Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৩ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

নালিতাবাড়ীতে গণধর্ষণ আটক ২

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ এপ্রিল, ২০১৮, ১২:০০ এএম

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় গত শনিবার রাতে এক কিশোরীকে(১৭) গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের অভিযোগে কিশোরীর বাবা গত রোববার রাতে নালিতাবাড়ী থানায় তিন জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। মামলার পরপরই রাতেই অভিযান চালিয়ে পুলিশ অভিযুক্ত দুই যুবককে আটক করে আদালতে পাঠিয়েছে।
পুলিশ ও কিশোরীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার যোগানিয়া ইউনিয়নের নানা বাড়িতে থেকে সন্ধ্যার পর ওই কিশোরী নিজ বাড়িতে যাচ্ছিলো। এসময় রাস্তায় কিশোরীর পূব পরিচিত দুই যুবক রিকশা করে যাচ্ছিলেন। এসময় ওই কিশোরীকে দেখে বাড়িতে পৌচ্ছে দিতে রিকশায় তোলেন। পরে জোর করে মেয়েকে ভোগাই নদীর ধারে নির্জন বাঁশেঝাড়ে নিয়ে যায়। মেয়েটি চিৎকার করলে মেরে ফেলার ভয় দেখানো হয়। পরে ওই দুই যুবক ও রিকশা চালক তিনজনে মিলে কিশোরীকে গণধর্ষণ করে। রাত সাড়ে ১১টার সময় মেয়েটিকে এলাকাবাসী উদ্ধার করেন। পরে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি রহুল কুদ্দুস মেয়ের বাবার কাছে মেয়েটিকে পৌচ্ছে দেন। মেয়ে বাড়ি ফিরে তার মাকে ধর্ষণের কথা জানায়। এ ব্যাপারে মেয়ের বাবা গত রোববার সন্ধ্যায় নালিতাবাড়ী থানায় গোবিন্দনগর গ্রামের আবদুস সালামের ছেলে আল আমিন (৩৫), আবদুল কাদেরের ছেলে সোহাগ মিয়া (২০) ও রিকশা চালক মো.সাইমদ্দিনের ছেলে আবদুল জলিল শাহিন (২২) বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে আল আমিন ও রিকশা চালক আবদুল জলিল শাহিনকে আটক করে। অন্য আসামী সোহাগ মিয়া পলাতক রয়েছে। গতকাল বিকেলে আসামীদেরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। কিশোরীকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য শেরপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গণধর্ষণ

২২ জানুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন