ হোসেন নান্টু, তোজাম্মেল হক বকুল, যুগ্ম সম্পাদক মাইনুল ইসলাম, কৃষকদল সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাবুল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
ময়মনসিংহ ব্যুরো জানায়, ময়মনসিংহের গৌরীপুরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জেলা উত্তর যুবদল। এ জেলা উত্তর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক শামছুল হক ভিপি শামছুর নেতৃত্বে বিক্ষোভে অংশগ্রহণ করে সরকারী কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি সৈয়দ তৌফিকুল ইসলাম, ইলিয়াস উদ্দিন মৃধা, মো: সোহেল রানা মেম্বার, আব্দুস ছাত্তার, মাসুদ মেম্বার, আলী প্রমুখ।
নওগাঁ জেলা সংবাদদাতা জানান, পুলিশী বাধায় পÐ হয় নওগাঁয় জেলা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করতে পারে নি। পরে পুলিশ বেষ্টনীর মধ্যে কার্যালয়ের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা লেঃ কর্নেল অবঃ আব্দুল লতিফ খান, জেলা বিএনপির সভাপতি ও পৌর মেয়র নাজমুল হক সনি, সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু, প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
স্টাফ রিপোর্টার নারায়ণগঞ্জ থেকে জানান, কেন্দ্রীয় কর্মস‚চীর অংশ হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল করেছে নারায়ণগঞ্জে জেলা ও মহানগর যুবদল। এতে জেলা যুবদলের সভাপতি মোশারফ হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল।
জয়পুরহাট জেলা সংবাদদাতা জানান, জয়পুরহাটে যুবদলের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে পুলিশের বাধা দেয়। পরে কার্যালয়ের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন জেলা বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইনিঞ্জিনিয়ার গোলাম মোস্তফা ও যুবদল নেতারা।
কুড়িগ্রাম জেলা সংবাদদাতা জানান, কুড়িগ্রামে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বিএনপি জাতীয় নির্বাহি কমিটির সদস্য সাইফুর রহমান রানার নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয় পরে জাহাজমোড়ে জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু বকর সিদ্দিকের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
মাদারীপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, মাদারীপুর জেলায় বিক্ষোভ মিছিল বের করলে পুলিশের বাধায় তা পন্ড হয় বলে দলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। ফলে এর প্রতিবাদে মেলবোর্ন প্লাজার সামনে সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহান্দার আলী জাহান, পৌর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট শরীপ মো: সাইফুল কবীরসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ ।
মুন্সীগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, মুন্সীগঞ্জে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে জেলা বিএনপি। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সভাপতি ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা, সাবেক মন্ত্রী আব্দুল হাই, বিএনপি নেতা আতাউর হোসেন বাবুলসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীরা।
গৌরীপুর ময়মনসিংহ উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ময়মনসিংহ জেলা জেলা উত্তর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ মাহফুজুর রহমানের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

 

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর