Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ৯ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

পয়লা বৈশাখ সামনে রেখে জেলেরা ইলিশ নিধনে বেপরোয়া

বি এম হান্নান, চাঁদপুর থেকে | প্রকাশের সময় : ১০ এপ্রিল, ২০১৮, ১২:০০ এএম

চাঁদপুর নৌ-সীমানার পদ্মা-মেঘনায় টাস্কফোর্সের অভিযানের পরও অবাধে দিনে-দুপুরে জাটকা ও ইলিশ নিধন চলছে। অসাধু জেলেদের হটকারিতায় জাটকা সংরক্ষণের সফলতা নিয়ে দেখা দিয়েছে সংশয়। পয়লা বৈশাখ কেন্দ্র করে জেলেরা প্রশাসনকে ফাঁকি দিয়ে কারেন্ট জাল নিয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠায় ধরা পড়ছে জাটকাসহ মাঝারি আকারের ইলিশ।
অভয়াশ্রম চলাকালীন কার্ডধারী জেলেদের ৪০ কেজি করে চাল দেয়া হয়। এ সময়ে নদীতে সকল প্রকার জাল ফেলা, মাছ শিকার ও পরিবহন নিসিদ্ধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ। তাই কার্ডধারী অনেক জেলেই এখন নদীতে না গিয়ে তাদের ১২ থেকে ১৪ বছর বয়সী শিশুদের পাঠায়। নৌকা ও কারেন্ট জাল দিয়ে শিশু-কিশোররা ইলিশ ও জাটকা প্রকাশ্যে নিধন করছে। ধরা পড়লে শিশু আইনে জরিমানা অথবা মুচলেকা রেখে ছেড়ে দেয়া হয়। পদ্মা-মেঘনায় দু’মাস মাছ ধারা নিষিদ্ধ এমন কথা না মেনে অনেক জেলেই নদীতে নামছে। ফলে নদী জুড়ে জাটকা ও ইলিশ নিধন চলছে।
পদ্মা-মেঘনার তীরবর্তী হাট-বাজার, চাঁদপুর সদর হরিণা ফেরিঘাট, আখনেরহাট, দোকানঘর, আনন্দ বাজার, কোড়ালিয়ার চরসহ বিভিন্ন এলাকায় অবাধে জাটকা, টেম্পু ইলিশ ও বড় আকারের ইলিশ বিক্রির খবর পাওয়া গেছে।
সাধারণ জেলেদের অভিযোগ, হানারচর পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা জেলেদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে নদীতে মাছ ধরতে সুযোগ করে দেয়। অভিযানে যে সব জেলেরা আটক করা হয়, তাদের সামান্য পরিমাণ জরিমানা দিয়ে টাকার বিনিময়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।
সূত্র জানায়, চাঁদপুর নৌ-সীমানায় শিকার করা জাটকা ও টেম্পু ইলিশ(কিশোর ইলিশ) দিনের বেলা ক্রয়-বিক্রয় ও পরিবহন না করে বরফ দিয়ে রাখে। রাতে ইঞ্জিনচালিত টেম্পু ও ট্রলারযোগে বিভিন্ন স্থানে পাচার করে থাকে অসাধু জেলেরা।
আগামী ১৪ এপ্রিল বাঙালির পয়লা বৈশাখ কেন্দ্র করে ইলিশের চাহিদা বেড়ে গেছে। চড়া দামে ইলিশ বিক্রি হচ্ছে। অনেক দাদনদার জেলেদের দিয়ে ইলিশ আহরণ করে সে ইলিশ ফ্রিজিং করে রাখছে বেশি দামে বিক্রির উদ্দেশ্যে। ১ হাজার টাকার ইলিশ বৈশাখ উপলক্ষে বিক্রি হয় ৪ থেকে ৬ হাজার টাকায়। বেশি লাভের অপেক্ষায় অনেক অসাধু জেলে নদীতে নেমে মাছ শিকার করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ