Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯, ০৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

দুই সিটিতে একক প্রার্থী দেবে ২০ দল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ এপ্রিল, ২০১৮, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১২:০৪ এএম, ৭ এপ্রিল, ২০১৮

আসন্ন গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থীকে সমর্থন দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ২০ দলীয় জোট। গতকাল (শুক্রবার) রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে জোটের শীর্ষনেতাদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে এবং জোটের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খানের পরিচালনায় সন্ধ্যা সাতটায় বৈঠক শুরু হয়। চলে রাত নয়টা পর্যন্ত।
বৈঠকের বিষয়ে উপস্থিত জোটের একাধিক নেতা জানান, জোটের ঐক্য ধরে রাখার স্বার্থেই গাজীপুর ও খুলনায় বিএনপির প্রার্থীকে জোটগতভাবে সমর্থন দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। দুই সিটির জন্য ২০ দলীয় জোটের নেতাদের নিয়ে পৃথক সমন্বয় কমিটি গঠন করা হবে। তারা প্রচারণা থেকে শুরু করে সামগ্রিক নির্বাচনি কর্মকাÐ সমন্বয় করবেন। স‚ত্র জানায়, প্রার্থী চ‚ড়ান্ত হওয়ার পর এই সমন্বয় কমিটির প্রধান ও সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হবে।
বৈঠকে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে শরিক জামায়াতে ইসলামী মেয়র পদে প্রার্থী দিয়েছে, বিষয়টি আলোচনায় আসে। এ সময় জোটের পক্ষ থেকে দলটিকে তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের অনুরোধ জানানো হয়। বৈঠকের শুরুতেই মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জোট নেতাদের উদ্দেশে বলেন, ‘ম্যাডাম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছি। তিনি আপনাদের সালাম জানিয়েছেন। তিনি দুটি সিটিতে জামায়াতের প্রার্থীদের প্রচারণার প্রসঙ্গ তুলে বৈঠকে উপস্থিত দলটির নেতা আব্দুল হালিমকে বলেন, ‘আপনাদের প্রার্থীরা ভালোই প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। এটি আমাদের সবার জন্যই ভাল। কিন্তু, জোটগতভাবে নির্বাচন না হলে জনগণের মধ্যে বিরূপ ধারণা জন্মাবে।
এ সময় আব্দুল হালিম বলেন, ‘জোটের ঐক্যের স্বার্থে জামায়াত যেকোন সিদ্ধান্ত নিতে প্রস্তুত আছে। আমরা চাই, ২০ দলীয় জোট আরও ঐক্যবদ্ধ এবং শক্তিশালী হোক। এজন্য যেকোনো সিদ্ধান্ত আমরা বাতিলেও প্রস্তুত আছি।
এছাড়া বৈঠকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন আরও জোরদার এবং তাতে জোটের শরিক দলগুলোর সক্রিয় হওয়ার আহŸান জানানো হয়।
জোটের বৈঠকে এসময় উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, খেলাফত মজলিসের আমির মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এমএম আমিনুর রহমান, এলডিপির মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ, এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, ন্যাপের চেয়ারম্যান মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, জাগপার রেহেনা প্রধান, জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদের সদস্য আবদুল হালিম, বিজেপির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মতিন সৌদ, লেবার পার্টির (একাংশ) চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, অপর অংশের এমদাদুল হক চৌধুরী, ডেমোক্রেটিক লীগের সাইফুদ্দিন মুনি, সাম্যবাদী দলের সাঈদ আহমেদ, জমিয়তে ওলামার মহিউদ্দিন ইকরাম, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির মঞ্জুর হোসেন ঈসা প্রমুখ।
আগামী ১৫ মে ভোটগ্রহণের দিন ধার্য করে গত ৩১ মার্চ গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন ১২ এপ্রিল। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ১৫ ও ১৬ এপ্রিল। আর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার ২৩ এপ্রিল। প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে ২৪ এপ্রিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ২০ দলীয় জোট

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
৩০ নভেম্বর, -০০০১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ