Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

ইউটিউবের সদর দপ্তরে গুলি, বন্দুকধারী নিহত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ এপ্রিল, ২০১৮, ১১:০৯ এএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইউটিউবের সদর দপ্তরে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। ক্যালিফোর্নিয়ার সান ব্রুনোতে অবস্থিত ওই কার্যালয়ে ব্যাপক গোলাগুলি হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে সেখানে এক ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। দূর থেকে শোনা যায় গুলির শব্দ। স্থানীয় লোকজনের মধ্যে দেখা দেয় আতঙ্ক। সন্দেহভাজন এক নারী হামলাকারী নিহত হয়েছে এতে। আহত হয়েছে তিনজন।
এ ঘটনা ঘটেছে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বিকালে। এ খবর দিয়েছে টাইম ম্যাগাজিনের অনলাইন সংস্করণ। সান ব্রুনোর পুলিশের মতে, হামলাকারীকে সনাক্ত করা হয়েছে। তিনি দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার একজন অধিবাসী। তার নাম নাসিম আঘদাম। ইউটিউব অফিসের ভিতরে গোলাগুলির পর এর ভিতরে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে তাকে। ধারণা করা হচ্ছে নিজের গুলিতে আহত হয়েছে সে। মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে এমন তথ্যই জানিয়েছেন সান ব্রুনোর পুলিশ প্রধান এডওয়ার্ড বারবারনি। ঘটনার আকস্মিকতায় ইউটিউব সদর দপ্তর থেকে ১১০০ কর্মকর্তা কর্মচারীর সবাইকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে জানানো হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে। তিনি পরে টুইটে লিখেছেন, এ ঘটনার শিকার সবার জন্য আমাদের প্রার্থনা। এ জন্য তিনি দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য স্থানীয় আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।
যেভাবে ঘটনার সূত্রপাত
মঙ্গলবার স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা ৪৬ মিনিট। সান ব্রুনো পুলিশ ডিপার্টমেন্টে একটি জরুরি কল যায়। তাতে জানানো হয়, ইউটিউব সদর দপ্তরে গোলাগুলি হচ্ছে। এ সময় ওই প্রতিষ্ঠানের ভিতরে থাকা কর্মচারীরাও টুইট করা শুরু করেন। তারা জানান, ভবনের ভিতরে একজন সক্রিয় ‘শুটার’ রয়েছে। গুলির শব্দ পাওয়া যাচ্ছে। একজন কর্মচারী বলেছেন, অকস্মাৎ গুলির শব্দ শুনতে পাই। অন্যরা বলেন, তখন দুপুরবেলা। হঠাৎ দৌড়াদৌড়ি শুরু হয়। ফায়ার এলার্ম বাজানো হয়। একজন নারীকে দৌড়াতে দেখা যায়। ইউটিউবে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার আলেক্সান্দার ইউরিব তখন ভবনের ভিতরে ছিলেন। তিনি ওই নারীকে দৌড়াতে দেখেছেন। ইউটিউব সদর দপ্তরের প্রডাকশন ম্যানেজার ভাদিম লাভরুসিক তার টুইটে একই রকম কথা বলেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউটিউব

১৪ অক্টোবর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ