Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

মঠবাড়িয়ায় সংঘর্ষে দুই পরিবারের আহত ৯

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩১ মার্চ, ২০১৮, ১২:০০ এএম

পূর্ব শত্রতার জের ধরে দুই পরিবারের সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ৯ আহত হয়। গত বৃহস্পতিবার রাতে মঠবাড়িয়ার হোগলপতি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়রা আহদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। একই পরিবারের ছয় জনের অবস্থায় অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মেডিকেল অফিসার ডা. আলী আহসান ওই রাতেই ৬জনকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন। আহতরা হলো একই পরিবারের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে হারুন ফরাজী (৫৫), হারুন ফরাজীর স্ত্রী হনুফা বেগম (৪৫) ছেলে মিরাজ (১২), ইলিয়স (১৫) জয়নাল ফরাজী (২৩) তার স্ত্রী সুরাইয়া (১৮), অপর পক্ষের একই এলাকার আবদুল খালেকের ছেলে শাহাদাৎ এর ভাই নুর আলম (৩৩) তার স্ত্রী হনুফা (২৫) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে।
আহত ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার হোগলপাতি গ্রামের হারুন ফরাজীর সাথে এলাকার শাহাদাৎ এর সাথে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে ১৫দিন পূর্বে মারামারি হয়। এ ঘটনায় হারুন ফরাজী বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানা শাহাদাৎসহ পাঁচ জনকে আসামী করে মামলা করে। আসামীরা জামিনে এলে বৃহস্পতিবার রাতে প্রতিপক্ষের ৮/৯ একটি দল পূর্ব পথে ওঁৎ জয়নাল বাড়িতে ডোকার সময় মুখ বেঁধে ধরে মারতে মারতে ঘরে ভিতরে নিয়ে আসে ও ঘরে থাকা অন্যদের এলোপাতারী দেশী অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এসময় হারুনের বিদেশে যাওয়ার জন্য মটরসাইকেল বিক্রি করা, নিজেদের ও দারদেনা করা ঘরে রক্ষিত এক লাখ উনাআশি হাজার টাকা নিয়ে যায়। শাহাদাৎ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার ভাই বাড়ি ডোকার পথে হারুন তার ছেলে ও লোকজন নিয়ে আমার ভাই ও ভাইর বৌকে ।
সাবেক ইউপি সদস্য মন্টু তালুকদার জানান, আমার কাছে রাখা মটরসাইকেল বিক্রির ত্রিশ হাজার টাকা গত কাল হারুন নিয়ে যায়। মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম ছরোয়ার জানান, এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ